করোনাভাইরাস

মৃত্যু ৬ লাখ ৫৪ হাজার, আক্রান্ত ১ কোটি সাড়ে ৬৪ লাখের বেশি

বিশ্বব্যাপী প্রতিনিয়ত মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বাড়ছে। ইতোমধ্যে ছয় লাখ ৫৪ হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন এক কোটি সাড়ে ৬৪ লাখের বেশি। এ ছাড়া, সুস্থও হয়েছেন সাড়ে ৯৫ লাখের বেশি মানুষ।
ভারতে নিরাপদ পোশাক পরে করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ করছেন এক স্বাস্থ্যকর্মী। ২৭ জুলাই ২০২০। ছবি: রয়টার্স

বিশ্বব্যাপী প্রতিনিয়ত মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বাড়ছে। ইতোমধ্যে ছয় লাখ ৫৪ হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন এক কোটি সাড়ে ৬৪ লাখের বেশি। এ ছাড়া, সুস্থও হয়েছেন সাড়ে ৯৫ লাখের বেশি মানুষ।

আজ মঙ্গলবার জনস হপকিনস ইউনিভার্সিটির করোনাভাইরাস রিসোর্স সেন্টার এ তথ্য জানিয়েছে।

জনস হপকিনস ইউনিভার্সিটির সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন এক কোটি ৬৪ লাখ ৭১ হাজার ৫৭০ জন এবং মারা গেছেন ছয় লাখ ৫৪ হাজার ৫২ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন ৯৫ লাখ ৭২ হাজার ৬১৯ জন।

করোনাভাইরাসে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃত্যু যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছেন ৪২ লাখ ৯০ হাজার ২৫৯ জন এবং মারা গেছেন এক লাখ ৪৮ হাজার ২০৩ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন ১৩ লাখ ২৫ হাজার ৮০৪ জন।

যুক্তরাষ্ট্রের পর সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃত্যু দক্ষিণ আমেরিকার দেশ ব্রাজিলে। দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছেন ২৪ লাখ ৪২ হাজার ৩৭৫ জন, মারা গেছেন ৮৭ হাজার ৬১৮ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১৮ লাখ ৪৬ হাজার ৬৪১ জন।

মৃত্যুর সংখ্যার দিক থেকে তৃতীয়তে রয়েছে যুক্তরাজ্য। দেশটিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত ৪৫ হাজার ৮৪৪ জন মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন তিন লাখ এক হাজার ৭০৮ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৪৩৭ জন।

প্রতিবেশী দেশ ভারতে আক্রান্ত হয়েছেন ১৪ লাখ ৮০ হাজার ৭৩ জন, মারা গেছেন ৩৩ হাজার ৪০৮ জন এবং সুস্থ হয়েছেন নয় লাখ ৫১ হাজার ১৬৬ জন।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ছে রাশিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, মেক্সিকোতে, পেরু ও চিলিতেও। রাশিয়ায় এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন আট লাখ ১৬ হাজার ৬৮০ জন, মারা গেছেন ১৩ হাজার ৩৩৪ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ছয় লাখ দুই হাজার ২৪৯ জন। দক্ষিণ আফ্রিকায় এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন চার লাখ ৫২ হাজার ৫২৯ জন, মারা গেছেন সাত হাজার ৬৭ জন এবং সুস্থ হয়েছেন দুই লাখ ৭৪ হাজার ৯২৫ জন। মেক্সিকোতে আক্রান্ত হয়েছেন তিন লাখ ৯৫ হাজার ৪৮৯ জন, মারা গেছেন ৪৪ হাজার ২২ জন এবং সুস্থ হয়েছেন তিন লাখ তিন হাজার ৮১০ জন।

পেরুতে আক্রান্ত হয়েছেন তিন লাখ ৮৯ হাজার ৭১৭ জন, মারা গেছেন ১৮ হাজার ৪১৮ জন এবং সুস্থ হয়েছেন দুই লাখ ৭২ হাজার ৫৪৭ জন। চিলিতে আক্রান্ত হয়েছেন তিন লাখ ৪৭ হাজার ৯২৩ জন, মারা গেছেন নয় হাজার ১৮৭ জন এবং সুস্থ হয়েছেন তিন লাখ ১৯ হাজার ৯৫৪ জন।

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ইরানে আক্রান্ত হয়েছেন দুই লাখ ৯৩ হাজার ৬০৬ জন, মারা গেছেন ১৫ হাজার ৯১২ জন এবং সুস্থ হয়েছেন দুই লাখ ৫৫ হাজার ১৪৪ জন। তুরস্কে আক্রান্ত হয়েছেন দুই লাখ ২৭ হাজার ১৯ জন, মারা গেছেন পাঁচ হাজার ৬৩০ জন এবং সুস্থ হয়েছেন দুই লাখ ১০ হাজার ৪৬৯ জন।

ইউরোপের দেশ স্পেনে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন দুই লাখ ৭২ হাজার ৪২১ জন, মারা গেছেন ২৮ হাজার ৪৩২ জন এবং সুস্থ হয়েছেন এক লাখ ৫০ হাজার ৩৭৬ জন। ইতালিতে আক্রান্ত হয়েছেন দুই লাখ ৪৬ হাজার ২৮৬ জন, মারা গেছেন ৩৫ হাজার ১১২ জন এবং সুস্থ হয়েছেন এক লাখ ৯৮ হাজার ৫৯৩ জন। ফ্রান্সে আক্রান্ত হয়েছেন দুই লাখ ২০ হাজার ৩৫২ জন, মারা গেছেন ৩০ হাজার ২১২ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৮১ হাজার ২১২ জন। জার্মানিতে আক্রান্ত হয়েছেন দুই লাখ সাত হাজার ১১২ জন, মারা গেছেন নয় হাজার ১২৫ জন এবং সুস্থ হয়েছেন এক লাখ ৯০ হাজার ৩১৪ জন।

ভাইরাসটির সংক্রমণস্থল চীনে আক্রান্ত হয়েছেন ৮৬ হাজার ৭৮৩ জন, মারা গেছেন ৪ হাজার ৬৫৬ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৮০ হাজার ৪৬৬ জন।

উল্লেখ্য, গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)। প্রতিষ্ঠানটির সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, দেশে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত দুই লাখ ২৬ হাজার ২২৫ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। মারা গেছেন দুই হাজার ৯৬৫ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন এক লাখ ২৫ হাজার ৬৮৩ জন।

Comments

The Daily Star  | English

‘Will implement Teesta project with help from India’

Prime Minister Sheikh Hasina has said her government will implement the Teesta project with assistance from India and it has got assurances from the neighbouring country in this regard.

5h ago