রংপুর, বগুড়া ও সিলেটে সুস্থ হলেন করোনা আক্রান্ত ১৯ জন

রংপুর বিভাগের বিভিন্ন জেলার করোনা আক্রান্ত ৯ জন, বগুড়ার পাঁচ জন ও সিলেটের পাঁচ জনের সুস্থ হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। আক্রান্ত ওই রোগীদের সম্প্রতি করোনা পরীক্ষার ফল নেগেটিভ আসায়, তাদের সুস্থ ঘোষণা করে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে।
বগুড়া মোহাম্মাদ আলী হাসপাতালের আইসোলেশন কেন্দ্র থেকে করোনামুক্ত হয়ে বাড়ি ফেরে পাঁচ জন। ছবি: সংগৃহীত

রংপুর বিভাগের বিভিন্ন জেলার করোনা আক্রান্ত ৯ জন, বগুড়ার পাঁচ জন ও সিলেটের পাঁচ জনের সুস্থ হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। আক্রান্ত ওই রোগীদের সম্প্রতি করোনা পরীক্ষার ফল নেগেটিভ আসায়, তাদের সুস্থ ঘোষণা করে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে।

স্থানীয় স্বাস্থ্য বিভাগের বরাত দিয়ে দ্য ডেইলি স্টারের সংবাদদাতারা এইসব তথ্য পাঠিয়েছেন।

রংপুর

রংপুর বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় বিভিন্ন জেলায় সুস্থ হয়ে বাড়িতে ফিরেছেন ৯ করোনা আক্রান্ত। তাদের মধ্যে রয়েছেন, দিনাজপুরের চার জন, কুড়িগ্রামের দুই জন, নীলফামারীর একজন, ঠাকুরগাঁওয়ের একজন ও রংপুরের একজন।

আজ বুধবার রংপুরের ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতাল থেকে ঠাকুরগাঁও পৌরসভা এলাকার এক নারী ও মিঠাপুকুর উপজেলার এক স্বাস্থ্য কর্মীকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে। আর, বাকি সাত জনকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে গতকাল।

এই অঞ্চলে এখন পর্যন্ত করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ৪৩ জন।

বগুড়া

আজ বুধবার দুপুরে বগুড়ার মোহাম্মাদ আলী হাসপাতাল থেকে পাঁচ জন করোনা আক্রান্ত সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। সম্প্রতি, তাদের দুইবার নমুনা পরীক্ষার প্রতিবেদন নেগেটিভ আসায়, তাদের ছুটি দেওয়া হয়েছে বলে জানান হাসপাতালের আবাসিক চিকিত্সক শফিক আমিন কাজল।

তিনি জানান, সুস্থ হওয়া পাঁচ জনের মধ্যে ছিলেন ২৫ বছর বয়সী নারায়ণগঞ্জের একটি বেসরকারি ক্লিনিকের কর্মী, ৪৭ বছরের ঢাকাফেরত একজন নারী, ২৮ বছরের এক পোশাককর্মী, ২৮ বছর বয়সী এক কলেজ শিক্ষক ও ৪০ বছরের এক চাকরিজীবী।

বগুড়ার সিভিল সার্জন গওসুল আজিম চৌধুরী জানান, এ পর্যন্ত বগুড়ায় করোনায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ২৫ জন এবং করোনা আক্রান্ত কেউ মারা যাননি।

সিলেট

সিলেটের করোনা আইসোলেশন সেন্টার শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতাল থেকে সুস্থ হয়েছেন করোনা আক্রান্ত এক শিক্ষানবিশ চিকিৎসকসহ পাঁচ জন।

আজ দুপুর ১টার দিকে তাদেরকে হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দেওয়া  হয় বলে নিশ্চিত করেছেন সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা. মো. ইউনুছুর রহমান।

এ সময় হাসপাতাল প্রাঙ্গণে তাদেরকে গোলাপ ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান ডা. ইউনুছুর রহমান ও সিলেটের সিভিল সার্জন ডা. প্রেমানন্দ মণ্ডল ও শামসুদ্দিন হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. সুশান্ত কুমার মহাপাত্রসহ হাসপাতালের অন্যান্য চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীরা।

ডা. মো. ইউনুছুর রহমান বলেন, 'ওসমানী মেডিকেল কলেজের শিক্ষানবিশ চিকিৎসকদের মধ্যে প্রথম আক্রান্ত একজন আজ সুস্থ হয়ে ছাড়পত্র পেয়েছেন। বাকিরাও সু্স্থ হয়ে উঠবেন বলে আমরা আশাবাদী।'

হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. সুশান্ত কুমার মহাপাত্র জানান, এই মুহূর্তে হাসপাতালে আরও ১৪ জন কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগী চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তাদের কারো অবস্থা আশঙ্কাজনক নয় বলেও জানান তিনি।

এর আগে, গত ২৭ এপ্রিল আইসোলেশন সেন্টার থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরেন সুনামগঞ্জের প্রথম আক্রান্ত এক নারী এবং ঢাকায় আক্রান্ত হয়ে সুনামগঞ্জে আসা এক ব্যক্তি।

Comments

The Daily Star  | English

Inadequate Fire Safety Measures: 3 out of 4 city markets risky

Three in four markets and shopping arcades in Dhaka city lack proper fire safety measures, according to a Fire Service and Civil Defence inspection report.

7h ago