করোনাভাইরাস

মৃত্যু ৬ লাখ ৩৮ হাজার, আক্রান্ত ১ কোটি সাড়ে ৫৬ লাখের বেশি

বিশ্বব্যাপী প্রতিনিয়ত মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বাড়ছে। ইতোমধ্যে ছয় লাখ ৩৮ হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন এক কোটি সাড়ে ৫৬ লাখের বেশি। এ ছাড়া, সুস্থও হয়েছেন প্রায় ৯০ লাখ মানুষ।
ভারতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া সেন্ট্রাল রিজার্ভ পুলিশ ফোর্সের সদস্যের মরদেহ নিয়ে যাচ্ছেন স্বাস্থ্যকর্মীরা। ১৮ জুলাই ২০২০। ছবি: রয়টার্স

বিশ্বব্যাপী প্রতিনিয়ত মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বাড়ছে। ইতোমধ্যে ছয় লাখ ৩৮ হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন এক কোটি সাড়ে ৫৬ লাখের বেশি। এ ছাড়া, সুস্থও হয়েছেন প্রায় ৯০ লাখ মানুষ।

আজ শনিবার জনস হপকিনস ইউনিভার্সিটির করোনাভাইরাস রিসোর্স সেন্টার এ তথ্য জানিয়েছে।

জনস হপকিনস ইউনিভার্সিটির সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন এক কোটি ৫৬ লাখ ৭৬ হাজার ৬০৪ জন এবং মারা গেছেন ছয় লাখ ৩৮ হাজার ৫৭৭ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন ৮৯ লাখ ৮৬ হাজার ৪৭০ জন।

করোনাভাইরাসে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃত্যু যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছেন ৪১ লাখ ১১ হাজার ৯৫০ জন এবং মারা গেছেন এক লাখ ৪৫ হাজার ৫৩৯ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন ১২ লাখ ৬১ হাজার ৬২৪ জন।

যুক্তরাষ্ট্রের পর সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃত্যু দক্ষিণ আমেরিকার দেশ ব্রাজিলে। দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছেন ২২ লাখ ৮৭ হাজার ৪৭৫ জন, মারা গেছেন ৮৫ হাজার ২৩৮ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১৬ লাখ ৯৩ হাজার ২১৪ জন।

মৃত্যুর সংখ্যার দিক থেকে তৃতীয়তে রয়েছে যুক্তরাজ্য। দেশটিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত ৪৫ হাজার ৭৬২ জন মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন দুই লাখ ৯৯ হাজার ৫০০ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৪২৫ জন।

প্রতিবেশী দেশ ভারতে আক্রান্ত হয়েছেন ১২ লাখ ৮৮ হাজার ১০৮ জন, মারা গেছেন ৩০ হাজার ৬০১ জন এবং সুস্থ হয়েছেন আট লাখ ১৭ হাজার ২০৯ জন।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ছে রাশিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, মেক্সিকোতে, পেরু ও চিলিতেও। রাশিয়ায় এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন সাত লাখ ৯৯ হাজার ৪৯৯ জন, মারা গেছেন ১৩ হাজার ২৬ জন এবং সুস্থ হয়েছেন পাঁচ লাখ ৮৭ হাজার ৭২৮ জন। দক্ষিণ আফ্রিকায় এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন চার লাখ ২১ হাজার ৯৯৬ জন, মারা গেছেন ছয় হাজার ৩৪৩ জন এবং সুস্থ হয়েছেন দুই লাখ ৪৫ হাজার ৭৭১ জন। মেক্সিকোতে আক্রান্ত হয়েছেন তিন লাখ ৭৮ হাজার ২৮৫ জন, মারা গেছেন ৪২ হাজার ৬৪৫ জন এবং সুস্থ হয়েছেন দুই লাখ ৮৩ হাজার ৩৮২ জন।

পেরুতে আক্রান্ত হয়েছেন তিন লাখ ৭৫ হাজার ৯৬১ জন, মারা গেছেন ১৭ হাজার ৮৪৩ জন এবং সুস্থ হয়েছেন দুই লাখ ৫৯ হাজার ৪২৩ জন। চিলিতে আক্রান্ত হয়েছেন তিন লাখ ৪১ হাজার ৩০৪ জন, মারা গেছেন আট হাজার ৯১৪ জন এবং সুস্থ হয়েছেন তিন লাখ ১৩ হাজার ৬৯৬ জন।

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ইরানে আক্রান্ত হয়েছেন দুই লাখ ৮৬ হাজার ৫২৩ জন, মারা গেছেন ১৫ হাজার ২৮৯ জন এবং সুস্থ হয়েছেন দুই লাখ ৪৯ হাজার ২১২ জন। তুরস্কে আক্রান্ত হয়েছেন দুই লাখ ২৪ হাজার ২৫২ জন, মারা গেছেন পাঁচ হাজার ৫৮০ জন এবং সুস্থ হয়েছেন দুই লাখ সাত হাজার ৩৭৪ জন।

ইউরোপের দেশ স্পেনে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন দুই লাখ ৭২ হাজার ৪২১ জন, মারা গেছেন ২৮ হাজার ৪৩২ জন এবং সুস্থ হয়েছেন এক লাখ ৫০ হাজার ৩৭৬ জন। ইতালিতে আক্রান্ত হয়েছেন দুই লাখ ৪৫ হাজার ৫৯০ জন, মারা গেছেন ৩৫ হাজার ৯৭ জন এবং সুস্থ হয়েছেন এক লাখ ৯৮ হাজার ১৯২ জন। ফ্রান্সে আক্রান্ত হয়েছেন দুই লাখ ১৭ হাজার ৭৯৭ জন, মারা গেছেন ৩০ হাজার ১৯৫ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৮০ হাজার ৯৪৩ জন। জার্মানিতে আক্রান্ত হয়েছেন দুই লাখ পাঁচ হাজার ৬২৩ জন, মারা গেছেন নয় হাজার ১২০ জন এবং সুস্থ হয়েছেন এক লাখ ৮৯ হাজার ৬৯৬ জন।

ভাইরাসটির সংক্রমণস্থল চীনে আক্রান্ত হয়েছেন ৮৬ হাজার ২০২ জন, মারা গেছেন ৪ হাজার ৬৫০ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৮০ হাজার ৩৪১ জন।

উল্লেখ্য, গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)। প্রতিষ্ঠানটির সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, দেশে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত দুই লাখ ১৮ হাজার ৬৫৮ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। মারা গেছেন দুই হাজার ৮৩৬ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন এক লাখ ২০ হাজার ৯৭৬ জন।

Comments

The Daily Star  | English
Depositors money in merged banks

Depositors’ money in merged banks will remain completely safe: BB

Accountholders of merged banks will be able to maintain their respective accounts as before

3h ago