শীর্ষ খবর

উখিয়ায় বিজিবির সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৩

কক্সবাজারের উখিয়ার রাজাপালং ইউনিয়নে বিজিবির সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ তিন ‘ইয়াবা চোরাকারবারি’ নিহত হয়েছেন।
Gunfight_New_Logo
স্টার অনলাইন গ্রাফিক্স

কক্সবাজারের উখিয়ার রাজাপালং ইউনিয়নে বিজিবির সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ তিন ‘ইয়াবা চোরাকারবারি’ নিহত হয়েছেন।

নিহতরা হলেন, বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার তমব্রু কোনাপাড়া রোহিঙ্গা শিবিরের মৃত জুলুর মল্লুকের ছেলে নুর আলম (৪৫), কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্পের মো. গোড়া মিয়ার ছেলে মো. হামিদ (২৫) এবং উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের মোঃ সৈয়দ হোসেনের ছেলে নাজির হোসেন (২৫)।

আজ ভোররাত ৩টা ৪৫ মিনিটে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় দুই বিজিবি সদস্য আহত হয়েছেন উল্লেখ করে বিজিবির পক্ষ থেকে জানানো হয়, সেসময় ঘটনাস্থল থেকে তিন লাখ পিস বার্মিজ ইয়াবা, দুটি দেশীয় তৈরি পাইপগান ও পাঁচ রাউন্ড পাইপগানের কার্তুজ উদ্ধার করা হয়েছে।

কক্সবাজার ব্যাটালিয়নের (৩৪ বিজিবি) সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, কয়েকজন ইয়াবা চোরাকারবারি বিপুল সংখ্যক ইয়াবা নিয়ে মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে প্রবেশ করতে পারে এমন সংবাদের ভিত্তিতে কক্সবাজার ব্যাটালিয়নের (৩৪  বিজিবি) অধিনায়ক লে. কর্নেল আলী হায়দার আজাদ আহমেদের নেতৃত্বে তমব্রু বিওপি থেকে ১০ সদস্যের একটি টহল দল উখিয়ার রাজাপালং ইউনিয়নের তুলাতলী জলিলের গোদা ব্রিজের কাছে অবস্থান নেয়।

এতে আরও বলা হয়, ১০/১২ জনের একটি দলকে পাহাড়ি এলাকা দিয়ে বাংলাদেশের দিকে আসতে দেখে তাদেরকে চ্যালেঞ্জ করলে তারা টহল দলকে লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়ে। সে সময় টহল দল তাদের জান-মাল রক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছোঁড়ে।

এক পর্যায়ে অজ্ঞাতনামা ইয়াবা চোরাকারবারিরা পাহাড়ি জঙ্গলের ভিতরে পালিয়ে যায় উল্লেখ করে বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, টহল দল ঘটনাস্থলে অজ্ঞাতনামা তিন ব্যক্তিকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় ও তাদের পাশে ইয়াবা সদৃশ বস্তু এবং দেশীয় তৈরি পাইপগান পড়ে থাকতে দেখে।

আহত ব্যক্তিদের চিকিৎসার জন্য উখিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদেরকে মৃত ঘোষণা করেন বলেও বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়।

Comments

The Daily Star  | English

US sanction on Aziz not under visa policy: foreign minister

Former chief of Bangladesh Army Aziz Ahmed was not sanctioned under the visa policy, instead, the actions were taken under a different law, Foreign Minister Hasan Mahmud said today

19m ago