'চাইলে অ্যাতলেতিকোর মাঠ ব্যবহার করতে পারবে রিয়াল'

ক্রমেই উন্নতি হচ্ছে স্পেনের অবস্থা। কমছে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। ফলে দর্শকশূন্য মাঠে লা লিগা ফিরছে বৃহস্পতিবার থেকে। অবস্থার উন্নতিতে অনেকে আশা করছেন দ্রুতই হয়তো দর্শকদের উপস্থিতির অনুমতিও মিলবে। সেক্ষেত্রে বড় মাঠে বেশি দর্শকের সামনে খেলার সুযোগটা চাইলেই নিতে পারবে রিয়াল মাদ্রিদ। ওয়ান্দা মেত্রোপলিতানোকে লস ব্লাঙ্কোসদের ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছেন অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদের প্রেসিডেন্ট এনরিক কেরেজো।
ছবি: মার্কা

ক্রমেই উন্নতি হচ্ছে স্পেনের অবস্থা। কমছে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। ফলে দর্শকশূন্য মাঠে লা লিগা ফিরছে বৃহস্পতিবার থেকে। অবস্থার উন্নতিতে অনেকে আশা করছেন দ্রুতই হয়তো দর্শকদের উপস্থিতির অনুমতিও মিলবে। সেক্ষেত্রে বড় মাঠে বেশি দর্শকের সামনে খেলার সুযোগটা চাইলেই নিতে পারবে রিয়াল মাদ্রিদ। ওয়ান্দা মেত্রোপলিতানোকে লস ব্লাঙ্কোসদের ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছেন অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদের প্রেসিডেন্ট এনরিক কেরেজো।

বর্তমানে সংস্কারকাজ চলছে রিয়াল মাদ্রিদের মাঠ সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে। লিগের ম্যাচগুলো আলফ্রেড ডি স্টেফানো ট্রেনিং গ্রাউন্ডে আয়োজন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা। কিন্তু সেখানে মাত্র ছয় হাজার দর্শক ধারণ ক্ষমতা রয়েছে। রিয়াল সমর্থকদের জন্য খুবই কম। দীর্ঘদিন পর যদি মাঠে বসে খেলার সুযোগ মিলে তাহলে অনেকেই মুখিয়ে থাকবেন। তাই মানবিক বিচারে নিজেদের স্টেডিয়ামকে ব্যবহার করার সুযোগ দিচ্ছে অ্যাতলেতিকো।

এর আগে অ্যাতলেতিকোও রিয়ালের মাঠ ব্যবহার করেছিল ১৯৯৬/৯৭ মৌসুমে। তার উদাহরণ টেনেই কেরেজো বলেন, 'তারা চাইলে আমাদের মাঠে ব্যবহার করতে পারবে। আমরাও এক সময় রিয়ালের মতো সমস্যায় ছিলাম। এটা প্রথম নয়, (১৯৯৬/৯৭) মৌসুমের প্রথম ম্যাচডে (অ্যাতলেতিকো খেলেছিল) বার্নাব্যুতেই কারণ (স্তাদিও ভিসেন্তে) কালদেরনে তখন সংস্কারের কাজ চলছিল। এটা আগেও হয়েছে, সামনেও হতে পারে। যদি ক্লাবের কোনো সমস্যা না থাকে, সমর্থকদেরও থাকবে না।'

লিগে এখনও ৬ হোম ম্যাচ বাকি রিয়ালের। এইবার, ভ্যালেন্সিয়া, মায়োর্কা, গেটাফে, আলাভেস  ও ভিয়ারিয়ালের বিপক্ষে খেলবে তারা। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ম্যাচে অবশ্য দ্বিতীয় রাউন্ডের ম্যাচে ম্যানচেস্টার সিটির মাঠে খেলবে তারা। ঘরের মাঠে ইংলিশ দলটির কাছে ১-২ গোলের ব্যবধানে হেরেছিল তারা।

Comments

The Daily Star  | English

Fire breaks out at launch in Sadarghat

No passengers were on board the Barishal-bound launch, says fire service official

25m ago