নারায়ণগঞ্জে সেপটিক ট্যাংক বিস্ফোরণে নিহত ৩

নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলায় একটি বহুতল ভবনের সেপটিক ট্যাংক বিস্ফোরণে দুই শিশুসহ তিন জন নিহত হয়েছেন। দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন নিহত শিশুদের মাসহ আরও ছয় জন।
dead body
স্টার অনলাইন গ্রাফিক্স

নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলায় একটি বহুতল ভবনের সেপটিক ট্যাংক বিস্ফোরণে দুই শিশুসহ তিন জন নিহত হয়েছেন। দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন নিহত শিশুদের মাসহ আরও ছয় জন।

আজ শুক্রবার সকালে উপজেলার দিঘিরপাড় এলাকায় রফিকুল ইসলামের পাঁচ তলা বাড়ির নিচ তলায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। বিস্ফোরণে পাশের একটি চার তলা ভবন ও একটি টিনশেড বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

নিহত হয়েছেন— দিঘিরপাড়া এলাকার খোরশেদ আলমের ছেলে মাসনুন (৮) ও জিসান (১২) এবং লাবনী আক্তার (২৮)। লাবনী ওই বাড়ির পাশে টিনশেড বাড়িতে বসবাস করতেন।

এ ছাড়া, নিহত দুই শিশুর মা লামিয়া (৩০), প্রতিবেশী তামান্না (২২), মো. রুবেল শেখ (২০), মো. শরীফ (৪৫), মো. লেকমত শেখ (৫৫) ও মিয়া ভাই (৪৫)।

নারায়ণগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের সহকারী উপপরিচালক আব্দুল্লাহ আল আরেফিন দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘সকাল ৬টার দিকে একটি পাঁচ তলা ভবনের নিচ তলায় সেপটিক ট্যাংক বিস্ফোরণ হয়। এটি ঘরের ভেতরে  হওয়ায় দেয়াল ভেঙে পড়ে। দেয়াল চাপায় দুই শিশুর মৃত্যু হয়। এতে তাদের মা লামিয়া আহত হয়েছেন। ট্যাংক বিস্ফোরণে আরও কয়েকটি ঘরের দেয়াল ভেঙে পড়ে। তাতে আরও পাঁচ ভাড়াটিয়া আহত হন। তাদের বন্দর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।’

‘এ ছাড়া বিস্ফোরণে পাশের একটি চার তলা ভবন ও একটি টিনের ঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। দেয়াল ভেঙে টিনশেড ঘরের ওপর পড়লে লাবনী গুরুতর আহত হন। তিনি সন্তান সম্ভবা ছিলেন। তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন’— বলেন আব্দুল্লাহ আল আরেফিন।

প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে,  সেপটিক ট্যাংক নিয়মিত পরিষ্কার না করায় জমে থাকা গ্যাস থেকে এই বিস্ফোরণ হয়েছে।

বন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘এ বিষয়ে তদন্ত চলছে। তদন্ত শেষ আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

Comments

The Daily Star  | English

More rains threaten to worsen situation

More than one million marooned; BMW predict more heavy rainfall in 72 hours; water slightly recedes in main rivers

1h ago