করোনা আপডেট: ফেনী, নোয়াখালী, গাজীপুর, ফরিদপুর, পাবনা

ফেনীর সিভিল সার্জন ও পাবনার পুলিশ সুপারের করোনা শনাক্ত হয়েছে। সিভিল সার্জনসহ ফেনীতে নতুন করে আরও ৪০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। নোয়াখালীতে স্বাস্থ্যকর্মী, পুলিশ ও ব্যাংকারসহ আরও ৭৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। গাজীপুরে এ পর্যন্ত দুই হাজার ১৪৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে ও এর মধ্যে মারা গেছেন ২২ জন। ফরিদপুরে গত ২৪ ঘণ্টায় চিকিৎসক, পুলিশ, আনসারসহ আরও ৫৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। দ্য ডেইলি স্টারের স্থানীয় সংবাদদাতারা এ তথ্য জানিয়েছেন।

ফেনীর সিভিল সার্জন ও পাবনার পুলিশ সুপারের করোনা শনাক্ত হয়েছে। সিভিল সার্জনসহ ফেনীতে নতুন করে আরও ৪০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। নোয়াখালীতে স্বাস্থ্যকর্মী, পুলিশ ও ব্যাংকারসহ আরও ৭৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। গাজীপুরে এ পর্যন্ত দুই হাজার ১৪৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে ও এর মধ্যে মারা গেছেন ২২ জন।  ফরিদপুরে গত ২৪ ঘণ্টায় চিকিৎসক, পুলিশ, আনসারসহ আরও ৫৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। দ্য ডেইলি স্টারের স্থানীয় সংবাদদাতারা এ তথ্য জানিয়েছেন।

ফেনীতে সিভিল সার্জনসহ আরও ৪০ জনের করোনা শনাক্ত

ফেনীতে সিভিল সার্জনসহ নতুন করে আরও ৪০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৪১২ জনে। এর মধ্যে নয় জন মারা গেছেন ও সুস্থ হয়েছেন ১০১ জন। বর্তমানে ১৩ জন ফেনী জেনারেল হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি আছেন, ১০ জনকে অন্যত্র স্থানান্তর করা হয়েছে  এবং বাকিরা স্বাস্থ্য বিভাগের অধীনে হোম আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

জেলার ভারপ্রাপ্ত সিভিল সার্জন মো. রুবায়েত বিন করিম আজ শুক্রবার বিকেলে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, নতুন আক্রান্ত ৪০ জনের মধ্যে সিভিল সার্জনসহ ফেনী সদর উপজেলার ১২ জন, দাগনভূঁঞার ১০ জন, ছাগলনাইয়ার ১৮ জন আছেন।

তিনি আরও জানান, জেলায় এ পর্যন্ত আক্রান্ত ৪১২ জনের মধ্যে ফেনী সদর উপজেলায় ১৫৪ জন, দাগনভূঁঞায় ১০৯ জন, ছাগলনাইয়ায় ৬১ জন, সোনাগাজীতে ৫৫ জন, পরশুরামে ১৬ জন ও ফুলগাজীতে নয় জন রয়েছেন। এ ছাড়া, পার্শ্ববর্তী উপজেলা মিরসরাই, চৌদ্দগ্রাম ও সেনবাগের আছেন আট জন।

নোয়াখালীতে স্বাস্থ্যকর্মী, পুলিশ, ব্যাংকারসহ আরও ৭৩ জনের করোনা শনাক্ত

নোয়াখালীতে স্বাস্থ্যকর্মী, পুলিশ ও ব্যাংকারসহ আরও ৭৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় এ পর্যন্ত এক হাজার ২৪৭ জনের করোনা শনাক্ত হলো। নোয়াখালী সিভিল সার্জন ডা. মো. মোমিনুর রহমান আজ দুপুরে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, নতুন শনাক্তদের মধ্যে সদর উপজেলায় ২৫ জন, বেগমগঞ্জ উপজেলায় ৩০ জন, চাটখিলে সাত জন, সোনাইমুড়ীতে এক জন, কোম্পানীগঞ্জে তিন জন, সুবর্ণচরে তিন জন ও সেনবাগের চার জন আছেন।

সিভিল সার্জন জানান, জেলায় এ পর্যন্ত এক হাজার ২৪৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। তাদের মধ্যে নোয়াখালী সদর উপজেলায় ৩৬৬ জন, বেগমগঞ্জে ৫১১ জন, সুবর্ণচরে ৩৭ জন, হাতিয়ায় নয় জন, সোনাইমুড়ীতে ৬৩ জন, চাটখিলে ৯০ জন, সেনবাগে ৭১ জন, কোম্পানীগঞ্জে ১৭ ও কবিরহাট উপজেলায় ৮৩ জন। এরমধ্যে মারা গেছেন ৩৫ জন।

নোয়াখালী সদর উপজেলা করোনা ফোকাল পার্সন ডা. নিলিমা ইয়াছমিন জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় সদর উপজেলায় নতুন করে ২৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। তাদের মধ্যে নোয়াখালী পুলিশ ট্রেনিং সেন্টারের তিন পুলিশ সদস্য  আছেন।

চাটখিল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের করোনা ফোকাল পার্সন ডা. মো. তামজিদ হোসাইন জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় উপজেলার এক স্বাস্থ্যকর্মী ও দুই ব্যাংক কর্মকর্তাসহ সাত জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

গাজীপুরে কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা ২ হাজার ছাড়িয়েছে

গাজীপুরে এ পর্যন্ত দুই হাজার ১৪৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে ও এর মধ্যে মারা গেছেন ২২ জন। গাজীপুরের সিভিল সার্জন মো. খায়রুজ্জামান আজ এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

সিভিল সার্জন জানান, গাজীপুর সদরে ও মহানগরে আক্রান্তের সংখ্যা এক হাজার ৩৩৭ জন, শ্রীপুরে ২৩৬ জন, কালিয়াকৈরে ২৩০ জন, কালীগঞ্জে ১৯০ জন ও কাপাসিয়ায় ১৫০ জন।

সিভিল সার্জন বলেন, ‘সর্বশেষ পাওয়া রিপোর্ট অনুযায়ী আরও ২৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। নতুন শনাক্তদের মধ্যে কালীগঞ্জে ১০ জন, কালিয়াকৈরে আট জন, শ্রীপুরে ছয় জন ও মহানগর এলাকায় দুই জন আছেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘এ পর্যন্ত গাজীপুরে ১৬ হাজার ৩৯৮ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে কোভিড-১৯ শনাক্ত হয়েছে দুই হাজার ১৪৩ জনের।’

ফরিদপুরে চিকিৎসক, পুলিশ, আনসারসহ আরও ৫৭ জনের করোনা শনাক্ত

ফরিদপুরে গত ২৪ ঘণ্টায় চিকিৎসক, পুলিশ, আনসারসহ আরও ৫৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় এ পর্যন্ত ৭০৮ জনের করোনা শনাক্ত হলো।

ফরিদপুরের সিভিল সার্জন মো. ছিদ্দীকুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, জেলায় এক চিকিৎসক, দুই পুলিশ সদস্য ও দুই আনসার সদস্যের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

তিনি আরও জানান, নতুন শনাক্তদের মধ্যে ভাঙ্গায় ১৯ জন, ফরিদপুর সদরে ১৬ জন, বোয়ালমারীতে ১২ জন, সদরপুরে আট জন, মধুখালী ও চরভদ্রাসনে একজন করে আছেন। আক্রান্তদের মধ্যে ১৯ জন নারী ও ৩৮ জন পুরুষ।

জেলায় এ পর্যন্ত শনাক্ত ৭০৮ জনের মধ্যে ভাঙ্গায় ১৮৪ জন, ফরিদপুর সদরে ১৮০ জন, বোয়ালমারীতে ১১২ জন, সদরপুরে ৫২ জন, চরভদ্রাসনে ৫১ জন, নগরকান্দায় ৪৫ জন, আলফাডাঙ্গায় ৩৮ জন, সালথায় ২৬ জন ও মধুখালীতে ২০ জন আছেন বলেও জানান সিভিল সার্জন।

তিনি বলেন, ‘আক্রান্তদের আপাতত বাড়িতে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হবে। তবে, শারীরিক পরিস্থিতির অবনতি হলে ফরিদপুরের করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে স্থানান্তর করা হবে।’

ফরিদপুরের পুলিশ সুপার মো. আলিমুজ্জামান বলেন, ‘জেলায় নতুন করে যে ৫৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে তাদের প্রত্যেকের বাড়ি বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে।’

পাবনার পুলিশ সুপারের করোনা শনাক্ত

পাবনার পুলিশ সুপার শেখ রফিকুল ইসলামের করোনা শনাক্ত হয়েছে। করোনা পরীক্ষার জন্য সম্প্রতি তিনি ঢাকায় নমুনা দেন। আজ শুক্রবার তার রিপোর্ট পজিটিভ শনাক্ত হয়।

পুলিশ সুপার শেখ রফিকুল ইসলাম নিজেই এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এর আগে জেলার দুই উপপরিদর্শকসহ আরও ১১ পুলিশের করোনা শনাক্ত হয় বলেও তিনি জানান।

পাবনার সিভিল সার্জন ডা. মেহেদী ইকবাল বলেন, ‘পুলিশ সুপার করোনা পজিটিভ হলেও, শারীরিকভাবে সুস্থ আছেন। তিনি নিজ বাংলোতে আইসোলশনে আছেন।’

Comments

The Daily Star  | English

Home minister says it's a planned murder

Three Bangladeshis arrested; police yet to find his body

1h ago