জৈব সুরক্ষিত পরিবেশে লালা ব্যবহারে ঝুঁকি দেখছেন না পোলক

ক্রিকেট বলের শাইন বজায় রাখতে থুতু বা লালা ব্যবহার করে থাকেন ক্রিকেটাররা। তবে করোনাভাইরাসের কারণে এ অভ্যাসকে বিপজ্জনকই ভাবছেন অনেকে। স্বাস্থ্য ঝুঁকির কথা মাথায় রেখে তাই লালা ব্যবহার নিষিদ্ধের সুপারিশ করেছে আইসিসি ক্রিকেট কমিটি। তবে জৈব সুরক্ষিত পরিবেশ নিশ্চিত করলে যতোটা বিপজ্জনক ভাবা হয়েছিল, ঠিক তেমন সমস্যা তৈরি করবে না বলে মনে করেন আইসিসির ক্রিকেট কমিটির সদস্য শন পোলক।
ফাইল ছবি: এএফপি

ক্রিকেট বলের শাইন বজায় রাখতে থুতু বা লালা ব্যবহার করে থাকেন ক্রিকেটাররা। তবে করোনাভাইরাসের কারণে এ অভ্যাসকে বিপজ্জনকই ভাবছেন অনেকে। স্বাস্থ্য ঝুঁকির কথা মাথায় রেখে তাই লালা ব্যবহার নিষিদ্ধের সুপারিশ করেছে আইসিসি ক্রিকেট কমিটি। তবে জৈব সুরক্ষিত পরিবেশ নিশ্চিত করলে যতোটা বিপজ্জনক ভাবা হয়েছিল, ঠিক তেমন সমস্যা তৈরি করবে না বলে মনে করেন আইসিসির ক্রিকেট কমিটির সদস্য শন পোলক।

এক দেশ থেকে অন্য দেশের যাওয়ার পর যদি আইসোলেশন ও কোয়ারেন্টিন মানা হয়, তাহলে লালা নিষিদ্ধ করার কোনো প্রয়োজন নেই বলেই মনে করেন পোলক। ফলোয়িং অন ক্রিকেট পডকাস্টকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, 'আমার মনে হয় যে পরিবেশ সৃষ্টি হচ্ছে তাতেই সমাধান মিলবে কারণ সবাই অনেকটা বিচ্ছিন্ন পরিবেশের মধ্যে থাকবে। সবার পরীক্ষা করা হবে, দুই সপ্তাহের ক্যাম্পে থাকবে যেখানে শারীরিক পরিবর্তনের দিকে খেয়াল রাখবে তারা।'

'যদি লক্ষণ না থাকে, তাহলে আসলে বলের উজ্জ্বলতা ধরে রাখতে আপনি কী ব্যবহার করলেন, তাতে কিছু যায় আসে না। কারণ আপনি বিচ্ছিন্ন অবস্থায় আছেন, করোনাভাইরাস আছে এমন কারও সংস্পর্শে আসেননি আপনি। ফলে স্বাভাবিক প্রক্রিয়ার ভেতর দিয়ে যাবেন আপনি। আমার মনে হয় কোনও দর্শক থাকবে না মাঠে, যেখানেই খেলা হোক না কেন সেটি জীবাণুমুক্ত করা হবে, সংশ্লিষ্ট সবকিছুই করা হবে।' -নিজের যুক্তির ব্যাখ্যা দিয়ে আরও বলেন পোলক।

এদিকে জুলাইয়ে উইন্ডিজের বিপক্ষে তিন টেস্টের সিরিজ দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরছে ইংল্যান্ড। জৈব সুরক্ষিত পরিবেশে হবে ম্যাচ তিনটি। এর আগে ওল্ড ট্রাফোর্ডে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকবে সফরকারী দলটি। একই ভাবে অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিতব্য টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজনের ব্যাপারেও আশা দেখছেন পোলক, 'একটা বিচ্ছিন্ন পরিবেশ তৈরির ক্ষেত্রে অস্ট্রেলিয়ারই সবচেয়ে উপযুক্ত পরিবেশ আছে এখন।'

Comments

The Daily Star  | English

Dhaka footpaths, a money-spinner for extortionists

On the footpath next to the General Post Office in the capital, Sohel Howlader sells children’s clothes from a small table.

8h ago