ভোলার ২১ চর প্লাবিত

সুপার সাইক্লোন আম্পানের প্রভাবে দ্বীপ জেলা ভোলার মোট ২১টি চরের সবগুলোই অস্বাভাবিক জোয়ারে কম-বেশি প্লাবিত হয়েছে। তবে সবচেয়ে বেশি প্লাবিত হয়েছে ঢাল চর, চর নিজাম ও চর কলাতলি।
Monpura embankment
ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় মনপুরা সূর্যমুখী বেড়িবাঁধ। ছবি: স্টার

সুপার সাইক্লোন আম্পানের প্রভাবে দ্বীপ জেলা ভোলার মোট ২১টি চরের সবগুলোই অস্বাভাবিক জোয়ারে কম-বেশি প্লাবিত হয়েছে। তবে সবচেয়ে বেশি প্লাবিত হয়েছে ঢাল চর, চর নিজাম ও চর কলাতলি।

প্লাবিত চরগুলো থেকে আগেই অধিকাংশ মানুষকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে বলে দাবি করেছে জেলা প্রশাসন।

জেলা প্রশাসনের হিসাব অনুযায়ী, ভোলায় এখন পর্যন্ত অন্তত ৩ লাখ ১৬ হাজার মানুষকে ১ হাজার ১০৪টি আশ্রয়কেন্দ্রে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। আরও অন্তত ২ লাখ মানুষকে আজ বুধবার বিকেলের মধ্যে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়া হবে।

ভোলার জেলা প্রশাসক মাসুদ আলম সিদ্দিক দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘এরপরও কিছু মানুষ আসতে চাচ্ছিলেন না। তারা বিভিন্ন চরে রয়ে গিয়েছিলেন। এখন তারা তাদেরকে উদ্ধার করার জন্যে জেলা প্রশাসনকে আহ্বান জানিয়েছে। এই অবস্থায় উদ্ধার করা মুশকিল বলে তাদেরকে চরগুলোর আশ্রয়কেন্দ্রে অবস্থান নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।’

এখন জোয়ার চলছে উল্লেখ করে তিনি জানান, কয়েকটি চরে কমবেশি ৩ থেকে চার ফুট পর্যন্ত পানি উঠেছে।

ভোলার পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী হাসান মাহমুদ বলেন, ‘মেঘনা নদীর দৌলতখান পয়েন্ট ও মনপুরায় মেঘনা নদীর পয়েন্টে বাঁধের ৩২ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে।’

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, ভোলার মনপুরা সূর্যমুখী বেড়িবাঁধ বর্তমানে ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। যে কোন মুহূর্তে বাঁধ ভেঙে যেতে পারে বলে তারা আশঙ্কা করেছেন।

Comments

The Daily Star  | English

Israeli occupation 'affront to justice'

Arab states tell UN court; UN voices alarm as Israel says preparing for Rafah invasion

2h ago