বন্যা পরিস্থিতির অবনতি

জামালপুরে পানিবন্দি সাড়ে ৩ লাখ মানুষ, অপ্রতুল ত্রাণ

জামালপুরের বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। পানি উন্নয়ন বোর্ড জানায়, বুধবার, বেলা ১২ টা পর্যন্ত দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার বাহাদুরাবাদ ঘাট পয়েন্টে যমুনা নদীর পানি বিপৎসীমার ১২৬ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে।
বন্যার পানিতে ডুবে যাওয়ায় গতকাল মঙ্গলবার থেকে জামালপুর দেওয়ানগঞ্জ রেল স্টেশনের সঙ্গে যোগোযোগ বন্ধ রয়েছে। ছবি: সংগৃহীত

জামালপুরের বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। পানি উন্নয়ন বোর্ড জানায়, বুধবার, বেলা ১২ টা পর্যন্ত দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার বাহাদুরাবাদ ঘাট পয়েন্টে যমুনা নদীর পানি বিপৎসীমার ১২৬ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে।

জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা মো. নায়েব আলী জানান, সাত উপজেলা ও চার পৌরসভার ৩৯টি ইউনিয়নের ৩৪২টি গ্রাম বন্যা কবলিত। পানিবন্দি হয়ে পড়েছে প্রায় ৮১ হাজার পরিবারের সাড়ে ৩ লাখ মানুষ।

তিনি আরও জানান, বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোকে সরকারি ত্রাণ থেকে সহায়তা দেওয়া হচ্ছে। এর বাইরে কেবল বেসরকারি সংস্থা ইসলামিক রিলিফ বাংলাদেশের ‘সুফল’ প্রকল্পের অধীনে ত্রাণ সরবরাহ করা হয়েছে।

দ্বিতীয় দফা বন্যায়, ৮১ হাজার বন্যাকবলিত পরিবারের মধ্যে কেবল ৩১ হাজার পরিবারকে ৩১০ মেট্রিক টন জিআর চাল ও নগদ ১২ দশমিক ৫ লাখ টাকা দেওয়া হয়েছে। নগদ টাকার একটি বড় অংশ শুকনো খাবার কিনতে খরচ হয়েছে।

মো. নায়েব আলী জানান, প্রতিটি পরিবার ১০ কেজি করে চাল পেয়েছেন।

এর বাইরে, আর্থিক স্বচ্ছলতা বিবেচনা করে ৫০ হাজার বন্যাকবলিত পরিবারকে সরকারি ত্রাণ দেওয়া হচ্ছে না।

তবে, স্থানীয় সরকার প্রতিনিধিরা বলেছেন, করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের কারণে আর্থিক সংকটে পড়ায় ওই ৫০ হাজার পরিবারেরও সরকারি ত্রাণ প্রয়োজন।

 

 

 

Comments

The Daily Star  | English

Signal 7 at Payra, Mongla as Cyclone Remal forms over Bay

Cox’s Bazar, Ctg maritime ports asked to hoist Signal 6

2h ago