আমি ঢাকায় নিজের বাসায় আছি: বুবলী

শবনম বুবলীর খোঁজ নিয়ে আলোচনা চলছে বেশ কিছুদিন ধরে। তাকে সর্বশেষ দেখা গিয়েছিল, বীর ছবির আইটেম গানের শুটিংয়ে গত মাসে এফডিসিতে। এরপর থেকে তার হদিস পাওয়া যাচ্ছিল না। তবে সচল ছিল মুঠোফোন ও ফেসবুকের ফ্যানপেজ। আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বুবলী টেলিফোনে ডেইলি স্টারের সঙ্গে কথা বলেন বুবলী।
Bubli
শবনম বুবলী। ছবি: শাহরিয়ার কবির হিমেল/স্টার

শবনম বুবলীর খোঁজ নিয়ে আলোচনা চলছে বেশ কিছুদিন ধরে। তাকে সর্বশেষ দেখা গিয়েছিল, বীর ছবির আইটেম গানের শুটিংয়ে গত মাসে এফডিসিতে। এরপর থেকে তার হদিস পাওয়া যাচ্ছিল না। তবে সচল ছিল মুঠোফোন ও ফেসবুকের ফ্যানপেজ। আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় টেলিফোনে ডেইলি স্টারের সঙ্গে কথা বলেন বুবলী।

বুবলী বলেন, “পরিচিত অনেকেই আমাকে ফোন করছেন। ফোন করলেই আমাকে পাওয়া যাবে এটাই বা কেন? পেশাগত জীবনের বাইরে আমার ব্যক্তিজীবন বলেও কিছু আছে; যেখানে একটু নিজের মতো থাকতে ইচ্ছা হয়। যা প্রত্যেক মানুষেরই থাকে। কেউ যদি ভাবে শুটিং নেই, আমি বসে আছি ফোন ধরব বলে, এটা তো হয় না।”

তিনি বলেন, “আমি বাসাতেই আছি। …যেকোনো ছবির কাজ শেষ করে আমি নিজের মতো পরবর্তী কাজের জন্য নিজেকে সময় দেই, প্রস্তুত করি। এসময় অনেকে যোগাযোগ করে না পেলে বলে আমি উধাও, পাচ্ছে না। দেশে নাকি বিদেশে, এটা সেটা! কিছুদিন আগেও এরকম ‘উধাও’ বলেছিল অনেকে। আমি বলেছিলাম নতুন ছবির প্রস্তুতি নিচ্ছি। এরপর ঠিকি কিন্তু বীর এবং ক্যাসিনো নামের দুইটি নতুন ছবির শুটিং শেষ করেছি।”

ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে গুঞ্জন প্রসঙ্গে বুবলী বলেন, “এসব আর নতুন কী, গুঞ্জন শব্দটাই তো গুঞ্জন। দেখুন পেশাগত জীবনের বাইরে কখনো আমি আমার ব্যক্তিজীবন সামনে আনিনি বা কথা বলিনি বা এসব নিয়ে এ্যাটেনশন পেতে চাইনি। আর ঘটনার পেছনেও তো অনেক ঘটনা থাকে এবং সময় তার সময়মতই কথা বলে। তাই কাজের বাইরে এসব গুঞ্জন নিয়ে আপাতত ভাবছি না।”

“বীর-এর জন্য আমাকে কিছু ওজন বাড়াতে হয়েছিল। চরিত্রের জন্য আমাদের ওজন বাড়ানো কমানো সবই করতে হয়। সেজন্য কারও কাছে অন্যরকম লাগতে পারে। চিন্তার কারণ নেই, কিছুদিন পরেই পরের ছবির জন্য আবার ওজন কমিয়ে আগের বুবলী হয়ে আসছি।”

Comments

The Daily Star  | English

Iran's President Raisi, foreign minister killed in helicopter crash

President Raisi, the foreign minister and all the passengers in the helicopter were killed in the crash, senior Iranian official told Reuters

3h ago