প্রত্যাহার হতে পারেন কুড়িগ্রামের জেলা প্রশাসক: প্রতিমন্ত্রী

কুড়িগ্রামের জেলা প্রশাসকের বিরুদ্ধে অনিয়মের প্রমাণ পাওয়া গেছে। তাকে প্রত্যাহার করা হতে পারে বলে জানিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।
কুড়িগ্রামের জেলা প্রশাসক সুলতানা পারভীন। ছবি: সংগৃহীত

কুড়িগ্রামের জেলা প্রশাসকের বিরুদ্ধে অনিয়মের প্রমাণ পাওয়া গেছে। তাকে প্রত্যাহার করা হতে পারে বলে জানিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।

প্রতিমন্ত্রীর বরাত দিয়ে মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ শিবলী সাদিক দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘তার বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে।’

কুড়িগ্রামের জেলা প্রশাসক সুলতানা পারভীনের বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা করার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা অনেকগুলো ব্যবস্থা নিয়েছি। আরিফুল ইসলাম জামিন পেয়েছেন। তিনি এখন মুক্ত আছেন।’

গত শুক্রবার মধ্যরাতে তিন জন ম্যাজিস্ট্রেটসহ টাক্সফোর্সের সদস্যরা জেলা সদরের ভকেশনাল মোড় (চরুয়াপাড়া) এলাকায় বাড়ি থেকে আরিফুলকে জোর করে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে ধরে নিয়ে যায়। এরপর তাকে মাদক মামলায় এক বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

 

আরও পড়ুন:

‘গভীর রাতে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা ঠিক হয়নি’

কুড়িগ্রামের সাংবাদিক আরিফুলের জামিন, জানে না পরিবার

‘কোনো কথা ছাড়াই আমার স্বামীকে মারধর করতে শুরু করে’

Comments

The Daily Star  | English