সমগীতের গানে প্রশ্ন: করোনাকালে গৃহহীনরা ঘরে থাকবেন কীভাবে?

সমগীতের গানে উঠে এসেছে করোনা মহামারির সময়ে গৃহহীনদের অনিরাপদ অবস্থানের কথা। এই ভাইরাস থেকে বাঁচার জন্য বারবার যখন বলা হচ্ছে ‘ঘরে থাকুন’, তখন সমগীত তাদের গানে প্রশ্ন তুলেছে যার ঘর নাই সে কোন ঘরে থাকবে?
করোনা কালের গান ‘ছুঁয়ে দিব ছুঁয়ে দিব’র অ্যালবাম কাভার। ছবি: সংগৃহীত

সমগীতের গানে উঠে এসেছে করোনা মহামারির সময়ে গৃহহীনদের অনিরাপদ অবস্থানের কথা। এই ভাইরাস থেকে বাঁচার জন্য বারবার যখন বলা হচ্ছে ‘ঘরে থাকুন’, তখন সমগীত তাদের গানে প্রশ্ন তুলেছে যার ঘর নাই সে কোন ঘরে থাকবে?

পথশিশু ও গৃহহীন মানুষদের নিয়ে লেখা এই গানের শুরুর কথাগুলো হচ্ছে-

‘ঘরে থাকো, ঘরে থাকো, ঘরটা যে কই?

এখনো সে পথে পথে করে টই টই!

কবে কোন ভাগাড়ে সে জন্মেছিলো

কে যে এনে ফুটপাতে ফেলে-ঠেলে দিলো!

তার ঘর ফুটওভার, ইস্টিশানে

ফিরবে সে কোন ঘরে, ঘরের কী মানে?

গানের প্রসঙ্গে গানটির গীতিকার অমল আকাশ বলেন, ‘আমার অসুস্থ ভাইকে নিয়ে হাসপাতালে দৌড়াদৌড়ি করার সময় চোখে পড়ল এবং প্রশ্ন জাগল, যারা রাস্তাঘাটে বা ফুটপাথে থাকত তারা এই করোনার সময়ে কোথায় গেছে? স্টেশনের প্লাটফর্মে যারা থাকে তারা রাতের বেলা কোথায় যায়? তাদের তো কোনো ঘরই নাই।’

বস্তির জরাজীর্ণ ঘরে থাকা মানুষদের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘এই সব ঘরে থেকে কোয়ারেন্টিন সম্ভব কি? সবাইকে নিরাপদ দূরত্বে থাকার জন্য বলা হলেও এই সব মানুষের থাকার জন্য বিশেষ কোনো ব্যবস্থা সমাজ বা রাষ্ট্রের দিক থেকে নেই।’

আপদকালীন এই সময়ে দেশের মানুষের সার্বিক নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে এসব গৃহহীন বা ঘিঞ্জি বস্তিতে থাকা মানুষদের জন্য অস্থায়ী আশ্রয়কেন্দ্র করা যেত বলে মন্তব্য করেন তিনি। তার পরামর্শ, বন্ধ থাকা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বা হোটেলগুলোকে আশ্রয়কেন্দ্র বানানো যেতে পারত।

গতকাল রোববার ‘করোনা কালের গান’ শিরোনামে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক ও ইউটিউবে গানটি প্রকাশ করে ‘সমগীত’। গানটির গীতিকার অমল আকাশ, সুরকার অমল আকাশ ও অর্ক সুমন এবং গানটিতে কণ্ঠ দিয়েছেন ও সংগীতায়োজন করেছেন অর্ক সুমন।

Comments

The Daily Star  | English

Hasina, Jaishankar for advancing India-Bangladesh partnership

Prime Minister Sheikh Hasina today called for sustained dialogues between Bangladesh and India to exchange ideas and experiences to help overcome the challenges in their journey towards economic development

1h ago