শীর্ষ খবর

আ. লীগ নেতাকে কারাগারে পাঠানো বিচারককে তাৎক্ষণিক বদলি, বিকেলে জামিন

দুর্নীতির মামলায় পিরোজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ কে এম এ আউয়াল এবং তার স্ত্রী লায়লা পারভীনের জামিন আবেদন বাতিল করে জেল হাজতে পাঠানোর আদেশ দেওয়া জেলা ও দায়রা জজ আব্দুল মান্নানকে ‘দুর্নীতির অভিযোগে’ তাৎক্ষণিকভাবে বদলি করা হয়েছে।
Ex-MP_Awal
পিরোজপুর-১ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য এ কে এম এ আউয়াল। ছবি: স্টার

দুর্নীতির মামলায় পিরোজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ কে এম এ আউয়াল এবং তার স্ত্রী লায়লা পারভীনের জামিন আবেদন বাতিল করে জেল হাজতে পাঠানোর আদেশ দেওয়া জেলা ও দায়রা জজ আব্দুল মান্নানকে ‘দুর্নীতির অভিযোগে’ তাৎক্ষণিকভাবে বদলি করা হয়েছে।

পরে বিকেলে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের ভারপ্রাপ্ত দায়িত্বে থাকা যুগ্ম জেলা জজ নাহিদ নাসরিন এর দ্বিতীয় আদালত থেকে তারা জামিন পেয়েছেন।

আইন মন্ত্রণালয় সূত্রগুলো জানায়, দুর্নীতির অভিযোগ ওঠায় আব্দুল মান্নানের বিরুদ্ধে এই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। তার বিরুদ্ধে অভিযোগের তদন্ত চলছে। এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক কোনো মন্তব্য না করে বলেছেন, ‘আমি নিরপেক্ষ থাকতে চাই।’

আজ মঙ্গলবার সকালে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) এর মামলায় পিরোজপুর-১ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ কে এম এ আউয়াল ও তার স্ত্রী লায়লা পারভীন পিরোজপুর জেলা ও দায়রা জজ আদালতে জামিন আবেদন নিয়ে হাজির হয়েছিলেন। আবেদন নাকচ করে তাদের জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন বিচারক আব্দুল মান্নান।

মামলার নথি থেকে জানা যায়, পিরোজপুরের নাজিরপুর থানার সামনে সরকারি খাস জমি দখল করার অভিযোগ এনে গত বছরের ৩০ ডিসেম্বর দুদকের উপপরিচালক মো. আলী আকবর বরিশালে দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয় তিনটি মামলা করেন। একটি মামলায় তার স্ত্রী লায়লা পারভীনকে আসামি করা হয়।

আরও পড়ুন:

দুদকের মামলায় পিরোজপুরের সাবেক এমপি আউয়াল ও তার স্ত্রী কারাগারে

Comments

The Daily Star  | English