চীন ও ভারতীয় সেনাদের লাঠি-রডের সংঘর্ষ, উত্তেজনা

লাদাখ সীমান্তে ভারত ও চীনের মধ্যে উত্তেজনা ক্রমশ বাড়ছে। এই মাসের শুরুতে সেখানে সেনার মধ্যে লোহার রড, লাঠি নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনার পর দুই দিক থেকেই সামরিক শক্তি বাড়ানো হয়েছে।
ছবি: রয়টার্স

লাদাখ সীমান্তে ভারত ও চীনের মধ্যে উত্তেজনা ক্রমশ বাড়ছে। এই মাসের শুরুতে সেখানে সেনার মধ্যে লোহার রড, লাঠি নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনার পর দুই দিক থেকেই সামরিক শক্তি বাড়ানো হয়েছে।

ভারতীয় গণমাধ্যমগুলো বলছে, লাদাখ সীমান্তে এখন কার্যত দুই দেশের বাহিনী মুখোমুখি অবস্থানে রয়েছে।

সীমান্তে চীনের সঙ্গে ভারতের বিরোধ বিরল কোনো ঘটনা নয়। এর আগেও বহুবার লাদাখে দুই দেশের সেনাদের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়েছিল। সর্বশেষ ভুটান-চীন-ভারতের সীমান্ত যেখানে মিলেছে সেই ডোকলামে বিরোধকে কেন্দ্র করে দুপক্ষ সেনা সমাবেশ করেছিল। তবে সেবারও তা গোলাগুলির পর্যায়ে যায়নি।

সামরিক বাহিনীর সূত্রের বরাতে এনডিটিভির খবরে জানানো হয়, লাদাখে দুই থেকে আড়াই হাজার সেনা মোতায়েন করেছে চীন। প্রায় এক শ শিবির তৈরি করেছে তারা। বাঙ্কার নির্মাণের ভারী উপকরণও মজুত করা হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে ভারতও সৈন্য সমাবেশ করে টহল জোরদার করেছে।

গত ৫ মে থেকে লাদাখে উত্তেজনা ছড়িয়েছিল দুই পক্ষের মধ্যে। সেদিন প্রায় আড়াই শ চীনা সৈনার সঙ্গে মারামারি হয় ভারতীয় বাহিনীর। লোহার রড, লাঠি এমনকি ইটপাটকেল নিয়ে দুপক্ষের সংঘর্ষ হয় সেদিন। এর পর থেকেই উত্তেজনা বেড়েছে ক্রমশ। চীনা সেনাদের বিরুদ্ধে সীমান্ত অতিক্রম করারও অভিযোগ এনেছে ভারত।

ভারতের নর্দান আর্মি কমান্ডার (অব.) লেফটেন্যান্ট জেনারেল ডিএস হুডাকে উদ্ধৃত করে এনডিটিভির খবরে জানানো হয়, লাদাখের যে এলাকায় উত্তেজনা ছড়াচ্ছে সেখানে সীমান্ত নির্ধারণ রেখা নিয়ে কোনো বিরোধ নেই। এ কারণেই ঘটনাটিকে সাধারণ বিরোধ হিসেবে দেখা যাচ্ছে না। একে কেন্দ্র করে যে নয়াদিল্লির উদ্বেগ বাড়ছে সে কথাও বলেছেন এই সামরিক বিশ্লেষক।

Comments

The Daily Star  | English

UP chairman ‘attacked’ in Natore over VGF rice distribution

Fingers pointed at local lawmaker’s supporters; he refutes allegation

23m ago