ভেট্টোরির ক্লাসে তরুণ স্পিনাররা

মিরপুর টেস্ট শেষ হয়ে গেছে চারদিনে। ওয়ানডে দলের ছোটাছুটিও একদিন পর। চড়া পারিশ্রমিক দিয়ে আনা স্পিন বোলিং কোচ ড্যানিয়েল ভেট্টোরিকে একদিন তাই খামাখা বসিয়ে রাখল না বিসিবি। জাতীয় দলের বাইরের সম্ভাবনাময় চার স্পিনারের সঙ্গে কাজ করেছেন তিনি।
daniel vettori
ছবি: ফিরোজ আহমেদ

মিরপুর টেস্ট শেষ হয়ে গেছে চারদিনে। ওয়ানডে দলের ছোটাছুটিও একদিন পর। চড়া পারিশ্রমিক দিয়ে আনা স্পিন বোলিং কোচ ড্যানিয়েল ভেট্টোরিকে একদিন তাই খামাখা বসিয়ে রাখল না বিসিবি। জাতীয় দলের বাইরের সম্ভাবনাময় চার স্পিনারের সঙ্গে কাজ করেছেন তিনি।

বুধবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) মিরপুর শেরে বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামের ইনডোরের পাশের নেটে ভেট্টোরির সঙ্গে কাজ করেছেন হাসান মুরাদ, তানবির ইসলাম, আমিনুল ইসলাম বিপ্লব ও নাজমুল ইসলাম অপু।

এর মধ্যে বিপ্লব ও নাজমুল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলে ফেলেছেন। আর উঠতি সম্ভাবনা হিসেবে দলের আশেপাশেই আছেন তানবির ও মুরাদ।

দক্ষিণ আফ্রিকায় এবারের যুব বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন দলে ছিলেন বাঁহাতি স্পিনার মুরাদ। দলের গুরুত্বপূর্ণ অংশ হয়ে পুরো আসরে রেখেছেন অবদান। গেল ঢাকা প্রিমিয়ার লিগেও নজরকাড়া পারফরম্যান্স দিয়ে ১৩ ম্যাচে নিয়েছিলেন ২৩ উইকেট। ঘরোয়া ক্রিকেটে নজর কেড়ে তানবিরও আছেন নজরে। এইচপি, ইমার্জিং দলে খেলানো হয়েছে তাকে। 

নাজমুল সেক্ষেত্র কিছুটা অভিজ্ঞ। তবে বিবর্ণ ফর্মের কারণে জাতীয় দল থেকে ছিটকে নিজেকে হারিয়ে খুঁজছেন তিনি। এদের সঙ্গে ছিলেন টি-টোয়েন্টি দলের নিয়মিত মুখ লেগ স্পিনার বিপ্লব।

বিসিবির সঙ্গে ১০০ দিনের চুক্তিতে দিন প্রতি আড়াই হাজার ডলার করেন পারিশ্রমিক পান নিউজিল্যান্ডের সাবেক স্পিনার ভেট্টোরি। জাতীয় দলের বাইরে থাকা বাংলাদেশের উঠতি স্পিনারদের গড়ে তোলাও তার কাজের অংশ। তানবির, মুরাদদের সঙ্গে কাজ শুরু করে সেই দায়িত্বই পালন করলেন তিনি, ‘বাংলাদেশের উঠতি স্পিনারদের সম্পর্কে ধারণা নেওয়াই মূল উদ্দেশ্য ছিল। এদেরকে টিভিতে খেলতে দেখেছি, এবারই আলাপ হলো। কেবল আন্তর্জাতিক খেলোয়াড়ই নয়, তরুণদের উন্নতি করানোরও আমার কাজের অংশ।’

বিপ্লবকে আগেই পেয়েছিলেন। মূলত মুরাদ আর তানবিরকে প্রথমবার দেখলেন তিনি। তবে প্রথম সেশনে খুব বেশি কিছু নয়, নিউজিল্যান্ডের কিংবদন্তি ক্রিকেটার বাংলাদেশের উঠতি স্পিনারদের স্কিল আর শক্তি নিয়ে ধারণা নিয়েছেন, ‘তারা (হাসান মুরাদ ও তানবির ইসলাম) খুব ভালো বোলার। আমার মনে হয়, নেটে বল করা আর ম্যাচে বল করা ভিন্ন ব্যাপার। কাজেই ওদের সঙ্গে কাজ করে ম্যাচে দেখতে হবে তারা কেমন করে। তাইজুল, (মেহেদী হাসান) মিরাজ এবং নাঈমের ক্ষেত্রে এই পন্থাতেই আমি কাজ করতে উপভোগ করেছি। যা শিখিয়েছি, দেখেছি ম্যাচে কেমন হয়। এই মুহূর্তে এদেরকে জানা, এদের স্কিল আর শক্তির জায়গা বোঝাই মূল ব্যাপার ছিল।’

Comments

The Daily Star  | English

PM assures support to cyclone-hit people

Prime Minister Sheikh Hasina today distributed relief materials among the cyclone-affected people reiterating that her government and the Awami League party will stand by them as long as they need the assistance to rebuild their lives

46m ago