বেনাপোলে ৭৫ দিন পর আমদানি-রপ্তানি শুরু

২ মাস ১৫ দিন বন্ধ থাকার পর আজ রোববার বিকেলে বেনাপোল স্থল বন্দর দিয়ে আবার শুরু হয়েছে বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্য। ভারতের কেন্দ্রীয় ও রাজ্য সরকারের নির্দেশনায় দুই দেশের প্রশাসন ও ব্যবসায়ী নেতাদের মধ্যে দফায় দফায় বৈঠকের পর বাণিজ্য শুরু হলো।

২ মাস ১৫ দিন বন্ধ থাকার পর আজ রোববার বিকেলে বেনাপোল স্থল বন্দর দিয়ে আবার শুরু হয়েছে বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্য। ভারতের কেন্দ্রীয় ও রাজ্য সরকারের নির্দেশনায় দুই দেশের প্রশাসন ও ব্যবসায়ী নেতাদের মধ্যে দফায় দফায় বৈঠকের পর বাণিজ্য শুরু হলো।

করোনাভাইরাসের মহামারির কারণে গত ২৩ মার্চ বেনাপোল স্থল বন্দর দিয়ে আমদানি-রপ্তানি বন্ধ হয়ে যায়। ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার ২৪ এপ্রিল আমদানি-রপ্তানি চালুর নির্দেশনা দিলেও পশ্চিমবঙ্গ সরকারের অনুমতি না থাকায় দীর্ঘদিন সড়কপথে বন্ধ ছিল বাণিজ্য।

ভারতের পেট্রাপোল সিএন্ডএফ এজেন্টস স্টাফ এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক কার্তিক চন্দ্র জানান, বিকেল পর্যন্ত ২৪ ট্রাক মোটরসাইকেল বাংলাদেশে আমদানি হয়েছে। লাইনে রয়েছে তৈরি পোশাক শিল্প কারখানার কাঁচামাল ও নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য।

বেনাপোল সিএন্ডএফ এজেন্টস স্টাফ এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক সাজেদুর রহমান জানান, ভারত থেকে পণ্য বোঝাই ট্রাক নিয়ে আসা ড্রাইভার ও হেলপারদের পিপিই ও মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। বাংলাদেশে প্রবেশের মুখে তাদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে বন্দরে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হবে। সেই সঙ্গে ট্রাকে জীবাণুনাশক স্প্রে করবে উভয় দেশের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা। বন্দরে দ্রুত পণ্য খালাস করে দিনে দিনে ট্রাকগুলো ফিরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

বেনাপোল সিএন্ডএফ এজেন্টের সভাপতি মফিজুর রহমান সজন জানান, করোনার কারণে আড়াই মাস ধরে এ বন্দর দিয়ে আমদানি-রপ্তানি বন্ধ ছিল। স্বাস্থ্যবিধি মেনেই আমদানি-রপ্তানি শুরু হয়েছে। ভারতের ওপারে পাঁচ হাজার পণ্য বোঝাই ট্রাক বাংলাদেশে প্রবেশের অপেক্ষায় রয়েছে।

বেনাপোল স্থল বন্দরের পরিচালক (ট্রাফিক) মামুন কবীর তরফদার জানান, স্বাস্থ্যবিধি মেনে আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম শুরু হয়েছে, বন্দর কর্তৃপক্ষ সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। ভারতীয় ট্রাক চালকরা যাতে পোর্টের বাইরে যেতে না পারে সে ব্যাপারে নিরাপত্তা ব্যবস্থাও জোরদার করা হয়েছে।

Comments

The Daily Star  | English

Trees are Dhaka’s saviours

Things seem dire as people brace for the imminent fight against heat waves and air pollution.

4h ago