আমি অপরাজনীতির শিকার: মেয়র নাছির

দলীয় মনোনয়ন না পাওয়া প্রসঙ্গে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন বলেছেন, তিনি ষড়যন্ত্র, অপপ্রচার, মিথ্যাচার এবং অপরাজনীতির শিকার।
আ জ ম নাছির উদ্দীন

দলীয় মনোনয়ন না পাওয়া প্রসঙ্গে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন বলেছেন, তিনি ষড়যন্ত্র, অপপ্রচার, মিথ্যাচার এবং অপরাজনীতির শিকার।

আজ মঙ্গলবার চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এ কথা বলেন। 

মেয়র পদের চাইতে রাজনীতিটাই তার কাছে মুখ্য উল্লেখ করে নাছির বলেন, কেউ যদি এসে আমাকে বলতেন মেয়র পদ থেকে সরে যাও, আমি ছেড়ে দিতাম।

মনোনয়ন না পাওয়ায় তার কোনো শোক, ক্রোধ, দুঃখ এবং হতাশা নেই বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সিটি করপোরেশনের বর্তমান মেয়র নাছির আসন্ন সিটি নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন পাননি। ২৯ মার্চ অনুষ্ঠিতব্য এই নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম চৌধুরী।

তবে মতবিনিময় সভায় নাছির জানান, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার বিরুদ্ধে মিথ্যা প্রচার দেখে তিনি আঘাত পেয়েছেন।

তিনি বলেন, “বঙ্গবন্ধুর খুনিদের কোনও আত্মীয়ের সঙ্গে তোলা আমার একটি ছবি ভাইরাল করা হয়েছে।”

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “এটা শতভাগ মিথ্যা। আমি সেই ব্যক্তিকে চিনি না।”

“আমি যখন কোনো অনুষ্ঠানে যাই, অনেক লোক আমার কাছে আসেন। অনেকেই আমার সঙ্গে ছবি তোলেন, যাদের আমি চিনি না,” বলেন তিনি।

তার দাবি, বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের সঙ্গে তার সম্পর্ক রয়েছে, এমন অপপ্রচার চালানোর জন্য ষড়যন্ত্র করে ছবি ভাইরাল করা হয়েছে।

মেয়র পদের জন্য অপরাজনীতির প্রয়োজন ছিল না মন্তব্য করে তিনি বলেন, “বঙ্গবন্ধু হত্যাকারীদের বিরুদ্ধে আমি জীবনের ঝুঁকি নিয়ে রাজনীতি করেছি। আমার নেতা শেখ হাসিনার পক্ষে আমার রাজনীতি।”

নাছির বলেন, বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যার পর তিনি প্রতিবাদ করেছিলেন। স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে তার অংশগ্রহণ এবং চট্টগ্রামের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো শিবিরমুক্ত করতে তার ভূমিকা ছিল।

তিনি বলেন, “বিপদের দিনে আমি দলের একজন পরীক্ষিত কর্মী।”

সিটি নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী রেজাউলকে বিজয়ী করার জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করবেন বলে তিনি ঘোষণা দেন।

Comments

The Daily Star  | English

Millions suffer as Cyclone Remal downs 10,000 telecom towers

Power outage due to cyclone Remal has caused over 10,000 mobile towers or base transceiver stations (BTS) to go out of service, affecting the mobile and internet services of millions of people in the southern districts

53m ago