শচীনকে আউট করায় হত্যার হুমকি!

টেলিভিশন রিপ্লেতে দেখা যায়, বল লেগ স্টাম্পের বাইরে দিয়ে চলে যাচ্ছিল। তাতে ক্ষিপ্ত হয়ে পড়া কিছু উগ্র সমর্থক পরবর্তীতে বিভিন্নভাবে হত্যার হুমকি দিয়েছিলেন ব্রেসনান ও টাকারকে!
bresnan and tendulkar
ছবি: এএফপি

১০০তম সেঞ্চুরিকে তখন যেন মনে হচ্ছিল সময়ের ব্যাপার! সাবলীল ছন্দে ব্যাটিং করছিলেন শচীন টেন্ডুলকার। অকল্পনীয় কীর্তিকে বাস্তবে রূপ দেওয়া থেকে মাত্র ৯ রান দূরে ছিলেন ‘ভারতীয় ক্রিকেট ঈশ্বর’। কিন্তু বিধি বাম। ইংল্যান্ডের পেসার টিম ব্রেসনানের ডেলিভারিতে অস্ট্রেলিয়ান আম্পায়ার রড টাকারের ভুল সিদ্ধান্তে এলবিডব্লিউ হয়ে যান তিনি। টেলিভিশন রিপ্লেতে দেখা যায়, বল লেগ স্টাম্পের বাইরে দিয়ে চলে যাচ্ছিল। তাতে ক্ষিপ্ত হয়ে পড়া কিছু উগ্র সমর্থক পরবর্তীতে বিভিন্নভাবে হত্যার হুমকি দিয়েছিলেন ব্রেসনান ও টাকারকে!

ভারত ও ইংল্যান্ডের মধ্যকার ওই টেস্ট ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হয়েছিল ওভালে, ২০১১ সালে। এর প্রায় এক দশক পর সম্প্রতি ‘ইয়র্কশায়ার ক্রিকেট: কভারস অফ’ অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে ব্রেসনান দাবি করেছেন হত্যার হুমকি পাওয়ার কথা।

তিনি বলেছেন, ‘ওই বলটা সম্ভবত লেগ স্টাম্প মিস করেই যেত। কিন্তু অজি আম্পায়ার (টাকার) তাকে (শচীনকে) আউট দিয়েছিলেন। সেদিন তিনি ৮০ রানের বেশি (আসলে ৯১) করে ফেলেছিলেন, নিশ্চিতভাবেই (সেঞ্চুরিটা) পেয়ে যেতেন। আমরা সিরিজটি জিতেছিলাম এবং টেস্ট র‍্যাঙ্কিংয়ে এক নম্বরে উঠেছিলাম।’

‘আমি এবং আম্পায়ার দুজনই হত্যার হুমকি পেয়েছিলাম। পরবর্তীতে অনেক বছর ধরে হুমকি দেওয়া হয়েছিল। আমি টুইটারে হুমকি পেয়েছিলাম এবং তার (টাকারের) বাড়ির ঠিকানায় চিঠি পাঠানো হতো। সেখানে লেখা থাকত, ‘তাকে আউট দেওয়ার সাহস হয় কী করে তোমার? বলটা লেগ স্টাম্পের বাইরে দিয়ে যাচ্ছিল।’

২০১১ সালের  ঘরের মাঠে বিশ্বকাপে আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের ৯৯তম সেঞ্চুরি করেছিলেন শচীন। প্রতিপক্ষ ছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। ওয়ানডে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ আসরে এরপর আরও চারটি ইনিংস খেললেও তিন অঙ্কের দেখা পেতে ব্যর্থ হন তিনি। বিশ্বকাপ শেষে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরেও যাওয়া হয়নি তার। তাই ১০০তম সেঞ্চুরির জন্য অপেক্ষা ক্রমেই বাড়ছিল। ইংল্যান্ড সফরে বিশ্বরেকর্ডের খুব কাছাকাছি পৌঁছে গেলেও আম্পায়ারের বাজে সিদ্ধান্তে সাজঘরে ফিরতে হয়েছিল শচীনকে। এতে তেলে-বেগুনে জ্বলে উঠেছিলেন তার অনেক ভক্ত-সমর্থক।

৩৫ বছর বয়সী ব্রেসনান বলেছেন, ‘ওই ঘটনার কয়েক মাস পর তার (টাকারের) সঙ্গে আমার দেখা হয়েছিল এবং তিনি বলেছিলেন, “আমার বাড়িতে নিরাপত্তারক্ষীর ব্যবস্থা করতে হয়েছে। আরও কিছু কাজও করতে হয়েছে।” নিরাপত্তার জন্য অস্ট্রেলিয়াতে তার বাড়ির চারদিকে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছিল।’

অবশেষে ২০১২ সালের মার্চে এশিয়া কাপে ইতিহাসের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে শততম সেঞ্চুরি পূরণ করেছিলেন শচীন। অপেক্ষার প্রহর ঘুচিয়ে মিরপুরে স্বাগতিক বাংলাদেশের বিপক্ষে করেছিলেন ১৪৭ বলে ১১৪ রান। ঐতিহাসিক ইনিংসটি তিনি সাজিয়েছিলেন ১২ চার ও ১ ছক্কায়। ৫ উইকেটের ব্যবধানে জিতে ম্যাচটিতে অবশ্য শেষ হাসি হেসেছিল টাইগাররাই।

Comments

The Daily Star  | English

Pm’s India Visit: Dhaka eyes fresh loans from Delhi

India may offer Bangladesh fresh loans under a new framework, as implementation of the projects under the existing loan programme is proving difficult due to some strict loan conditions.

1h ago