যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত সেই ‘চুয়াডাঙ্গা ডিলাক্স’ বাসচালকের মৃত্যু

মানিকগঞ্জে চুয়াডাঙ্গা ডিলাক্স পরিবহনের সঙ্গে মাইক্রোবাসের সংঘর্ষে চিত্র পরিচালক তারেক মাসুদ ও মিশুক মনিরসহ পাঁচ জন নিহতের ঘটনায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত বাস চালক জামির হোসেন (৬০) হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।
chuadanga.jpg
স্টার অনলাইন গ্রাফিক্স

মানিকগঞ্জে চুয়াডাঙ্গা ডিলাক্স পরিবহনের সঙ্গে মাইক্রোবাসের সংঘর্ষে চিত্র পরিচালক তারেক মাসুদ ও মিশুক মনিরসহ পাঁচ জন নিহতের ঘটনায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত বাস চালক জামির হোসেন (৬০) হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।

গতকাল শনিবার সকালে ঢাকার হৃদরোগ ইনস্টিটিউটে তিনি মারা যান।

পারিবারিক সূত্র দ্য ডেইলি স্টারকে জানায়, জামির হোসেন কাশিমপুরে কেন্দ্রীয় কারাগারে থাকা অবস্থায় শুক্রবার হৃদরোগে আক্রান্ত হন। গুরুতর অবস্থায় সেদিনই তাকে কারাগার থেকে ঢাকার জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউটে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঈদের দিন সকালে তিনি মারা যান।

আজ তার মরদেহ চুয়াডাঙ্গা সদরে গ্রামের বাড়িতে নেওয়া হয়েছে।

সূত্র আরও জানায়, ‘দক্ষ চালক’ হিসেবে পরিচিত জামির হোসেন দীর্ঘদিন চুয়াডাঙ্গা ডিলাক্স পরিবহনের মেহেরপুর-ঢাকা কোচের চালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন।

২০১১ সালের ১৩ আগস্ট ঢাকা-পাটুরিয়া সড়কের মানিকগঞ্জ ঘিওরে চুয়াডাঙ্গা ডিলাক্স পরিবহনের সঙ্গে মাইক্রোবাসের সংঘর্ষে ঘটনাস্থলে খ্যাতিমান চিত্র পরিচালক তারেক মাসুদ ও মিশুক মনিরসহ মোট পাঁচ জন নিহত হন। জামির ছিলেন ওই বাসের চালক।

এ ঘটনায় মামলা হলে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। মামলার বিচারে চালক জামির হোসেনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডসহ পরিবহন সংস্থাকে মোটা অংকের অর্থ জরিমানা হয়।

Comments

The Daily Star  | English

Recovering MP Azim’s body almost impossible: DB chief

Killers disfigured the body so much that it would be tough to identify those as human flesh

1h ago