চলে গেলেন ভাষাসৈনিক মিরান উদ্দিন মাষ্টার

বার্ধক্যজনিত কারণে ভাষা সৈনিক ও বীর মুক্তিযোদ্ধা মিরান উদ্দিন মাষ্টার মারা গেছেন। আজ সোমবার সকালে মানিকগঞ্জের ঘিওর উপজেলায় নিজ বাসভবনে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।
ভাষাসৈনিক মিরান উদ্দিন মাষ্টার। ছবি: সংগৃহীত

বার্ধক্যজনিত কারণে ভাষাসৈনিক ও বীর মুক্তিযোদ্ধা মিরান উদ্দিন মাষ্টার মারা গেছেন। আজ সোমবার সকালে মানিকগঞ্জের ঘিওর উপজেলায় নিজ বাসভবনে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।

তার বয়স হয়েছিল ৮৪ বছর। বাদ জোহর নামাজে জানাজা শেষে ঘিওর মুক্তিযোদ্ধা কবরস্থানে তাকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন করা হয়ে।

মিরান উদ্দিন মাষ্টারের মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন মানিকগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য এ এম নাঈমুর রহমান দূর্জয়, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির কেন্দ্রীয় সভাপতি কমরেড মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম, মানিকগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট গোলাম মহিউদ্দীন, মানিকগঞ্জ জজকোর্টের পিপি এবং জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম, সিপিবি কেন্দ্রীয় নেতা অ্যাডভোকেট আজহারুল ইসলাম আরজু, ঘিওর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ হাবিবুর রহমান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আইরিন আক্তার, ঘিওর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার আব্দুল আজিজ, কমিউনিস্ট পার্টির মানিকগঞ্জ জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক কমরেড মজিবর রহমান মাস্টার, ঘিওর থানা অফিসার-ইন-চার্জ আশরাফুল আলমসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ।

মিরান উদ্দিন মাষ্টার ১৯৩৪ সালে ২৮ আগস্ট জেলার দৌলতপুর উপজেলার ধামশ্বর ইউনিয়নের কাকনা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।

শিক্ষাজীবন শেষে তিনি তেরশ্রী কে. এন. ইনস্টিটিউশনে শিক্ষকতা করেছেন। পরবর্তীতে তিনি স্কুল, কলেজসহ বহু প্রতিষ্ঠান গড়ার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। মুক্তিযুদ্ধকালীন সময়ে ন্যাপ-কমিউনিস্ট-ছাত্র ইউনিয়ন বিশেষ গেরিলা বাহীনির একজন সম্মুখ যোদ্ধা ও সংগঠক ছিলেন তিনি।

শিক্ষা ও রাজনৈতিক জীবনে সান্নিধ্য পেয়েছেন কমরেড জ্ঞান চক্রবর্তী, জীতেন ঘোষ, মণি সিংহ, অধ্যাপক মোজাফফর আহমেদ, প্রমথ নাথ নন্দী, ডা. এম এন নন্দীসহ অনেক জাতীয় নেতৃবৃন্দের।

Comments

The Daily Star  | English
MV Abdullah reaches UAE port

MV Abdullah reaches outer anchorage of UAE port

After its release, the ship travelled around 1,450 nautical miles from the Somali coast where it was under captivity to reach UAE port's territory

1h ago