নারায়ণগঞ্জে ছুরিকাঘাতে যুবক খুন, অভিযুক্ত গ্রেপ্তার

নারায়ণগঞ্জের সদর উপজেলায় ছুরিকাঘাতে মো. ফেরদৌস (৩০) নামে এক যুবককে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ অভিযুক্ত যুবককে আটক করেছে।
স্টার অনলাইন গ্রাফিক্স

নারায়ণগঞ্জের সদর উপজেলায় ছুরিকাঘাতে মো. ফেরদৌস (৩০) নামে এক যুবককে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ অভিযুক্ত যুবককে আটক করেছে।

পুলিশের দাবি, ‘পূর্বশত্রুতার জের ধরে এক বন্ধু আরেক বন্ধুকে হত্যা করেছে।’

আজ ভোররাত ১টায় উপজেলার মুসলিমনগর এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। সকালে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

নিহত ফেরদৌস পটুয়াখালী শুভডুগী এলাকার আব্দুল মিয়ার ছেলে এবং আটক যুবক শরিয়তপুর পোপনচর এলাকার সোবহান মিয়ার ছেলে রাকিব মিয়া (৩০)।

প্রত্যক্ষদর্শী সুমন মিয়া দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘নিহত ফেরদৌস, অভিযুক্ত রাকিব এবং আমি মুসলিমনগরের লোকমান হোসেনের বাড়ির ভাড়াটিয়া। গত রাত ১টার দিকে বাসায় ফিরে বাড়ির গোসলখানার মধ্যে চিৎকার শুনতে পাই। পরে সেখানে গিয়ে দেখি রাকিব রক্তমাখা ছুরি হাতে আর রক্তাক্ত অবস্থায় ফেরদৌস মাটিতে পড়ে আছে।’

এসব দেখে সুমন চিৎকার শুরু করলে রাকিব পালিয়ে যায়। পরে তারা পুলিশকে খবর দেন।

ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসলাম হোসেন দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘নিহত ফেরদৌসের পেটে, বুকেসহ শরীরের বিভিন্ন জায়গায় ২০টিরও বেশি ধারালো ছুরির আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এসব আঘাতের কারণে ঘটনাস্থলেই সে মারা যায়। নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘স্থানীয়রা জানিয়েছে অভিযুক্ত রাকিব পালিয়ে গেছে। পরে ভোর ৫টায় সিএনজি চালিত অটোরিকশায় পালিয়ে যাওয়ার সময় পঞ্চবটি এলাকার চেকপোস্টে রক্তামাখা পোশাক দেখে পুলিশ রাকিবকে আটক করে। পরে পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে রাকিব হত্যার ঘটনা স্বীকার করেছে।’

রাকিবের উদ্ধৃতি দিয়ে আসলাম হোসেন হত্যার কারণ হিসেবে জানায়, ‘ফেরদৌস ও রাকিব দুজন বন্ধু। একই বাসায় এক সঙ্গে থাকতেন। বিভিন্ন বিষয়ে তাদের মধ্যে বিরোধ ছিল। এক মাস আগে ফেরদৌস বিয়ে করে আলাদা বাসা নেয়। পূর্ব বিরোধের জের ধরেই রাকিব ফেরদৌসকে হত্যা করে।’

তিনি জানান, এ ঘটনায় ফেরদৌসের স্ত্রী সাদিয়া বেগম বাদি হয়ে মামলা দায়ের করেছেন। ওই মামলায় রাকিবকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হচ্ছে।

নিহতের স্ত্রী সাদিয়া সাংবাদিকদের জানান, একমাস আগে ফেরদৌসের সঙ্গে তার বিয়ে হয়। তার স্বামীর সাথে রাকিবের বন্ধুত্ব ছিল। ফেরদৌস ও রাকিবের পূর্বে কোনো শত্রুতা ছিল কিনা তা তিনি জানেন না। তিনি তার স্বামী হত্যার বিচার দাবি করেন।

Comments

The Daily Star  | English
Medium of education in Bangladesh

Medium of education should be mother language: PM

Prime Minister Sheikh Hasina today said that the medium for education in educational institutions should be everyone's mother tongue.

4h ago