শেয়ারবাজারে দরপতন ২৭৯ পয়েন্ট

করোনাভাইরাস আতঙ্কে পুঁজিবাজারে বড় দরপতন হয়েছে। আজ সোমবার লেনদেন শেষে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের প্রধান সূচক ডিএসইএক্স কমেছে ২৭৯ পয়েন্ট বা ৬ দশমিক ৫১ শতাংশ।
Share_Market_DSEC

করোনাভাইরাস আতঙ্কে পুঁজিবাজারে বড় দরপতন হয়েছে। আজ সোমবার লেনদেন শেষে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের প্রধান সূচক ডিএসইএক্স কমেছে ২৭৯ পয়েন্ট বা ৬ দশমিক ৫১ শতাংশ।

বাজার বিশ্লেষকরা বলছেন, করোনাভাইরাসের কারণে চীন থেকে কাঁচামাল আমদানিতে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত প্রায় সব কোম্পানিকে। কোম্পানিগুলোর আয়ে এর নেতিবাচক প্রভাব পড়তে পারে। এই শঙ্কা থেকেই শেয়ারবাজারের দরপতন হচ্ছে।

তারা বলছেন, এমনিতেই গত কয়েক মাস ধরে বাজারে সূচক কমছে। তার ওপর করোনাভাইরাস আরেকটি নেতিবাচক দিক হিসেবে যুক্ত হয়েছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একটি ওষুধ কোম্পানির প্রধান অর্থ কর্মকর্তা দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ওষুধ খাতের বেশিরভাগ কোম্পানিই তাদের কাঁচামালের একটি অংশ চীন থেকে আমদানি করে। যদি করোনাভাইরাসের প্রকোপ আগামী কয়েক মাস দীর্ঘায়িত হয় সে ক্ষেত্রে কোম্পানিগুলোর উৎপাদন কিছুটা ব্যাহত হবে। তবে বেশিরভাগ বড় কোম্পানি আগামী অন্তত তিন মাসের কাঁচামাল মজুদ করে রেখেছে।

তা ছাড়া, অনেক কোম্পানি চীনের বিকল্প হিসেবে অন্য দেশের দিকেও ঝুঁকছে। যদিও অন্য দেশগুলোতে কাঁচামালের দাম একটু বেশি।

একজন মার্চেন্ট ব্যাংকার বলেন, গত চার দিন ধরেই পুঁজিবাজারে টানা দরপতন হচ্ছে। এর পেছনে অন্য কারণগুলো কাজ করলেও আজ ও গতকাল করোনাভাইরাসের ইস্যুটিই বড় হয়ে দেখা দিয়েছে। কারণ বাংলাদেশের অন্যতম বাণিজ্যিক অংশীদার চীন। আর এ চীনের অর্থনীতি ক্ষতিগ্রস্ত হলে এর প্রভাব বাংলাদেশে আসাই স্বাভাবিক।

আজ লেনদেন শেষে মাত্র দুটি কোম্পানির শেয়ারের দাম বেড়েছে। বিপরীতে কমেছে ৩৫২টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে একটির।

গতকাল রোববার বাংলাদেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত তিন জন শনাক্ত হয়েছেন।

আরও পড়ুন:

দেশে ৩ করোনাভাইরাস রোগী শনাক্ত

Comments

The Daily Star  | English

New School Curriculum: Implementation limps along

One and a half years after it was launched, implementation of the new curriculum at schools is still in a shambles as the authorities are yet to finalise a method of evaluating the students.

9h ago