ভক্তদের জন্য খেলা ফেরাতে ক্রিকেটাররা যেকোনো কিছু করবে: স্টোকস

২৮ বছর বয়সী ক্রিকেটার জানিয়েছেন, স্টেডিয়ামে ভক্ত-সমর্থকরা না থাকলেও খেলোয়াড়রা জেতার জন্যই মাঠে নামবে।
ben stokes
ছবি: এএফপি

দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে খেলা হলে ক্রিকেট ম্যাচে প্রতিযোগিতামূলক মনোভাব হ্রাস পাবে, এমনটা মানতে রাজি নন বেন স্টোকস। কোভিড-১৯ রোগের ফলে সৃষ্ট সংকটের মধ্যেই ভক্তদের কথা ভেবে টেলিভিশন পর্দায় ক্রিকেট ফেরাতে খেলোয়াড়রা যেকোনো কিছু করতে তৈরি থাকবে বলেও মন্তব্য করেছেন ইংল্যান্ডের তারকা অলরাউন্ডার।

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে গোটা বিশ্ব স্থবির। বন্ধ হয়ে আছে সব ধরনের ক্রিকেট। শুরুতে চলতি মাসের ২৯ তারিখ পর্যন্ত ইংল্যান্ডে পেশাদার ক্রিকেট স্থগিত করা হয়েছিল। কিন্তু সেখানে পরিস্থিতির উন্নতির বদলে অবনতি হওয়ায় স্থগিতাদেশের সময়সীমা বাড়ানো হয়েছে আগামী ১ জুলাই পর্যন্ত।

আগামী জুনে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ঘরের মাঠে টেস্ট সিরিজ খেলার সূচি ছিল ইংলিশদের। কিন্তু উদ্বেগজনক পরিস্থিতির কারণে তা অনির্দিষ্টকালের জন্য পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। তবে ইংল্যান্ডের গ্রীষ্মকালীন মৌসুমের পরের দিকে দর্শকবিহীন মাঠে সিরিজের তিনটি টেস্ট অনুষ্ঠিত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

এমন পরিবেশে খেলা হলে ক্রিকেট তার প্রতিযোগিতামূলক দিকটি হারাতে পারে কি-না, জানতে চাওয়া হয়েছিল স্টোকসের কাছে। উত্তরে ২৮ বছর বয়সী ক্রিকেটার জানিয়েছেন, স্টেডিয়ামে ভক্ত-সমর্থকরা না থাকলেও খেলোয়াড়রা জেতার জন্যই মাঠে নামবে।

বুধবার ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসি রেডিও ফাইভের লাইভ আয়োজনে তিনি বলেছেন, ‘একবার এটা ভেবে দেখুন। আমরা আমাদের দেশের প্রতিনিধিত্ব করতে নামছি, আমরা আমাদের বুকে (জার্সিতে) তিনটি সিংহ আছে এবং সামনে একটি ম্যাচ রয়েছে, যেখানে আমাদের জেতার কথা। সুতরাং এটি জনশূন্য অবস্থায় হোক কিংবা দর্শকদের সামনে, যেভাবে আমরা খেলে অভ্যস্ত, আমার মনে হয় না যে এটি প্রতিযোগিতামূলক দিকটিকে দূরে সরিয়ে দেবে।’

‘আমরা বুঝতে পারছি যে পুরো চিত্রটা একদম ভিন্ন হবে। আন্তর্জাতিক ম্যাচগুলো আমরা সাধারণত যে পরিবেশে খেলি, এটা সেরকম হবে না বা (দর্শকদের) উল্লাসও থাকবে না।’

‘টেলিভিশন পর্দায় এবং লোকেরা যেন অনুসরণ করতে ও দেখতে পারে সেজন্য, ক্রিকেট ফেরাতে আমরা যেকোনো কিছু করব। এর অর্থ যদি হয় আপনাকে দর্শকশূন্য অবস্থায় খেলতে হবে, তবে তা-ই হোক।’

তবে দর্শক নিয়ে হোক বা দর্শক ছাড়া, অচলাবস্থা কাটিয়ে ক্রিকেট আবার কবে মাঠে ফিরবে তা নিয়ে সন্দিহান ইংল্যান্ডের হয়ে ২০১৯ বিশ্বকাপ জেতা স্টোকস, ‘আমরা এখনও শতভাগ নিশ্চিত না এটা কবে ঘটতে যাচ্ছে।’

Comments

The Daily Star  | English

In a first, diesel to be pumped thru deep sea pipeline

After a long wait, diesel transportation is going to start through the first-ever undersea fuel pipeline

52m ago