প্রিমিয়ার লিগ ফের শুরুর জন্য মরিয়া মরিনহো

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব কিছুটা কমায় সম্প্রতি আবার ফুটবল ফেরানোর কার্যক্রম শুরু করেছে বিভিন্ন দেশের লিগ কর্তৃপক্ষরা। কদিন আগে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগও ফেরার ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। আগামী ১ জুন থেকে ফের শুরু হতে পারে বিশ্বের অন্যতম শীর্ষ এ লিগ। তবে এখনই মাঠে ফেরার জন্য তোর সইছে না টটেনহ্যাম হটস্পার্সের পর্তুগিজ কোচ হোসে মরিনহোর।
José Mourinho
হোসে মরিনহো। ছবি: রয়টার্স

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব কিছুটা কমায় সম্প্রতি আবার ফুটবল ফেরানোর কার্যক্রম শুরু করেছে বিভিন্ন দেশের লিগ কর্তৃপক্ষরা। কদিন আগে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগও ফেরার ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। আগামী ১ জুন থেকে ফের শুরু হতে পারে বিশ্বের অন্যতম শীর্ষ এ লিগ। তবে এখনই মাঠে ফেরার জন্য তোর সইছে না টটেনহ্যাম হটস্পার্সের পর্তুগিজ কোচ হোসে মরিনহোর।

ফুটবল ফেরা নিয়ে পক্ষে বিপক্ষে নানা মত থাকলেও শুরু থেকেই মৌসুম শেষ করার পক্ষেই কথা বলছেন মরিনহো। ফুটবলের স্বার্থে বন্ধ দরজায়, দর্শক শূন্য স্টেডিয়ামে খেলার পক্ষে কথা বলেন তিনি। তার উপর সাম্প্রতিক সময়ে বেশ কিছু লিগ শুরুর ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। জার্মানিতে তো আর দুদিন পরেই মাঠে ফুটবল ফিরছে। এসব দেখে মাঠে ফেরার জন্য রীতিমতো মরিয়া এ পর্তুগিজ কোচ।

প্রিমিয়ার লিগ মৌসুম ফের শুরু করা প্রসঙ্গে গত বুধবার হওয়া লিগ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে ম্যানেজারদের আলোচনা সভায় ছিলেন মরিনহোও। সে আলোচনায় তার অবস্থান জানতে চাইলে তিনি বলেন, 'আমি কোনও বিলম্বের জন্য বলিনি। আমি প্রশিক্ষণ দিতে চাই এবং নিরাপদ হলে দ্রুত প্রিমিয়ার লিগে নামার জন্য মরিয়া হয়ে আছি। বিশেষকরে যখন আমরা অন্যান্য লিগগুলো মাঠে ফেরার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে।'

আইসোলেশনের এ সময়েও অনুশীলন থেমে থাকেনি টটেনহ্যামের খেলোয়াড়দের। অনলাইনে প্রশিক্ষণ দিয়েছেন। এমনকি লকআউনের সময়ে মাঠেও গিয়েছিলেন। এ নিয়ে নানা সমালোচনার মুখেও পড়েছিলেন তিনি। তবে নিজের দল নিয়ে দারুণ গর্বিত মরিনহো, 'আমার খেলোয়াড়রা যেভাবে ফিটনেস বজায় রেখেছেন তাতে আমি অত্যন্ত গর্বিত - তারা দারুণ পেশাদারিত্ব, আবেগ এবং উত্সর্গের পরিচয় দিয়েছে।'

গত ২৮ এপ্রিল থেকে ব্যক্তিগতভাবে অনুশীলন করার অনুমতি পেয়েছেন প্রিমিয়ার লিগের খেলোয়াড়রা। এবার দলীয় অনুশীলনের অপেক্ষায় আছেন মরিনহো, 'আইসোলেশনের এ সময়ে স্কোয়াডের প্রত্যেকে অনলাইন প্রশিক্ষণ সেশনেও অত্যন্ত কঠোর পরিশ্রম করেছে। এখন আবার প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে অনুশীলনের জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে। প্রতিটি খেলোয়াড় তাদের নিজস্ব কাজের ক্ষেত্রে অত্যন্ত প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। এখন আমরা ছোট গ্রুপে কাজ শুরু করার অনুমতির অপেক্ষায় রয়েছি, যা আমি পুরোপুরি সমর্থন করি।'

লিগে অবশ্য মরিনহোর দল টটেনহ্যাম খুব একটা সুবিধাজনক অবস্থানে নেই। ২৯ ম্যাচ শেষে ৪১ পয়েন্ট নিয়ে আছেন অষ্টম স্থানে। শীর্ষে থাকা লিভারপুলের অর্ধেক পয়েন্ট তাদের। অবশ্য লিগ জয়ের আশা তাদের অনেক আগেই শেষ। এখন লক্ষ্য চ্যাম্পিয়ন্স লিগে জায়গা করে নেওয়া। সেখানে তাদের মূল প্রতিদ্বন্দ্বী সাবেক দুই ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ও চেলসি। পাঁচ নম্বরে থাকা ইউনাইটেডের পয়েন্ট ৪৫ ও চারে থাকা চেলসির পয়েন্ট ৪৮। 

Comments