সাগর-নদীবন্দরে সতর্কতা, উপকূলে জলোচ্ছ্বাসের শঙ্কা

বায়ুচাপের তারতম্যের আধিক্য ও অমাবস্যার প্রভাবে উপকূলীয় জেলা এবং অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরাঞ্চলে স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে দুই থেকে চার ফুট বেশি উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হতে পারে বলে আশঙ্কা করছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।
weather-1.jpg
প্রতীকী ছবি। (সংগৃহীত)

বায়ুচাপের তারতম্যের আধিক্য ও অমাবস্যার প্রভাবে উপকূলীয় জেলা এবং অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরাঞ্চলে স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে দুই থেকে চার ফুট বেশি উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হতে পারে বলে আশঙ্কা করছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

আজ মঙ্গলবার সকালে আবহাওয়াবিদ আব্দুর রহমান দ্য ডেইলি স্টারকে এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘সাতক্ষীরা, খুলনা, বাগেরহাট, ঝালকাঠি, পিরোজপুর, বরগুনা, পটুয়াখালী, ভোলা, বরিশাল, লক্ষ্মীপুর, চাঁদপুর, নোয়াখালী, ফেনী, চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার প্লাবিত হতে পারে বলে পূর্বভাসে বলা হয়েছে। ইতোমধ্যে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। বায়ুচাপের তারতম্যের প্রভাবে এসব এলাকায় ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে।’

আব্দুর রহমান বলেন, ‘ঢাকা, ফরিদপুর, মাদারীপুর, খুলনা, বরিশাল, পটুয়াখালী, নোয়াখালী, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার অঞ্চলের উপর দিয়ে দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে অস্থায়ী দমকা হাওয়া বয়ে যেতে পারে। সেই সঙ্গে বৃষ্টিপাত হতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দরগুলোকে এক নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। আজ সকাল পর্যন্ত উপকূলীয় এলাকায় পরিস্থিতির অবনতি হয়নি। তবেও আরও দুএকদিন এমনই চলবে। এরপর পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে স্থানীয় সতর্ক সংকেত নামিয়ে নেওয়া হবে।’

Comments

The Daily Star  | English

Consumers brace for price shocks

Consumers are bracing for multiple price shocks ahead of Ramadan that usually marks a period of high household spending.

11h ago