ছুটি না পেয়ে অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতিতে হবিগঞ্জের ২৪ হাজার চা শ্রমিক

হবিগঞ্জের ২৪ হাজার চা শ্রমিকরা কর্মবিরতির ঘোষণা দিয়েছেন। আজ মঙ্গলবার সকালে লস্করপুর ভ্যালির মোট ২৩টি চা বাগানের শ্রমিকরা অনির্দিষ্টকালের জন্য এই কর্মসূচির ঘোষণা দেন। গতকাল সিলেট ভ্যালির চা বাগানের শ্রমিকরা কর্মবিরতে যান।
Habiganj_Tea-worker
ছুটি না পেয়ে অনির্দিষ্টকালের জন্য কর্মবিরতির ঘোষণা দিয়েছেন হবিগঞ্জের ২৪ হাজার চা শ্রমিক। ছবি: স্টার

হবিগঞ্জের ২৪ হাজার চা শ্রমিকরা কর্মবিরতির ঘোষণা দিয়েছেন। আজ মঙ্গলবার সকালে লস্করপুর ভ্যালির মোট ২৩টি চা বাগানের শ্রমিকরা অনির্দিষ্টকালের জন্য এই কর্মসূচির ঘোষণা দেন। গতকাল সিলেট ভ্যালির চা বাগানের শ্রমিকরা কর্মবিরতে যান।

বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়ন সিলেট শাখার সভাপতি রাজু গোয়ালা বলেন, চা বাগানে করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকি সবচেয়ে বেশি। গত কয়েকদিন ধরেই শ্রমিকরা ছুটি ঘোষণার দাবি জানিয়ে আসছিলেন।

বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়ন কেন্দ্রীয় কমিটির সহসাধারণ সম্পাদক নিপেন পাল বলেন, হবিগঞ্জ জেলার ২৩টি চা বাগানের স্থায়ী-অস্থায়ী ২৪ হাজার শ্রমিক কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে কোনো সাড়া না পেয়ে কাজ বন্ধ করে দিয়েছেন। আমাদের প্রত্যাশা ছিল, কর্তৃপক্ষ রেশন সরবরাহ করবে এবং সবেতনে ছুটি দেবে।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে শ্রীমঙ্গলে বিভাগীয় শ্রম অধিদপ্তরের উপপরিচালক নাহিদ হোসেন বলেন, বাগান মালিকরা চাইলে নিরাপত্তার স্বার্থে বাগানের কার্যক্রম বন্ধ রাখতে পারেন। বিষয়টি আমরা চা শ্রমিক নেতাদের জানিয়েছি। এখানে আমাদের কিছুই করার নেই।

চা বাগান মালিকদের সংগঠন বাংলাদেশ চা সংসদ সিলেট অঞ্চলের চেয়ারম্যান শিবলি বলেন, ‘চা শ্রমিকরা এই সময় বৃষ্টি হওয়ার আগে চা গাছে পানি দিচ্ছে এবং তাদের ঘরগুলো মেরামত করছে। আমরা যদি বাগান বন্ধ করি, তাহলে অস্থায়ী কর্মীরা সুবিধাবঞ্চিত হবে।’

আরও পড়ুন:

কাজ বন্ধ করে দিলেন সিলেটের ২৩টি বাগানের চা শ্রমিকরা

Comments

The Daily Star  | English
Depositors money in merged banks

Depositors’ money in merged banks will remain completely safe: BB

Accountholders of merged banks will be able to maintain their respective accounts as before

3h ago