হোল্ডারকে সরিয়ে টেস্টে অলরাউন্ডারদের র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে স্টোকস

একইসঙ্গে ব্যাটসম্যানদের র‍্যাঙ্কিংয়েও তিনে উঠলেন তিনি, যা তার ক্যারিয়ারের সেরা।
ben stokes and jason holder
ছবি: এএফপি

ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে অনবদ্য নৈপুণ্য দেখানোর স্বীকৃতি পেলেন বেন স্টোকস। ক্যারিবিয়ান অধিনায়ক জেসন হোল্ডারকে টপকে ক্রিকেটের সবচেয়ে কুলীন সংস্করণের অলরাউন্ডারদের র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে উঠলেন ইংল্যান্ডের এই তারকা। একইসঙ্গে ব্যাটসম্যানদের র‍্যাঙ্কিংয়েও তিনে উঠলেন তিনি, যা তার ক্যারিয়ারের সেরা।

মঙ্গলবার অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে বিজ্ঞপ্তি দিয়ে স্টোকসের এক নম্বর জায়গা দখল করার বিষয়টি জানিয়েছে আইসিসি। হোল্ডারের ১৮ মাসের রাজত্বের অবসান ঘটানোর পাশাপাশি ক্যারিয়ারের সর্বোচ্চ ৪৯৭ রেটিং পয়েন্টও অর্জন করেছেন তিনি।

আগের দিন শেষ হওয়া টেস্টে ১১৩ রানের বড় ব্যবধানে জিতে তিন ম্যাচের সিরিজের সমতা টেনেছে স্বাগতিক ইংল্যান্ড। ব্যাটে-বলে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে ম্যাচসেরার পুরস্কার জিতেছেন স্টোকস। প্রথম ইনিংসে ১৭৬ রানের অসাধারণ ইনিংস খেলার পর দ্বিতীয় ইনিংসে ওপেনিং ব্যাটসম্যান হিসেবে মাঠে নামেন তিনি। সফরকারীদের দ্রুত বড় লক্ষ্য ছুঁড়ে দেওয়ার পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করে আগ্রাসী ব্যাটিংয়ে তিনি অপরাজিত থাকেন ৫৭ বলে ৭৮ রানে। পাশাপাশি দুই ইনিংস মিলিয়ে ৫৯ রান দিয়ে তিনি দখল করেন ৩ উইকেট।

১৪ বছর পর ইংল্যান্ডের কোনো ক্রিকেটার হিসেবে অলরাউন্ডারদের র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে উঠেছেন স্টোকস। সবশেষ নজিরটি ছিল অ্যান্ড্রু ফ্লিনটফের। ২০০৬ সালের মে মাসে চূড়ায় উঠেছিলেন তিনি।

স্টোকসের অর্জনের শেষ নয় এখানেই। গেল এক যুগের মধ্যে তার বর্তমান রেটিং পয়েন্টই সর্বোচ্চ। ২০০৮ সালের এপ্রিলে ৫১৭ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষস্থানে ছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার কিংবদন্তি সাবেক অলরাউন্ডার জ্যাক ক্যালিস।

স্টোকস ও হোল্ডারের মধ্যে রেটিং পয়েন্টের ব্যবধান এখন ৩৮। অথচ ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টের আগে ৫৪ পয়েন্টের ব্যবধানে পিছিয়ে ছিলেন ২৯ বছর বয়সী ইংলিশ তারকা। তার নামের পাশে যোগ হয়েছে ৬৬ পয়েন্ট। অন্যদিকে, হোল্ডারের কমেছে ২৬ পয়েন্ট।

৮২৭ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে অস্ট্রেলিয়ার মারনাস লাবুশেনের সঙ্গে যৌথভাবে তৃতীয় স্থানে আছেন স্টোকস। ব্যাটসম্যানদের র‍্যাঙ্কিংয়ে তিনি এগিয়েছেন ছয় ধাপ। বোলারদের র‍্যাঙ্কিংয়ে অবশ্য আগের ২৩তম স্থানেই রয়েছেন তিনি।

আগের টেস্টের একাদশে জায়গা না পাওয়া স্টুয়ার্ট ব্রড ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ফিরে দুই ইনিংসে ৬ উইকেট নিয়েছেন। তাতে চার ধাপ এগিয়ে বোলারদের র‍্যাঙ্কিংয়ের সেরা দশে ঢুকেছেন তিনি। র‍্যাঙ্কিংয়ে ইংল্যান্ডের সেরা বোলার এখন দশম স্থানে থাকা এই পেসার। বিশ্রাম পাওয়া জেমস অ্যান্ডারসন এক ধাপ পিছিয়ে নেমে গেছেন ১১ নম্বরে।

ম্যানচেস্টারে দুই ইনিংস মিলিয়ে মাত্র ১ উইকেট পাওয়ায় অলরাউন্ডার র‍্যাঙ্কিংয়ের মতো বোলারদের র‍্যাঙ্কিংয়েও পিছিয়ে গেছেন হোল্ডার। দুই থেকে তিনে নেমে গেছেন তিনি।

টেস্টে ব্যাটসম্যানদের র‍্যাঙ্কিংয়ে আগের মতোই সবার উপরে রয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার স্টিভ স্মিথ। বোলারদের তালিকার শীর্ষস্থান দখলে রেখেছেন তার স্বদেশি প্যাট কামিন্স।

Comments

The Daily Star  | English

Economy with deep scars limps along

Business and industrial activities resumed yesterday amid a semblance of normalcy after a spasm of violence, internet outage and a curfew left deep wounds on almost all corners of the economy.

1h ago