করোনাভাইরাস

মৃত্যু ৭ লাখ ৩০ হাজার, আক্রান্ত প্রায় ১ কোটি ৯৮ লাখ

বিশ্বব্যাপী প্রতিনিয়ত মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বাড়ছে। ইতোমধ্যে সাত লাখ ৩০ হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় এক কোটি ৯৮ লাখ। এ ছাড়া, সুস্থও হয়েছেন প্রায় এক কোটি সাড়ে ২০ লাখের বেশি মানুষ।
জার্মানিতে ভ্রমণকারীদের করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ করা হচ্ছে। ৭ আগস্ট ২০২০। ছবি: রয়টার্স

বিশ্বব্যাপী প্রতিনিয়ত মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বাড়ছে। ইতোমধ্যে সাত লাখ ৩০ হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় এক কোটি ৯৮ লাখ। এ ছাড়া, সুস্থও হয়েছেন প্রায় এক কোটি সাড়ে ২০ লাখের বেশি মানুষ।

আজ সোমবার জনস হপকিনস ইউনিভার্সিটির করোনাভাইরাস রিসোর্স সেন্টার এ তথ্য জানিয়েছে।

জনস হপকিনস ইউনিভার্সিটির সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন এক কোটি ৯৭ লাখ ৯২ হাজার ৫১৯ জন এবং মারা গেছেন সাত লাখ ৩০ হাজার ৮৯ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন এক কোটি ২০ লাখ ৬০ হাজার ৮৭৭ জন।

করোনাভাইরাসে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃত্যু যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছেন ৫০ লাখ ৪৪ হাজার ৮২১ জন এবং মারা গেছেন এক লাখ ৬২ হাজার ৯৩৮ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন ১৬ লাখ ৫৬ হাজার ৮৬৪ জন।

যুক্তরাষ্ট্রের পর সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃত্যু দক্ষিণ আমেরিকার দেশ ব্রাজিলে। দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছেন ৩০ লাখ ৩৫ হাজার ৪২২ জন, মারা গেছেন এক লাখ এক হাজার ৪৯ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ২৩ লাখ ৫৬ হাজার ৯৮৩ জন।

মৃত্যুর সংখ্যার দিক থেকে তৃতীয়তে রয়েছে মেক্সিকো। দেশটিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত ৫২ হাজার ২৯৮ জন মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন চার লাখ ৮০ হাজার ২৭৮ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন তিন লাখ ৮৪ হাজার ৪৩২ জন।

মৃত্যুর সংখ্যার দিক থেকে চতুর্থতে থাকা যুক্তরাজ্যে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত ৪৬ হাজার ৬৫৯ জন মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন তিন লাখ ১২ হাজার ৫৭৪ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৪৫১ জন।

প্রতিবেশী দেশ ভারতে আক্রান্ত হয়েছেন ২১ লাখ ৫৩ হাজার ১০ জন, মারা গেছেন ৪৩ হাজার ৩৭৯ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১৪ লাখ ৮০ হাজার ৮৮৪ জন।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ছে রাশিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, পেরু ও চিলিতেও। রাশিয়ায় এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন আট লাখ ৮৫ হাজার ৭১৮ জন, মারা গেছেন ১৪ হাজার ৯০৩ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ছয় লাখ ৯২ হাজার ৫৯ জন। দক্ষিণ আফ্রিকায় এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন পাঁচ লাখ ৫৯ হাজার ৮৫৯ জন, মারা গেছেন ১০ হাজার ৪০৮ জন এবং সুস্থ হয়েছেন চার লাখ ১১ হাজার ৪৭৪ জন।

পেরুতে আক্রান্ত হয়েছেন চার লাখ ৭১ হাজার ১২ জন, মারা গেছেন ২০ হাজার ৮৪৪ জন এবং সুস্থ হয়েছেন তিন লাখ ২৪ হাজার ২০ জন। চিলিতে আক্রান্ত হয়েছেন তিন লাখ ৭৩ হাজার ৫৬ জন, মারা গেছেন ১০ হাজার ৭৭ জন এবং সুস্থ হয়েছেন তিন লাখ ৪৫ হাজার ৮২৬ জন।

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ইরানে আক্রান্ত হয়েছেন তিন লাখ ২৬ হাজার ৭১২ জন, মারা গেছেন ১৮ হাজার ৪২৭ জন এবং সুস্থ হয়েছেন দুই লাখ ৮৪ হাজার ৩৭১ জন। তুরস্কে আক্রান্ত হয়েছেন দুই লাখ ৪০ হাজার ৮০৪ জন, মারা গেছেন পাঁচ হাজার ৮৪৪ জন এবং সুস্থ হয়েছেন দুই লাখ ২৩ হাজার ৭৫৯ জন।

ইউরোপের দেশ স্পেনে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন তিন লাখ ১৪ হাজার ৩৬২ জন, মারা গেছেন ২৮ হাজার ৫০৩ জন এবং সুস্থ হয়েছেন এক লাখ ৫০ হাজার ৩৭৬ জন। ইতালিতে আক্রান্ত হয়েছেন দুই লাখ ৫০ হাজার ৫৬৬ জন, মারা গেছেন ৩৫ হাজার ২০৫ জন এবং সুস্থ হয়েছেন দুই লাখ দুই হাজার ৯৮ জন। ফ্রান্সে আক্রান্ত হয়েছেন দুই লাখ ৩৫ হাজার ২৩৭ জন, মারা গেছেন ৩০ হাজার ৩২৭ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৮২ হাজার ৯৭১ জন। জার্মানিতে আক্রান্ত হয়েছেন দুই লাখ ১৭ হাজার ২৮৮ জন, মারা গেছেন নয় হাজার ২০২ জন এবং সুস্থ হয়েছেন এক লাখ ৯৬ হাজার ৭৮৩ জন।

ভাইরাসটির সংক্রমণস্থল চীনে আক্রান্ত হয়েছেন ৮৮ হাজার ৭৯৩ জন, মারা গেছেন ৪ হাজার ৬৮৬ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৮২ হাজার ১২৫ জন।

উল্লেখ্য, গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)। প্রতিষ্ঠানটির সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, দেশে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত দুই লাখ ৫৭ হাজার ৬০০ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। মারা গেছেন তিন হাজার ৩৯৯ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন এক লাখ ৪৮ হাজার ৩৭০ জন।

Comments

The Daily Star  | English

15pc VAT on Metro Rail: Quader requests PM to reconsider NBR’s decision

Dhaka is one of the most unliveable cities in the world, which does not go hand-in-hand with the progress made by the country, says road transport and bridges minister

Now