ফরজ নামাজ ছাড়া মসজিদে না যেতে মাইকিং, হামলায় আহত ২

হবিগঞ্জের বাহুবলে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে ফরজ ছাড়া অন্যান্য নামাজ বাড়িতে পড়ার আহ্বান জানিয়ে মাইকিং করতে গিয়ে হামলার শিকার হয়েছেন দুজন। শুক্রবার সন্ধ্যায় সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী উপজেলা প্রশাসনের মাইকিংয়ের সময় এ ঘটনা ঘটে।

হবিগঞ্জের বাহুবলে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে ফরজ ছাড়া অন্যান্য নামাজ বাড়িতে পড়ার আহ্বান জানিয়ে মাইকিং করতে গিয়ে হামলার শিকার হয়েছেন দুজন। শুক্রবার সন্ধ্যায় সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী উপজেলা প্রশাসনের মাইকিংয়ের সময় এ ঘটনা ঘটে।

বাহুবল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোক্তাদির হোসেন দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘সরকারি কাজে বাধা দেওয়ায় উপজেলা প্রশাসনের অফিস সহকারী মো. আব্দুল মুকিত আল মামুন এই ঘটনায় ৪০ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন।’

হামলায় আহত দুজনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

মসজিদে নামাজ চালিয়ে যাওয়ার দাবিতে হামলার ঘটনার পর শুক্রবার সন্ধ্যায় স্থানীয় কয়েকশ মুসল্লি বিক্ষোভ মিছিল করেন। তারা থানা ও উপজেলা প্রশাসনের কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ দেখান।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ঊর্ধ্বতন সহকারী পুলিশ সুপার পারভেজ আলম বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘মসজিদে নামাজ চলবে, তবে অসুস্থ ব্যক্তিদের মসজিদে না যাওয়াই ভালো।’ পুলিশ সুপারের আশ্বাসের পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।

বাহুবল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা স্নিগ্ধা তালুকদার বলেন, ‘করোনাভাইরাসের সংক্রমণের ঝুঁকিতে মসজিদে ফরজ ব্যতীত অন্যান্য নামাজ বন্ধের জন্য মাইকিং করার সময় কিছু লোক এটি ঘটিয়েছে। এটি উপজেলার একক কোনো বিষয় না। সারাদেশে একইভাবে মাইকিং হচ্ছে।’

Comments