‘মাকে কবরে রেখে এসে দেখি বাবা নেই’

করোনার উপসর্গ নিয়ে কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে চাঁদপুর শহরে এক বৃদ্ধ দম্পতি মারা গেছেন। তারা হলেন শহরের চিত্রলেখা এলাকার রাবেয়া বেগম (৭৬) এবং তার স্বামী গণপূর্ত বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মজিবুর রহমান পাটওয়ারী (৮৭)। করোনা পরীক্ষার জন্য গত রোববার তাদের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছিল। রিপোর্ট পাওয়ার আগেই তারা মারা গেলেন।
Deadbody_Corona
প্রতীকী ছবি। স্টার অনলাইন গ্রাফিক্স

করোনার উপসর্গ নিয়ে কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে চাঁদপুর শহরে এক বৃদ্ধ দম্পতি মারা গেছেন। তারা হলেন শহরের চিত্রলেখা এলাকার রাবেয়া বেগম (৭৬) এবং তার স্বামী গণপূর্ত বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মজিবুর রহমান পাটওয়ারী (৮৭)। করোনা পরীক্ষার জন্য গত রোববার তাদের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছিল। রিপোর্ট পাওয়ার আগেই তারা মারা গেলেন।

তবে মারা যাওয়া এই দম্পতির ছেলে ও স্কুল পড়ুয়া নাতির কোভিড-১৯ পরীক্ষায় ফল পজিটিভ এসেছে।

দম্পতির ছেলে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির সহকারী পরিচালক আনোয়ার হাবিব কাজল বলেন, ‘মা সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে বাসায় মারা যান। রাত সাড়ে তিনটায় মায়ের দাফন করে এসে দেখি বাবাও আর নেই।’

চাঁদপুর সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সাজেদা বেগম জানান, গত ছয় দিন ধরে জ্বর, শ্বাসকষ্ট ও কাশি নিয়ে রাবেয়া বেগম ও তার স্বামী মজিবুর রহমান পাটওয়ারী ভুগছিলেন। কিন্তু তারা হাসপাতালে না গিয়ে বাসাতেই চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। এরই মধ্যে ওই দম্পতির ছেলে ও নাতির করোনার উপসর্গ দেখা যাওয়ায় ১৩ মে তাদের নমুনা নেওয়া হয়। পরীক্ষায় দুজনেরই কোভিড-১৯ পজিটিভ এসেছে। যে দম্পতি মারা গেছেন তাদের নমুনা নেওয়া হয় গত রোববার। তাদের রিপোর্ট এখনো আসেনি।

Comments

The Daily Star  | English

Flash flood, waterlogging dampen Eid joy in Sylhet

In the last 24 hours till this morning, it rained 365mm in Sunamganj town, 285mm in Sylhet city, 252mm in Gowainghat's Jaflong, and 252mm in Laurer Garh in Tahirpur

18m ago