পুলিশ ভাইদের জন্য মাশরাফির প্রার্থনা

একটি চেয়ারে বসে সারাদিনের কর্মক্লান্ত শরীর যেন নুইয়ে এসেছে। কদিন আগেই একজন পুলিশের এমনই একটি ছবি সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়। যে ছবি বর্ণনা দেয় করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের সময় কতোটা পরিশ্রম করছে বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনী। সেই ছবিটি নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে দিয়ে তাদের জন্য সৃষ্টিকর্তার কাছে প্রার্থনা করেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সবচেয়ে সফল অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। আর তাদের দিকে তাকিয়ে হলেও প্রত্যেক ব্যক্তিকে সামাজিক দূরত্ব মেনে চলার আহ্বানও জানিয়েছেন তিনি।

একটি চেয়ারে বসে সারাদিনের কর্মক্লান্ত শরীর যেন নুইয়ে এসেছে। কদিন আগেই একজন পুলিশের এমনই একটি ছবি সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়। যে ছবি বর্ণনা দেয় করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের সময় কতোটা পরিশ্রম করছে বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনী। সেই ছবিটি নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে দিয়ে তাদের জন্য সৃষ্টিকর্তার কাছে প্রার্থনা করেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সবচেয়ে সফল অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। আর তাদের দিকে তাকিয়ে হলেও প্রত্যেক ব্যক্তিকে সামাজিক দূরত্ব মেনে চলার আহ্বানও জানিয়েছেন তিনি।

নিজের ফেসবুকে পেজে মাশরাফি লিখেছেন, 'করোনাভাইরাস দেশে আঘাত আনার সাথে সাথে তাদের কাজ যেন বেড়ে গেছে অনেক বেশি। দিন রাত এক করে কাজ করে যাচ্ছে। কোনও প্রকার অভিযোগ ছাড়া। হ্যাঁ, কথা বলছি আমাদের পুলিশ ভাইদের। তারা সত্যই অনেক অক্লান্ত পরিশ্রম করছে, শুধু মাত্র আমাদেরকে করোনা নামক মহামারি থেকে সুরক্ষা রাখতে। সারাটা দিন আমাদের পিছনে ছুটতে ছুটতে যখন শরীরটা আর সায় দেয়না তখন মশার কামড়, গরম সবকিছুর কাছে হয়তো হার মেনে যায়। কোনোরকম একটা বসার কিছু পেলে শরীরটা ১৫-৩০ মিনিটের জন্য ছেড়ে দেয়, কারণ তারপর যে আবার যেতে হবে টহলে।'

'সবাইকে সর্তক করতে গিয়ে তারা ভুলেই যায় যে, তাদেরও একটা বাসা আছে, পরিবার আছে। আমরা কি পারি না এই পুলিশ, ডাক্তারদের দিকে তাকিয়ে হলেও নিজেদের একটু নিয়ন্ত্রিত করতে। আমরা যদি শুধু আমাদের কথা চিন্তা করে বাসায় থাকতাম তাহলে হয়তো এই মানুষগুলোর এতোটা কষ্ট হতো না। মহান আল্লাহ্‌ তাআলার কাছে দোয়া করি যেন এই মানুষ গুলো ভালো থাকে। সবাই ঘরে থাকুন, সুস্থ থাকুন, অন্যকে সুস্থ থাকতে সাহায্য করুন।' -যোগ করে আরও লিখেছেন মাশরাফি।

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের শুরু থেকেই সামাজিক মাধ্যমে নানা ধরনের সতর্কতামূলক পোস্ট দিয়েছেন। এমন কি লাইভে এসেও সতর্ক করেছেন। শুধু সতর্ক করেই নয়, সাধারণ মানুষদের সাহায্যেও এগিয়ে এসেছেন ব্যক্তিগত তহবিল থেকে। প্রায় ১২০০ পরিবারে মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছেন। নড়াইল সদর হাসপাতাল ও লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত ডাক্তার ও নার্সদের জন্য করোনাভাইরাস থেকে সুরক্ষা পেতে পিপিই সরবরাহ করেছেন। নড়াইল সদর হাসপাতালে চালু করেছেন জীবাণুনাশক কক্ষ। ভ্রাম্যমাণ চিকিৎসা সেবাও চালু করেছেন। ফলে ঘরে বসেই ডাক্তারের সেবা পাচ্ছে নড়াইলবাসী। নড়াইল কারাগারের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও সকল আসামিদের জন্য সাবান, মাস্ক, গ্লাভস ও সেনিটাইজারও দিয়েছেন তিনি। 

Comments

The Daily Star  | English

Iran attacks: Israel may not act rashly

US says Israel's response would be unnecessary; attack likely to dispel murmurs in US Congress about curbing weapons supplies to Israel because of Gaza

2h ago