করোনাভাইরাস

মৃত্যু ৩ লাখ ৭ হাজার, আক্রান্ত ৪৫ লাখের বেশি

বিশ্বব্যাপী নতুন করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা প্রতিনিয়তই বাড়ছে। ইতোমধ্যে ৩ লাখের বেশি মানুষ মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় সাড়ে ৪৫ লাখ। এ ছাড়া, সুস্থও হয়েছেন প্রায় সাড়ে ১৬ লাখ মানুষ।
করোনাভাইরাসের সংক্রমণস্থল চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরের বাসিন্দাদের নিউক্লিক অ্যাসিড পরীক্ষা করানোর কাজ করছেন স্বাস্থ্যকর্মীরা। ছবি: রয়টার্স

বিশ্বব্যাপী নতুন করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা প্রতিনিয়তই বাড়ছে। ইতোমধ্যে ৩ লাখের বেশি মানুষ মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় সাড়ে ৪৫ লাখ। এ ছাড়া, সুস্থও হয়েছেন প্রায় সাড়ে ১৬ লাখ মানুষ।

আজ শনিবার জনস হপকিনস ইউনিভার্সিটির করোনাভাইরাস রিসোর্স সেন্টার এ তথ্য জানিয়েছে।

জনস হপকিনস ইউনিভার্সিটির সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৪৫ লাখ ৪২ হাজার ৭৫২ জন এবং মারা গেছেন ৩ লাখ ৭ হাজার ৬৯৬ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন ১৬ লাখ ৩৭ হাজার ৬৮ জন।

করোনাভাইরাসে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃত্যু যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছেন ১৪ লাখ ৪৩ হাজার ১৮৮ জন এবং মারা গেছেন ৮৭ হাজার ৫৫৯ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন ২ লাখ ৫০ হাজার ৭৪৭ জন।

যুক্তরাষ্ট্রের পর সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত রয়েছে রাশিয়ায়। সেখানে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ৬২ হাজার ৮৪৩ জন এবং মারা গেছেন ২ হাজার ৪১৮ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন ৫৮ হাজার ২২৬ জন।

যুক্তরাষ্ট্রের পর এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি মানুষ মারা গেছেন যুক্তরাজ্যে। দেশটিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত ৩৪ হাজার ৭৮ জন মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ৩৮ হাজার ৪ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৪৭ জন।

এ ছাড়া, ইউরোপের দেশ স্পেনে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ৩০ হাজার ১৮৩ জন, মারা গেছেন ২৭ হাজার ৪৫৯ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৪৪ হাজার ৭৮৩ জন। ইতালিতে আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ২৩ হাজার ৮৮৫ জন, মারা গেছেন ৩১ হাজার ৬১০ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ২০ হাজার ২০৫ জন। ফ্রান্সে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৭৯ হাজার ৬৩০ জন, মারা গেছেন ২৭ হাজার ৫৩২ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৬০ হাজার ৫৬২ জন। জার্মানিতে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৭৫ হাজার ২৩৩ জন, মারা গেছেন ৭ হাজার ৮৯৭ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৫১ হাজার ৫৯৭ জন।

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ইরানে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ১৬ হাজার ৬৩৫ জন, মারা গেছেন ৬ হাজার ৯০২ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৯১ হাজার ৮৩৬ জন। তুরস্কে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৪৬ হাজার ৪৫৭ জন, মারা গেছেন ৪ হাজার ৫৫ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৬ হাজার ১৩৩ জন।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ছে দক্ষিণ আমেরিকার দেশ ব্রাজিলেও। দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ২০ হাজার ২৯১ জন, মারা গেছেন ১৪ হাজার ৯৬২ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৮৪ হাজার ৯৭০ জন।

ভাইরাসটির সংক্রমণস্থল চীনে আক্রান্ত হয়েছেন ৮৪ হাজার ৩৮ জন, মারা গেছেন ৪ হাজার ৬৩৭ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৭৯ হাজার ২৮১ জন।

উল্লেখ্য, গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)। প্রতিষ্ঠানটির সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, দেশে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ২০ হাজার ৬৫ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। মারা গেছেন ২৯৮ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন ৩ হাজার ৮৮২ জন।

Comments

The Daily Star  | English
Dhaka Airport Third Terminal: 3rd terminal to open partially in October

HSIA’s terminal-3 to open in Oct

The much anticipated third terminal of the Dhaka airport is likely to be fully open in October, multiplying the passenger and cargo handling capacity.

21m ago