অগাস্টে ফিরছে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ, আট দলের টুর্নামেন্টের আয়োজক লিসবন

পর্তুগালের রাজধানী লিসবনের দুটি স্টেডিয়ামে আয়োজিত হবে আট দলের এক লেগের মিনি টুর্নামেন্ট।

করোনাভাইরাসের ধাক্কা সামলে ফের মাঠে গড়াতে যাচ্ছে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ২০১৯-২০ মৌসুম। আগামী অগাস্টে অনুষ্ঠিত হবে লম্বা সময় ধরে স্থগিত থাকা ইউরোপের সর্বোচ্চ ক্লাব আসরের বাকি অংশ। পর্তুগালের রাজধানী লিসবনের দুটি স্টেডিয়ামে আয়োজিত হবে আট দলের এক লেগের মিনি টুর্নামেন্ট।

বুধবার আনুষ্ঠানিক বিবৃতি দিয়ে নতুন আঙ্গিকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ আয়োজনের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে উয়েফা। সংস্থাটির নির্বাহী কমিটির সভা শেষে এই সিদ্ধান্ত জানানো হয়েছে।

মূলত সময় স্বল্পতার কারণে এবার একই শহরে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে আসরটি। আগামী ১২ অগাস্ট শুরু হয়ে ২৩ অগাস্ট শেষ হবে টুর্নামেন্ট। কোয়ার্টার ফাইনাল ও সেমিফাইনালের ম্যাচগুলো হবে এক লেগের অর্থাৎ দলগুলো কেবল একবার করে একে অপরের মুখোমুখি হবে। থাকছে না কোনো ‘হোম-অ্যাওয়ে’ পদ্ধতি। এই ম্যাচগুলোর ভেন্যু এস্তাদিও দা লুজ ও এস্তাদিও হোসে আলভালাদে।

১২ থেকে ১৫ আগস্ট পর্যন্ত চলবে কোয়ার্টার ফাইনাল। এরপর ১৮ ও ১৯ আগস্ট হবে সেমিফাইনাল। আসরের ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে ২৩ অগাস্ট। ম্যাচটির ভেন্যু পর্তুগালের জনপ্রিয় ক্লাব বেনফিকার মাঠ এস্তাদিও দা লুজ।

এবারের ফাইনালটি গেল ৩০ মে তুরস্কের ইস্তানবুলে হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু মহামারির কারণে তা সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। তবে উয়েফা জানিয়েছে, আগামী মৌসুমের ফাইনালটি হবে ইস্তানবুলে।

এরই মধ্যে চারটি দল- পিএসজি, আতালান্তা, অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ ও আরবি লাইপজিগ কোয়ার্টার ফাইনালে নাম লিখিয়েছে। শেষ ষোলোর অন্য দলগুলোর একটি করে ম্যাচ মাঠে গড়িয়েছে। তাতে চারটি দল ঘরের মাঠে খেলার সুবিধা পেয়েছে। ফিরতি পর্বে রিয়াল মাদ্রিদকে ম্যানচেস্টার সিটির, চেলসিকে বায়ার্ন মিউনিখের, আলিম্পিক লিঁওকে জুভেন্টাসের ও নাপোলিকে বার্সেলোনার আতিথ্য দেওয়ার সূচি রয়েছে।

এই ম্যাচগুলো অনুষ্ঠিত হবে আগামী ৭ ও ৮ অগাস্ট। তবে ভেন্যু এখনও চূড়ান্ত করা হয়নি। উয়েফা জানিয়েছে, পূর্ব নির্ধারিত ভেন্যুতে অথবা পর্তুগালেই ম্যাচগুলো হতে পারে।

বাকি থাকা প্রতিটি ম্যাচই দর্শকশূন্য মাঠে আয়োজনের কথা জানিয়েছেন উয়েফা সভাপতি আলেকসান্দার সেফেরিন। তবে ইউরোপের অধিকাংশ দেশে করোনাভাইরাস পরিস্থিতি ক্রমেই উন্নতির দিকে যাচ্ছে বলে এই সিদ্ধান্ত বদলের সম্ভাবনাও উড়িয়ে দেননি তিনি।

Comments

The Daily Star  | English
earthquake in Bangladesh

Is Bangladesh prepared for a major earthquake?

A 5.5 magnitude earthquake on the Richter scale rattled Bangladesh on the evening of May 29, sending tremors through major cities.

6h ago