আন্তর্জাতিক

করোনাভাইরাস মানুষের রক্তে আক্রমণ করে, অকেজো করে দেয় একাধিক অঙ্গ: গবেষণা

করোনাভাইরাস শুধু শ্বাসযন্ত্র বা ফুসফুসেই নয়, এটি মানবদেহের পুরো রক্ত সংবহন তন্ত্রে আক্রমণ করে, যার কারণে একাধিক অঙ্গ অকার্যকর হয়ে পড়ে। গত শুক্রবার চিকিৎসা ও স্বাস্থ্য সাময়িকী ‘দ্য ল্যানসেট’-এ প্রকাশিত এক গবেষণা প্রতিবেদনে এ কথা বলা হয়েছে বলে জানিয়েছে সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট।
coronavirus.jpg
ছবি: সংগৃহীত

করোনাভাইরাস শুধু শ্বাসযন্ত্র বা ফুসফুসেই নয়, এটি মানবদেহের পুরো রক্ত সংবহন তন্ত্রে আক্রমণ করে, যার কারণে একাধিক অঙ্গ অকার্যকর হয়ে পড়ে। গত শুক্রবার চিকিৎসা ও স্বাস্থ্য সাময়িকী ‘দ্য ল্যানসেট’-এ প্রকাশিত এক গবেষণা প্রতিবেদনে এ কথা বলা হয়েছে বলে জানিয়েছে সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট।

গবেষণার নেতৃত্বে থাকা জুরিখ ইউনিভার্সিটি হসপিটালের অধ্যাপক ফ্রাঙ্ক রুশিৎজকা বলেন, ‘কেবল ফুসফুসেই নয়, ভাইরাসটি ধমনী, শিরা, উপশিরা সবখানেই আক্রমণ করে।’

তিনি জানান, গবেষকরা দেখেছেন যে, করোনার আক্রমণের ফলাফল নিউমোনিয়ার চেয়ে অনেক বেশি মারাত্মক এবং ভয়াবহ।

রক্ত সংবহন তন্ত্রের ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র রক্তনালীর মধ্য দিয়ে রক্ত সঞ্চালনের কথা উল্লেখ করে ফ্রাঙ্ক রুশিৎজকা বলেন, ‘করোনাভাইরাস এন্ডোথেলিয়ামে (কোষের স্তর) প্রবেশ করে, যা রক্তনালীর প্রতিরক্ষা রেখা। এভাবেই এটি আমাদের শারীরিক প্রতিরোধ ক্ষমতাকে কমিয়ে দেয় এবং মাইক্রোসার্কুলেশনে সমস্যার সৃষ্টি করে।’

ভাইরাসটি এরপর দেহের বিভিন্ন অঙ্গ-প্রত্যঙ্গে রক্ত সরবরাহ কমিয়ে দিতে থাকে এবং এক পর্যায়ে রক্ত সঞ্চালন পুরোপুরি বন্ধ করে দেয় বলে জানান জুরিখ ইউনিভার্সিটি হসপিটালের হার্ট সেন্টার এবং কার্ডিওলজি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ফ্রাঙ্ক রুশিৎজকা।

তিনি বলেন, ‘এ কারণেই আমরা দেখি যে, করোনা আক্রান্ত রোগীদের হৃদপিণ্ড, যকৃত ও অন্ত্রসহ প্রায় সব অঙ্গেরই সমস্যা দেখা দেয়।’

‘এটি এভাবেও ব্যাখ্যা করা যেতে পারে, যারা ধূমপায়ী এবং যাদের এন্ডোথেলিয়াল ফাংশনের পূর্ব দুর্বলতা রয়েছে অথবা রক্তনালী অপুষ্ট, তারা করোনাভাইরাসের কাছে সবচেয়ে সহজ শিকার,’ বলেন তিনি।

এ ছাড়াও, উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিস, স্থূলতা ও কার্ডিওভাসকুলার রোগে ভুগতে থাকা ব্যক্তিরাও দুর্ভাগ্যক্রমে সর্বোচ্চ ঝুঁকিতে আছেন বলেও জানান তিনি।

গবেষণা প্রতিবেদনটিতে বলা হয়েছে, করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত তিন জন রোগীর ময়নাতদন্তে দেখা গেছে, তাদের পুরো রক্ত সংবহন তন্ত্র ‘ভাইরাসে পরিপূর্ণ’ ছিল এবং এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট শরীরের প্রায় সব গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ তাদের কার্যকারিতা হারিয়ে ফেলেছিল।

Comments

The Daily Star  | English

Two Bangladeshi fishermen injured in BGP firing in Teknaf

At a time when Bangladesh is providing shelter to members of Myanmar Border Guard Police (BGP) fleeing the conflict in their country, the force opened fire on a Bangladeshi fishing boat in Naf river of Teknaf upazila in Cox’s Bazar, leaving two fishermen injured

14m ago