প্রধানমন্ত্রীঘোষিত আর্থিক সহায়তা

তালিকায় দরিদ্রদের বদলে বিত্তশালীর নাম!

করোনা পরিস্থিতিতে দেশের নিম্ন আয়ের মানুষের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক ঘোষিত আর্থিক সহায়তার জন্য মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলায় ১১ হাজার ৫২১ জন উপকারভোগীর তালিকা প্রস্তুত করেছে সংশ্লিষ্ট প্রশাসন। সেই তালিকায় কুলাউড়া পৌরসভার চার নম্বর ওয়ার্ডের তিনতলা ভবনের মালিকের নামসহ উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নে শতাধিক উপকারভোগীর তালিকায় ইউপি সদস্যদের মোবাইল নম্বর পাওয়া যায়। এর মধ্যে উপজেলার শহরতলীর কাদিপুর ইউনিয়নে ১৮ উপকারভোগীর তালিকায় দুই ইউপি সদস্যের মোবাইল নম্বর পাওয়া গেছে।
Moulvibazar
স্টার অনলাইন গ্রাফিক্স

করোনা পরিস্থিতিতে দেশের নিম্ন আয়ের মানুষের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক ঘোষিত আর্থিক সহায়তার জন্য মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলায় ১১ হাজার ৫২১ জন উপকারভোগীর তালিকা প্রস্তুত করেছে সংশ্লিষ্ট প্রশাসন। সেই তালিকায় কুলাউড়া পৌরসভার চার নম্বর ওয়ার্ডের তিনতলা ভবনের মালিকের নামসহ উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নে শতাধিক উপকারভোগীর তালিকায় ইউপি সদস্যদের মোবাইল নম্বর পাওয়া যায়। এর মধ্যে উপজেলার শহরতলীর কাদিপুর ইউনিয়নে ১৮ উপকারভোগীর তালিকায় দুই ইউপি সদস্যের মোবাইল নম্বর পাওয়া গেছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এটিএম ফরহাদ চৌধুরী দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘কঠোর হস্তক্ষেপের কারণে সহায়তা তালিকা থেকে ওই বিত্তশালী ব্যক্তির নাম বাদ পড়ে এবং ১৮ জন উপকারভোগীর তালিকা থেকে ইউপি সদস্যদের মোবাইল নাম্বার বাদ দিয়ে উপকারভোগীদের মোবাইল নাম্বার সংযুক্ত করে তালিকা সংশোধন করা হয়।’

তিনি জানান, প্রধানমন্ত্রীঘোষিত মানবিক সহায়তা তালিকায় কুলাউড়া পৌরশহরের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের মাগুরা এলাকার বাসিন্দা বিত্তবান অমত্ত কুণ্ডুর (৫০) নাম পাওয়া গেছে। অমত্ত কুণ্ডু একটি তিনতলা ভবনের মালিক ও মাগুরা এলাকায় মিষ্টির প্যাকেট তৈরির জন্য তার একটা নিজস্ব দোকান রয়েছে। সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড কাউন্সিলর তানভীর আহমদ শাওন ওই বিত্তশালী ব্যক্তির নাম তালিকায় জুড়িয়ে দেন। পরে উপজেলা প্রশাসনের মনোনীত ট্যাগ অফিসার উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মো. আজহারুল ইসলাম মাঠ পর্যায়ের স্বেচ্ছাসেবীদের নিয়ে তালিকা যাচাই-বাছাইয়ের সময় এই অনিয়ম দেখতে পান। বিষয়টি তিনি তাৎক্ষণিক আমাকে জানালে সঙ্গে সঙ্গে সহায়তা তালিকা থেকে অমত্ত কুণ্ডুর নাম বাদ দেওয়া হয়।

উপজেলার কাদিপুর ইউনিয়নে ১৮ জন উপকারভোগীদের তালিকায় কয়েকজন ইউপি সদস্যের মোবাইল নম্বর পাওয়া গেছে বলে অভিযোগ পাওয়া যায়। এ ছাড়া, অন্যান্য সব ইউনিয়নে ৮ থেকে ১০টি করে সহায়তা তালিকায় ইউপি সদস্য বা নারী সদস্যদের মোবাইল নম্বর পাওয়া যায়। মাঠ পর্যায়ের প্রশাসনের মনোনীত ট্যাগ অফিসার ও স্বেচ্ছাসেবীরা তালিকা যাচাই-বাছাইয়ের সময় এই অনিয়মের দেখতে পান।

উপজেলায় পৌরসভাসহ ১৩টি ইউনিয়নে মোট ১১ হাজার ৫২১টি উপকারভোগী পরিবারের নামের তালিকা প্রণয়নে সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড কমিটি ইউনিয়ন/পৌরসভা কমিটি তা অনুমোদন করে উপজেলা কমিটিকে দাখিল করে। এরপর উপজেলা প্রশাসন উপকারভোগীদের নামের তালিকা যাচাই-বাছাইয়ের জন্য ১৩টি ইউনিয়নে ও একটি পৌরসভায় মোট ১৪ জন ট্যাগ অফিসার নিয়োজিত করে।

এ ছাড়া, সব ইউনিয়ন ও পৌরসভা মিলে মোট ১২৬টি ওয়ার্ডে উপজেলা প্রশাসনের নির্দেশে সংশ্লিষ্ট ট্যাগ অফিসারের নেতৃত্বে উপকারভোগীর তালিকা প্রণয়নে অধিক যাচাই-বাছাই ও অনিয়ম রোধের জন্য আরও ৫০৪ জন স্বেচ্ছাসেবী মনোনীত করে। এর মধ্যে প্রতিটি ওয়ার্ডে রয়েছেন একজন প্রাইমারি স্কুলের শিক্ষক, একজন ইমাম, একজন স্কাউট সদস্য ও একজন এনজিওকর্মী। তারা উপজেলা প্রশাসনের সঙ্গে থেকে দেশের এই দুর্যোগ পরিস্থিতিতে স্বেচ্ছাশ্রমে কাজ করছেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান একেএম সফি আহমদ সলমান দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘১১ হাজার ৫২১ জন উপকারভোগীদের নগদ সহায়তার জন্য তালিকা প্রস্তুত করা হয়েছে। তালিকা প্রণয়নের পর যাচাই-বাছাইয়ের সময় পৌরশহরের তিনতলা বিল্ডিংয়ের মালিকের নাম পাওয়া যায়। ওই ব্যক্তির নাম তালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া, উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নে জনপ্রতিনিধি কর্তৃক কিছু অনিয়মের অভিযোগ পেয়েছি। সেটারও সমাধান করে তাৎক্ষণিক তালিকা সংশোধন করা হয়েছে।’

Comments

The Daily Star  | English

How Lucky got so lucky!

Laila Kaniz Lucky is the upazila parishad chairman of Narsingdi’s Raipura and a retired teacher of a government college.

8h ago