দর্শকশূন্য মাঠে শুরু হতে পারে প্রিমিয়ার লিগ

আগামী ৩০ জুনের মধ্যে ইউরোপের সব ফুটবল লিগের সমাপ্তি চায় উয়েফা। এক বিবৃতিতে আগের দিন এমন অনুরোধই করেছিল ইউরোপিয়ান ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি। আর তাদের অনুরোধের পর উঠেছে নতুন গুঞ্জন, শেষ ৯২টি ম্যাচ 'বন্ধ দরজায়' দর্শকশূন্য মাঠে আয়োজনের কথা ভাবছে প্রিমিয়ার লিগ কর্তৃপক্ষ। এমন সংবাদই প্রকাশ করেছে ইংলিশ গণমাধ্যম দ্য সান।
ছবি: এএফপি

আগামী ৩০ জুনের মধ্যে ইউরোপের সব ফুটবল লিগের সমাপ্তি চায় উয়েফা। এক বিবৃতিতে আগের দিন এমন অনুরোধই করেছিল ইউরোপিয়ান ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি। আর তাদের অনুরোধের পর উঠেছে নতুন গুঞ্জন, শেষ ৯২টি ম্যাচ 'বন্ধ দরজায়' দর্শকশূন্য মাঠে আয়োজনের কথা ভাবছে প্রিমিয়ার লিগ কর্তৃপক্ষ। এমন সংবাদই প্রকাশ করেছে ইংলিশ গণমাধ্যম দ্য সান।

আগের মতো হোম-অ্যাওয়ে পদ্ধতিতে হবে না বাকি ম্যাচগুলো। নির্দিষ্ট তিন থেকে চারটি মাঠে আয়োজনের কথা ভাবছে প্রিমিয়ার লিগের আয়োজকরা। তবে ভেন্যুগুলো দেশের মাঝামাঝি অঞ্চলে হতে পারে। প্রতিটি ম্যাচই হবে আলাদা সময়ে। আর প্রত্যেক দলই খেলবে নিরপেক্ষ ভেন্যুতে। সমর্থকদের জন্য প্রতিটি খেলা সরাসরি সম্প্রচারের ব্যবস্থা করা হবে।

এমনটা হলে প্রতিদিনই থাকবে ম্যাচ এবং প্রতি তিন দিন পর পর একটি দলের খেলা থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। যদিও বিষয়টি সম্পূর্ণ আলোচনাধীন রয়েছে। আগামীকাল বৃহস্পতিবার ক্লাবগুলোর সঙ্গে এ নিয়ে আলোচনা সভায় বসার কথা রয়েছে লিগ কর্তৃপক্ষের।

করোনাভাইরাসের কারণে আগামী ৪ এপ্রিল পর্যন্ত স্থগিত করা হয়েছে প্রিমিয়ার লিগের খেলা। জানা গেছে, আগামীকালের বৈঠকে ক্লাবগুলো রাজি হলে এরপরই ফের শুরু হতে পারে লিগ।

লিগ শুরু হলে লাভবান হবে লিভারপুল। ১৯৯২ সালে প্রিমিয়াম লিগ নামকরণের পর একবারও ইংল্যান্ডের পেশাদার ফুটবলের সর্বোচ্চ আসরের ট্রফি জিততে পারেনি দলটি। অথচ প্রতিযোগিতাটি যখন ইংলিশ প্রথম বিভাগ নামে ছিল, তখন তারা শিরোপা জিতেছিল রেকর্ড ১৮ বার। লম্বা সময় এবারই প্রথম ট্রফি জয়ের খুব কাছাকাছি চলে এসেছে তারা। ২৯ ম্যাচে তাদের পয়েন্ট ৮২। তাদের চেয়ে ২৫ পয়েন্ট কম নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে ম্যানচেস্টার সিটি। আর মাত্র দুটি জয় পেলেই লিভারপুলের হাতে উঠবে শিরোপা। কিন্তু করোনাভাইরাসের প্রভাবে মাঝপথে লিগ থেমে যাওয়ায় আটকে গেছে তাদের স্বপ্ন। 

ইংলিশ সরকার অবশ্য করোনাভাইরাস নিয়ে বেশ সতর্ক। ইতোমধ্যে দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ১ হাজার ৯৫০ জনে পৌঁছেছে। এর মধ্যে মারা গেছে ৭১ জন। আক্রান্ত হয়েছেন আর্সেনাল কোচ মিকেল আর্তেতা ও চেলসি ফরোয়ার্ড ক্যালাম হাডসন-ওডোইসহ আরও বেশ কিছু খেলোয়াড়-কর্মকর্তা। যদিও তারা সেরে ওঠার পথে।

Comments

The Daily Star  | English

Mangoes and litchis taking a hit from the heat

It’s painful for Tajul Islam to see what has happened to his beloved mango orchard in Rajshahi city’s Borobongram Namopara.

13h ago