সঠিক সময়েই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ হবে, প্রত্যাশা কামিন্সের

সব কিছু ঠিক থাকলে চলতি বছরের অক্টোবরে আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হবে অস্ট্রেলিয়ায়। কিন্তু করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে ঠিক সময়ে এ আসর আয়োজন নিয়ে শঙ্কা থেকেই যাচ্ছে। তবে বিশ্বকাপ শুরু হতে এখনও ছয় মাসের বেশি সময় থাকায় আশার আলো দেখছেন অসি পেসার প্যাট কামিন্স। তার বিশ্বাস, পরিস্থিতি দ্রুতই বদলে যাবে।
ছবি: এএফপি

সব কিছু ঠিক থাকলে চলতি বছরের অক্টোবরে আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হবে অস্ট্রেলিয়ায়। কিন্তু করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে ঠিক সময়ে এ আসর আয়োজন নিয়ে শঙ্কা থেকেই যাচ্ছে। তবে বিশ্বকাপ শুরু হতে এখনও ছয় মাসের বেশি সময় থাকায় আশার আলো দেখছেন অসি পেসার প্যাট কামিন্স। তার বিশ্বাস, পরিস্থিতি দ্রুতই বদলে যাবে।

বৈশ্বিক টুর্নামেন্টগুলোর মধ্যে এই একটি টুর্নামেন্টের শিরোপা ছুঁয়ে দেখেনি অসিরা। অন্যথায় ক্রিকেট বিশ্বের সবচেয়ে সফল দল তারাই। ঘরের মাঠে এবার সে খরা কাটাতে চায় দলটি। নিজেদের মাঠে খেলবে বলেই প্রত্যাশাটাও বেশি তাদের। কিন্তু করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট জটিলতাই অনেক হিসেব বদলে দিচ্ছে। এরমধ্যেই তারা নিউজিল্যান্ড সফর বাতিল করেছে। শঙ্কায় রয়েছে বাংলাদেশের বিপক্ষে দুই টেস্ট সিরিজও।

এ সকল দ্বিপাক্ষিক সিরিজ না হলেও অক্টোবরে নির্ধারিত সময়েই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হবে বলে আশাবাদী কামিন্স, 'গত দুই তিন বছর ধরে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ নিয়েই আমরা বেশি কথা বলেছি। ঘরের মাঠে বিশ্বকাপ খেলার দারুণ সুযোগ আমাদের। ২০১৫ সালে ওয়ানডে বিশ্বকাপ আমার ক্যারিয়ার হাইলাইট করেছে, যদিও আমি ফাইনাল খেলতে পারিনি। তাই আমি সামনে এগিয়ে যেতে ভালবাসবো। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের মধ্যে এ বছর এ টুর্নামেন্টই সবচেয়ে বড়। আর এ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ দলের অংশ হতে পারা দারুণ কিছু। বিশুদ্ধ পৃথিবীতে এটা সময় মতো হলে খুব খুশী হব।'

তবে কামিন্স যতই আশাবাদী হোন না কেন, করোনাভাইরাসের কারণেই ক্রমেই অবনতি হচ্ছে বিশ্বের। সারা বিশ্বে এখন পর্যন্ত মারা গেছেন অর্ধ লক্ষের বেশি মানুষ। আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ১০ লাখ। অস্ট্রেলিয়াতেও ভয়াবহ অবস্থা। মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৫ হাজার ৩৫০ জন। এরমধ্যে মারা গিয়েছেন ২৮ জন।

Comments

The Daily Star  | English

Sajek accident: Death toll rises to 9

The death toll in the truck accident in Rangamati's Sajek increased to nine tonight

1h ago