করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসায় চট্টগ্রামে দেশের প্রথম ফিল্ড হাসপাতাল

করোনা আক্রান্তদের সর্বোচ্চ চিকিৎসা প্রদানে চট্টগ্রামে চালু হচ্ছে দেশের প্রথম ৬০ শয্যার ফিল্ড হাসপাতাল। সীতাকুন্ডের ফৌজদারহাট এলাকায় ২১ এপ্রিল থেকে এই হাসপাতাল চালু হবে।
করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসায় চট্টগ্রামের ফিল্ড হাসাপাতাল। ছবি: স্টার

করোনা আক্রান্তদের সর্বোচ্চ চিকিৎসা প্রদানে চট্টগ্রামে চালু হচ্ছে দেশের প্রথম ৬০ শয্যার ফিল্ড হাসপাতাল। সীতাকুন্ডের ফৌজদারহাট এলাকায় ২১ এপ্রিল থেকে এই হাসপাতাল চালু হবে।

নাভানা গ্রুপের দেওয়া একটি দ্বিতল ভবনের ৬ হাজার ৫০০ বর্গফুট জায়গা নিয়ে গড়ে উঠেছে এই হাসপাতালটি। এর জন্য ইতোমধ্যে ১০ টি আইসিইউ বেড ও চারটি ভেন্টিলেটর সংগ্রহ করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এ ছাড়া, করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য চিকিৎসক, নার্স ও স্বেচ্ছাসেবক মিলিয়ে মোট ৩৫ জনের একটি দল গঠন করা হয়েছে।

এখানে স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে কাজ করতে প্রায় ২৮৭ জন তরুণ আবেদন করলেও ২৫ জনকে নির্বাচিত করেছে কর্তৃপক্ষ। তাদেরকে করোনা রোগীর যত্ন বিষয়ক প্রশিক্ষণও দেওয়া হয়েছে।

আমেরিকান ইউনিভার্সিটির সহকারী অধ্যাপক ডা. বিদ্যুৎ বড়ুয়া ও নাভানা গ্রুপের ভাইস-চেয়ারম্যান সাজেদুল ইসলাম এ হাসপাতাল নির্মাণের উদ্যোগ নেন।

ডা. বিদ্যুৎ বড়ুয়া দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘এমন সময়ে আমরা এ হাসপাতালটি স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে চালু করতে যাচ্ছি, যখন সারা দেশে করোনা রোগীরা চিকিৎসা নিয়ে নানা ধরনের দুর্ভোগের মুখোমুখি হচ্ছেন। আমরা প্রমাণ করতে চাই করোনা রোগীরা অবহেলার পাত্র নয়। নিজেরা নিরাপদে থেকে তাদের সেবা দেওয়া যায়। আমাদের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। ২১ এপ্রিল থেকে আমাদের কার্যক্রম চালু হবে।’

হাসপাতালে স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে কাজ করতে নির্বাচিত হওয়া সাজিদ কবির সাজি বলেন, ‘মানুষের সেবা করার এমন সুযোগ আর আসবে না। যখন থেকে এ হাসপাতালের উদ্যোগের কথা শুনেছি, তখন থেকেই কাজ করতে আগ্রহী ছিলাম। করোনা রোগীরা আমাদেরই স্বজন। তাদেরকে অবহেলায় আমরা মরতে দিতে পারি না। এ সময় তাদের পাশে থেকে সাহস যোগাতে হবে। কোন সংকটই দীর্ঘস্থায়ী না। আমরা অবশ্যই এ সংকট কাটিয়ে উঠতে পারব।’

Comments