বাগেরহাটে প্রাথমিক শিক্ষকদের জন্য ই-পেনশন চালু

দেশে প্রথমবারের মতো প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের জন্য ই-পেনশন চালু করেছে বাগেরহাট জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর। পেনশন ও গ্র্যাচুইটির পাশাপাশি শিক্ষকরা এখন থেকে ঘরে বসেই অনলাইনে অবসর পরবর্তী ছুটির (পিআরএল) আবেদন করতে পারবেন।
Bagerhat District Primary Office.jpg
বাগেরহাট জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর। ছবি: স্টার

দেশে প্রথমবারের মতো প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের জন্য ই-পেনশন চালু করেছে বাগেরহাট জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর। পেনশন ও গ্র্যাচুইটির পাশাপাশি শিক্ষকরা এখন থেকে ঘরে বসেই অনলাইনে অবসর পরবর্তী ছুটির (পিআরএল) আবেদন করতে পারবেন।

শিক্ষা অধিদপ্তর সূত্র জানায়, আবেদন পাওয়ার পরে ইমেইলের পাশাপাশি ফেসবুক মেসেঞ্জার, ইমো এবং হোয়াটস অ্যাপের মাধ্যমে অফিস আদেশ পাঠিয়ে দেওয়া হবে। সেই সঙ্গে সংশ্লিষ্ট উপজেলা শিক্ষা অফিসার এবং হিসাবরক্ষক কর্মকর্তাকেও অবহিত করা হবে।

আগামী এক বছরে যে শিক্ষকরা পিআরএল-এ যাবেন, ইতোমধ্যে তাদের নামের তালিকা তৈরি করা হয়েছে। নাম, পদবি, বিদ্যালয়ে শেষ কর্মদিবস এবং কবে থেকে পিআরএল-এ যাবেন, ইমেইল ও মোবাইল ফোন নম্বর উল্লেখ করে অনলাইনে নির্দিষ্ট ফরম পূরণ করতে হবে।

দেশে প্রথম বাগেরহাটে ই-পেনশন এবং পিআরএল গ্র্যান্ট অর্ডার হোম ডেলিভারি সার্ভিসকে স্বাগত জানিয়েছেন অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষকরা।

অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক অসিত দাস দ্য ডেইলি স্টারকে জানান, চাকরি থেকে অবসরে যাওয়ার সময় নানা ধরনের ভোগান্তিতে পড়তে হয়েছিল তার। এক দপ্তর থেকে অন্য দপ্তরে বারবার ঘুরতে হয়েছে। এখন যারা অবসরে যাবেন তাদের এ ধরনের ভোগান্তিতে পড়তে হবে না।

সহকারী শিক্ষক কেয়া চৌধুরী বলেন, “আমার মা শিক্ষক ছিলেন। তিনি ইতোমধ্যে অবসর গ্রহণের জন্য আবেদন করেছেন। যারা অবসরে চলে গেছেন তাদের কাছে শুনেছি অবসরোত্তর ভাতা তোলা কতটা কঠিন। প্রযুক্তির সঙ্গে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। ই-পেনশনের মতো উদ্যোগ এখন সময়ের দাবি।”

বাগেরহাট জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. কবির উদ্দিন বলেন, “দীর্ঘ সময় চাকরি করার পরে মানুষ যখন অবসর নেন, তখন তিনি মানসিকভাবে বিষণ্ণ থাকেন। এর ওপর এক ধরনের ভয় কাজ করে পিআরএল-পেনশন নিতে তাকে ভোগান্তির শিকার হতে হবে। এই অবস্থার পরিবর্তন করতেই মূলত আমাদের এই উদ্যোগ।”

তিনি আরও বলেন, “অনলাইনে আবেদন পাওয়ার পরে আমরা ইমেইলে এবং সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অফিস আদেশ পাঠিয়ে দিবো। সেই সঙ্গে সংশ্লিষ্ট উপজেলা শিক্ষা অফিসার এবং হিসাবরক্ষক কর্মকর্তাকেও অবহিত করা হবে।”

Comments

The Daily Star  | English

Babar Ali: Another Bangladeshi summits Mount Everest

Before him, Musa Ibrahim (2010), M.A. Muhit (2011), Nishat Majumdar (2012), and Wasfia Nazreen (2012) successfully summited Mount Everest. Mohammed Khaled Hossain summited Mount Everest in 2013 but died on his way down

1h ago