জুডিশিয়াল সার্ভিসের ১০ম ব্যাচের বিচারকদের পক্ষ থেকে ঈদ উপহার

বাংলাদেশ জুডিশিয়াল সার্ভিসের দশম ব্যাচের বিচারকদের পক্ষ থেকে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের দরিদ্র ও অসহায় ২৩৩টি পরিবারের কাছে ঈদ উপহার পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। গতকাল শনিবার এসব উপহার পৌঁছে দেওয়া হয়।
দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের দরিদ্র ও অসহায় ২৩৩টি পরিবারের কাছে ঈদ উপহার পৌঁছে দেওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ জুডিশিয়াল সার্ভিসের দশম ব্যাচের বিচারকদের পক্ষ থেকে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের দরিদ্র ও অসহায় ২৩৩টি পরিবারের কাছে ঈদ উপহার পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। গতকাল শনিবার এসব উপহার পৌঁছে দেওয়া হয়।

দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের সামাজিক সংগঠনের মাধ্যমে এই উপহার পৌঁছে দেওয়া হয়। তবে, ভোলা ও সাতক্ষীরায় সরাসরি বিচারকদের মাধ্যমেই করোনা ও ঘূর্ণিঝড় আম্পানের কারণে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে ঈদ উপহার তুলে দেওয়া হয়েছে।

মিনি ল’ স্কুলের মাধ্যমে চট্টগ্রাম অঞ্চলের ৩০ জন বিধবা নারীকে, আঞ্চলিক সংগঠন আশ্রয়ের মাধ্যমে মাদারীপুরে ২৫টি পরিবারকে এবং সাতক্ষীরায় করোনা ও ঘূর্ণিঝড় আম্পানের কারণে বিপর্যস্ত ৪০টি পরিবারকে চিহ্নিত করে অন্তত ১০ দিনের খাবার সহায়তা পৌঁছে দেওয়া হয়।

ভোলায় একইভাবে করোনা ও ঘূর্ণিঝড়ে বিপর্যস্ত ১৫টি পরিবারকে, পিরোজপুরে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন স্বপ্নযাত্রা-৯৯’র মাধ্যমে করোনার কারণে অসহায় হয়ে পড়া ২৩টি পরিবারকে ঈদ উপহার পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। এসব ঈদ উপহার দেওয়ার ক্ষেত্রে ঘূর্ণিঝড়ে বিপর্যস্তদের অগ্রাধিকার দেওয়া হয়েছে।

কিশোরগঞ্জে আল মারকাজুল ইনস্টিটিউটের মাধ্যমে ১০০টি পরিবারের কাছে ঈদ উপহার পৌঁছে দিয়েছেন সেখানকার দশম ব্যাচের দুই বিচারক। এক্ষেত্রে বয়োবৃদ্ধ ও বিশেষ সুবিধাবঞ্চিতদের অগ্রাধিকার দেওয়া হয়েছে।

ঈদ উপহারের প্রত্যেকটি প্যাকেটেই চাল, ডাল, আলু, সেমাই, চিনিসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী ছিল।

উল্লেখ্য, ইতোপূর্বে বাংলাদেশ জুডিশিয়াল সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের মাধ্যমে অধস্তন আদালতের সব বিচারক তাদের এক দিনের বেতন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে জমা দেন। বাংলাদেশ জুডিশিয়াল সার্ভিসের দশম ব্যাচের ২০৭ জন বিচারক বর্তমানে দেশের বিভিন্ন জেলার জজশিপ ও ম্যাজিস্ট্রেসিতে কর্মরত আছেন।

Comments

The Daily Star  | English

Nation celebrating Eid-ul-Azha amid festive spirit

Bangladesh has begun celebrating Eid-ul-Azha, the second-largest religious festival for Muslims, with fervor and devotion

2h ago