পুনর্নির্বাচিত হতে চীনের প্রেসিডেন্টের সাহায্য চেয়েছেন ট্রাম্প

বির্তক যেন ডোনাল্ড ট্রাম্পের পিছু ছাড়তেই চাচ্ছে না। ২০১৬ সালের নির্বাচনে প্রথম প্রেসিডেন্ট হন তিনি। তার জেতার পেছনে রাশিয়ার ‘হাত’ রয়েছে— এমন বিতর্কের অবসান না হতেই চলে এসেছে নতুন নির্বাচন।
Donald Trump and Xi Jinping
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। ছবি: রয়টার্স ফাইল ফটো

বির্তক যেন ডোনাল্ড ট্রাম্পের পিছু ছাড়তেই চাচ্ছে না। ২০১৬ সালের নির্বাচনে প্রথম প্রেসিডেন্ট হন তিনি। তার জেতার পেছনে রাশিয়ার ‘হাত’ রয়েছে— এমন বিতর্কের অবসান না হতেই চলে এসেছে নতুন নির্বাচন।

চলতি বছর যুক্তরাষ্ট্রে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে বিজয়ী হতে চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের কাছে ব্যক্তিগতভাবে সাহায্য চেয়েছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প— এমন দাবি করা হয়েছে সাবেক মার্কিন নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টনের বইয়ে।

বইয়ের একটি কপি গতকাল বুধবার সংবাদমাধ্যম সিএনএন এর হাতে আসার পর আজ এ তথ্য প্রকাশ করেছে মার্কিন সংবাদমাধ্যমটি।

ইন দ্য রুম হোয়ার ইট হ্যাপেন্ড বইয়ে ট্রাম্পের সাবেক নিরাপত্তা উপদেষ্টা আরও লিখেছেন, গতবছর জাপানের ওসাকায় জি২০ শীর্ষ সম্মেলনে চীনের প্রেসিডেন্ট শি যখন উইঘুর মুসলিমদের গণহারে বন্দি শিবিরে নেওয়ার জন্যে অবকাঠামো তৈরির বিষয়টি ট্রাম্পকে জানান তখন ট্রাম্প বলেছিলেন, ‘ঠিক কাজটিই করা হচ্ছে’।

বোল্টনের ভাষ্য, এরপর ট্রাম্প-শির আলোচনা ২০২০ সালে যুক্তরাষ্ট্রে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের দিকে মোড় নেয়।

‘তাদের মধ্যে এ সম্পর্কে ঠিক কী বলা হয়েছিল তা বইয়ে লেখা আছে’ উল্লেখ করে বোল্টন সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘বই প্রকাশ করার আগে পাণ্ডুলিপি রিভিউ কমিটির কাছে জমা দিতে হয়। সেটা এখন কমিটির হাতে আছে।’

‘রিভিউ কমিটি এ বিষয়ে অন্যরকম ভাবছে’ বলেও আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন সাবেক নিরাপত্তা উপদেষ্টা।

গতকাল জাস্টিস ডিপার্টমেন্ট থেকে বোল্টনের বই প্রকাশে সহযোগিতা করতে এক বিচারককে অনুরোধ করা হয়েছে বলেও সিএনএন এর প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

বোল্টনের বইয়ে যে দাবি করা হয়েছে সে সম্পর্কে সিএনএন এর কাছে তাৎক্ষণিক কোনো মন্তব্য করতে রাজি হয়নি স্টেট ডিপার্টমেন্ট।

তবে ট্রাম্প সংবাদমাধ্যম ওয়াল স্ট্রিট জার্নালকে গতকাল বলেছেন, ‘জন বোল্টন মিথ্যবাদী’। তিনি আরও বলেন, ‘হোয়াইট হাউজের সবাই বোল্টনকে ঘৃণা করে।’

এক সাক্ষাৎকারে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ফক্স নিউজকে বলেছেন, ‘(বোল্টন যা বলছে) সেই তথ্যগুলো খুবই গোপনীয়’।

সেসব তথ্য প্রকাশ করার বিষয়ে বোল্টন কোনো অনুমতি নেননিও বলে ফক্স নিউজকে জানিয়েছেন ট্রাম্প।

Comments

The Daily Star  | English
Wealth accumulation: Heaps of stocks expose Matiur’s wrongdoing

Wealth accumulation: Heaps of stocks expose Matiur’s wrongdoing

NBR official Md Matiur Rahman, who has come under the scanner amid controversy over his wealth, has made a big fortune through investments in the stock market, raising questions about the means he applied in the process.

9h ago