কেন্দ্রীয় চুক্তিতে আমির-ওয়াহাব-হাসানকে না রাখার সিদ্ধান্ত সঠিক: মিসবাহ

মোহাম্মদ আমির, ওয়াহাব রিয়াজ ও হাসান আলিকে চুক্তিতে না রাখার সিদ্ধান্তের প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন দলটির প্রধান কোচ ও প্রধান নির্বাচক মিসবাহ উল হক।
amir and wahab and hasan
(বাঁ থেকে) হাসান আলি, মোহাম্মদ আমির ও ওয়াহাব রিয়াজ। ছবি: এএফপি (সম্পদিত)

অভিজ্ঞ পেসারদের নতুন কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ দেওয়ায় ভক্ত ও বিশ্লেষকদের সমালোচনার মুখে পড়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। তবে মোহাম্মদ আমির, ওয়াহাব রিয়াজ ও হাসান আলিকে চুক্তিতে না রাখার সিদ্ধান্তের প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন দলটির প্রধান কোচ ও প্রধান নির্বাচক মিসবাহ উল হক।

বুধবার ২০২০-২১ মৌসুমের জন্য কেন্দ্রীয় চুক্তিতে অন্তর্ভুক্ত ক্রিকেটারদের তালিকা প্রকাশ করে পিসিবি। নতুন যুক্ত হওয়া ইমার্জিং ক্যাটাগরিসহ মোট চারটি ক্যাটাগরিতে রাখা হয়েছে ২১ জন খেলোয়াড়কে। এই চুক্তি কার্যকর হবে আগামী ১ জুলাই থেকে।

গেল বছর টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসর নেন বাঁহাতি পেসার আমির। আর অনির্দিষ্টকালের জন্য এই সংস্করণ থেকে নিজেকে সরিয়ে নেন আরেক বাঁহাতি গতি তারকা ওয়াহাব। মূলত সীমিত ওভারের ক্রিকেটে মনোযোগ দিতেই এমন সিদ্ধান্ত নেন তারা। আর ডানহাতি পেসার হাসানকে গেল বছরের শেষভাগ থেকে লড়াই করতে হচ্ছে চোটের সঙ্গে।

এই তিন অভিজ্ঞ ফাস্ট বোলারের কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে ছিটকে যাওয়াটা বড়সড় চমক হয়েই এসেছে। তবে পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক মিসবাহ মনে করেন, বোর্ড ঠিক কাজটাই করেছে, ‘নির্বাচকরা আমির, হাসান ও ওয়াহাবকে বাদ দেওয়ার মতো কঠোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তবে চোট পাওয়ার কারণে হাসান মৌসুমের বেশিরভাগ সময় বাইরে মাঠের ছিলেন এবং আমির ও ওয়াহাব সাদা বলের ক্রিকেটে মনোনিবেশ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তাই সবকিছু বিবেচনা করে সঠিক পদক্ষেপই নেওয়া হয়েছে।’

সংবাদ সম্মেলনে দলটির প্রধান কোচ আরও জানান, চুক্তি হারালেও গতি তারকারা আছেন নির্বাচকদের বিবেচনাতে, ‘আমির ও ওয়াহাব সিনিয়র ও অভিজ্ঞ বোলার এবং তারা এখনও বিবেচনাতে আছেন। কারণ, আমরা বিশ্বাস করি যে, তারা এখনও পাকিস্তান ক্রিকেট দলে অবদান রাখতে পারেন এবং আমাদের তরুণ ফাস্ট বোলারদের পরামর্শ দিতে পারেন।’

পিসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তিভুক্ত ক্রিকেটারদের তালিকা:

‘এ’ ক্যাটাগরি: আজহার আলি, বাবর আজম, শাহিন শাহ আফ্রিদি।

‘বি’ ক্যাটাগরি: আবিদ আলি, আসাদ শফিক, হারিস সোহেল, মোহাম্মদ আব্বাস, মোহাম্মদ রিজওয়ান, সরফরাজ আহমেদ, শাদাব খান, শান মাসুদ, ইয়াসির শাহ।

‘সি’ ক্যাটাগরি: ফখর জামান, ইফতিখার আহমেদ, ইমাদ ওয়াসিম, ইমাম উল হক, নাসিম শাহ, উসমান শিনওয়ারি।

ইমার্জিং ক্যাটাগরি: হায়দার আলি, হারিস রউফ, মোহাম্মদ হাসনাইন।

Comments

The Daily Star  | English

International Mother Language Day: Languages we may lose soon

Mang Pru Marma, 78, from Kranchipara of Bandarban’s Alikadam upazila, is among the last seven speakers, all of whom are elderly, of Rengmitcha language.

9h ago