শীর্ষ খবর

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ব্রিফিংয়ে ভুল, দুঃখ প্রকাশ

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের আজকের (বৃহস্পতিবার) ব্রিফিংয়ে ভুলক্রমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক প্রতিটি উপজেলায় দুটি করে কোভিড-১৯ পরীক্ষার নমুনা সংগ্রহের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের আজকের (বৃহস্পতিবার) ব্রিফিংয়ে ভুলক্রমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক প্রতিটি উপজেলায় দুটি করে কোভিড-১৯ পরীক্ষার নমুনা সংগ্রহের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

রাতে এক জরুরি প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে একথা জানানো হয়। এজন্য স্বাস্থ্য অধিদপ্তর আন্তরিকভাবে দুঃখিত বলে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, প্রকৃতপক্ষে গতকাল প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে বিভিন্ন চিকিৎসক, পেশাজীবী সংগঠন এবং স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে একটি সভায় দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে কোভিড-১৯ পরীক্ষার নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করার পরামর্শ দেওয়া হয়। এর ফলে দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ সম্পর্কে অধিকতর সঠিক ধারণা সৃষ্টি সম্ভব হবে বলে মত প্রকাশ করা হয়।

এর পরিপ্রেক্ষিতে নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষার সংখ্যা বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত ও কার্যক্রম গৃহীত হয় বলে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে।

এর আগে দুপুরে করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) বিষয়ক নিয়মিত ব্রিফিং থেকে জানানো হয়েছিল, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা করোনা শনাক্তের পরীক্ষা বাড়াতে প্রতি উপজেলা থেকে দুইজনের নমুনা সংগ্রহের নির্দেশ দিয়েছেন।

পরে সন্ধ্যায় করোনাভাইরাসের বিস্তার শনাক্ত করতে সরকারের তথ্য প্রযুক্তি বিভাগের ডাটা এনালিটিক্স সিস্টেমের ভার্চুয়াল উদ্বোধন অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ জানান, এ ধরনের কোনো নির্দেশ প্রধানমন্ত্রী দেননি।

আবুল কালাম আজাদ বলেন, 'আজকে অধিদপ্তরের মিডিয়া ব্রিফিং এ আমাদের সহকর্মী একটু ভুল করেছেন। সেখানে তিনি বলেছেন, প্রতিটি উপজেলা থেকে দুটি করে নমুনা পরীক্ষা আজকের মধ্যে করতে হবে বলে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছেন, আসলে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এধরনের কোনো নির্দেশ দেননি। এধরনের অবৈজ্ঞানিক নির্দেশনা তিনি বা আমরা কেউই দেব না'।

 তিনি এসময় আরো জানান, 'যাদের নমুনা সংগ্রহ করা দরকার আমরা তাদেরটাই সংগ্রহ করব।'

তিনি জানান, 'বুধবার মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে, মূখ্য সচিবের সভাপতিত্বে একটি সভা হয়েছিল। সেখানে আমরা সবাই একমত হয়েছি যে করোনা শনাক্তের পরীক্ষার সংখ্যা বাড়াতে হবে।'

তিনি আরো বলেন, ঢাকায় বর্তমানে ৯টি কেন্দ্রে করোনা পরীক্ষা হচ্ছে। এছাড়াও ঢাকার বাইরে বেশ কয়েকটি বিভাগীয় শহরে এরই মধ্যে পরীক্ষা শুরু হয়েছে। এছাড়া এপ্রিলের ৭ তারিখের মধ্যে সব বিভাগীয় শহরে পরীক্ষার ব্যবস্থা হবে এবং এপ্রিল মাসের মধ্যে আমরা ২৮টি কেন্দ্রে এমন পরীক্ষার ব্যবস্থা করব।

তিনি বলেন, অধিদপ্তরে আলোচনার সময় তিনি বলেছিলেন, 'প্রতিটি উপজেলা থেকে গড়ে যদি দুটি করে নমুনা আসে তাহলেই এক হাজার নমুনা হয়।' এই কথার পরিপ্রেক্ষিতে ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে বলেও মন্তব্য করেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক।

তিনি জানান, তারা সারাদেশ থেকে পরীক্ষার সংখ্যা বৃদ্ধি করছেন। এই বৃদ্ধির ধারা অব্যাহত রাখার কথাও বলেন তিনি। বলেন, প্রচুর পরীক্ষা করলে বাংলাদেশের প্রকৃত করোনা পরিস্থিতি বোঝা সম্ভব হবে।

 

Comments