করোনা আপডেট: কক্সবাজার, টাঙ্গাইল, চাঁদপুর, পটুয়াখালী ও ঠাকুরগাঁও

গত ২৪ ঘণ্টায় কক্সবাজারে আরও ২৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। টাঙ্গাইলে ১০ জনের শনাক্ত ও মারা গেছেন একজন। ঠাকুরগাঁওয়ে আক্রান্ত ১২২ জনের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৩৪ জন আর মারা গেছেন দুই জন। এ দিকে, করোনা উপসর্গ নিয়ে চাঁদপুরে পাঁচ জন ও পটুয়াখালীতে একজন মারা গেছেন। দ্য ডেইলি স্টারের স্থানীয় সংবাদদাতারা এ সব তথ্য জানিয়েছেন।

গত ২৪ ঘণ্টায় কক্সবাজারে আরও ২৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। টাঙ্গাইলে ১০ জনের শনাক্ত ও মারা গেছেন একজন। ঠাকুরগাঁওয়ে আক্রান্ত ১২২ জনের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৩৪ জন আর মারা গেছেন দুই জন। এ দিকে, করোনা উপসর্গ নিয়ে চাঁদপুরে পাঁচ জন ও পটুয়াখালীতে একজন মারা গেছেন। দ্য ডেইলি স্টারের স্থানীয় সংবাদদাতারা এ সব তথ্য জানিয়েছেন।  

কক্সবাজারে আরও ২৩ জনের করোনা শনাক্ত

আজ বুধবার কক্সবাজার সরকারি মেডিকেল কলেজে স্থাপিত আইইডিসিআরের ফিল্ড ল্যাবে ৭০ জনের নমুনা পরীক্ষায় ২৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. অনুপম বড়ুয়া এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, আক্রান্তদের মধ্যে কক্সবাজার সদর উপজেলার সাত জন, চকরিয়ার আট জন, টেকনাফের তিন জন, রামুর তিন জন, বান্দরবান জেলার নাইক্ষ্যছড়ি উপজেলার একজন ও লামা উপজেলার একজন।

টাঙ্গাইলে করোনায় আরও একজনের মৃত্যু, নতুন আক্রান্ত ১০

ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় টাঙ্গাইল পৌর এলাকার এক বাসিন্দা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। এ নিয়ে জেলায় এ পর্যন্ত পাঁচ জন করোনায় মারা গেলেন।

এদিকে, জেলায় নতুন করে ১০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। তাদের মধ্যে মির্জাপুর উপজেলার দুই জন, কালিহাততে দুই জন, ঘাটাইলে একজন, সদর উপজেলায় চার জন ও ভূঞাপুর উপজেলায় একজন রয়েছেন।

এ নিয়ে, জেলায় এ পর্যন্ত ১৯১ জনের করোনা শনাক্ত হলো।

টাঙ্গাইলের সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ ওয়াহীদুজ্জামান দ্য ডেইলি স্টারকে আজ বুধবার এ সব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, এ পর্যন্ত জেলায় সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৫৬ জন। চিকিৎসাধীন আছেন ১৩০ জন। জেলায় হোম ও প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে আছেন ১৯৯৮ জন।

ঠাকুরগাঁওয়ে আক্রান্ত ১২২ জনের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৩৪ জন, মৃত্যু ২ 

ঠাকুরগাঁওয়ে এ পর্যন্ত ১২২ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তাদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৩৪ জন ও মারা গেছেন দুই জন। জেলা সিভিল সার্জন মাহফুজার রহমান সরকার এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে বীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে করোনায় মারা গেছেন ঠাকুরগাঁওয়ের আওয়ামী লীগ নেতা রওশন আলী (৬০)। এর আগে, ঢাকাফেরত আশি বছর বয়সী এক বৃদ্ধা রানীশংকৈল উপজেলায় নিজ বাড়িতে করোনা উপসর্গ নিয়ে গত ২৪ মে মারা যান। পরে, ৩০ মে তার করোনা পরীক্ষার ফল পজেটিভ আসে।

সিভিল সার্জন জানান, আজ বুধবার সকাল পর্যন্ত ঠাকুরগাঁও জেলার এক হাজার ৫৪৪ জনের করোনা পরীক্ষার ফলাফল পাওয়া গেছে।

চাঁদপুরে করোনা উপসর্গ নিয়ে ৫ জনের মৃত্যু

করোনা উপসর্গ নিয়ে চাঁদপুরে পাঁচ জন মারা গেছেন। তাদের মধ্যে চাঁদপুর সদর সরকারি জেনারেল হাসপাতালের আইসোলেশনে তিন জন, হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আইসোলেশনে একজন ও হাজীগঞ্জের হাটিলা পূর্ব ইউনিয়নের এক ব্যক্তি নিজ বাড়িতে মারা যান।

চাঁদপুর সদর হাসপাতালের করোনা ফোকাল পার্সন ডা. সুজাউদ্দৌলা রুবেল দ্য ডেইলি স্টারকে জানান, আজ সকালে সদরের এক নারী জ্বর, সর্দি ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার কিছু্ক্ষণ পর মারা যান। এ ছাড়া, মঙ্গলবার রাতে দুই জন করোনা উপসর্গ জ্বর, শ্বাসকষ্ট নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর মারা যান।

এ দিকে, হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মকর্তা ডা. শোয়েব আহমেদ জানান, আজ সকাল সাড়ে ৮টার দিকে হাজীগঞ্জ বাজারের এক ব্যবসায়ী হাসপাতালের আইসোলেশনে করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন। গতকাল রাত সাড়ে ৮টার দিকে এক বৃদ্ধ হাটিলা পূর্ব ইউনিয়নে করোনা উপসর্গ নিয়ে নিজ বাড়িতে মারা যান।

মৃতদের করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ করা হয় এবং সরকারি বিধি অনুযায়ী তাদের দাফনের ব্যবস্থা করা হয় বলে জানান সিভিল সার্জন।

পটুয়াখালীতে করোনার উপসর্গ নিয়ে ১ জনের মৃত্যু

পটুয়াখালী শহরের থানাপাড়া এলাকায় করোনার উপসর্গ নিয়ে এক ব্যক্তি মারা গেছেন। আজ বুধবার সকালে তিনি নিজ বাসায় জ্ঞান হারালে তাকে পটুয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

জেলা সিভিল সার্জন ডা. জাহাঙ্গীর আলম দ্য ডেইলি স্টারকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, মৃত ব্যক্তির করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

মৃতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, তিনি সরকারি চাকুরিজীবী ছিলেন এবং গত বছর অবসরে যান।

আজ বিকেলে কোভিড প্রটোকল মেনে পটুয়াখালী মহাশ্মাশানে তার সৎকার হয়েছে।

Comments

The Daily Star  | English
Bangladesh economy

Can Bangladesh be a semiconductor hub?

The semiconductor manufacturing sector is well-known for its complexity, high stakes and intense corporate competition. Demand has always been driven by innovation, with every new technology changing the game.

2d ago