শীর্ষ খবর
করোনার প্রভাব

প্রায় ৫ মাস পর মধ্যপাড়া পাথর খনির উৎপাদন শুরু

দেশে কোভিড-১৯ সংক্রমণের কারণে ১৪০ দিন বন্ধ থাকার পর মধ্যপাড়া গ্রানাইট মাইনিং কোম্পানি লিমিটেডের (এমজিএমসিএল) উৎপাদন আবার শুরু হয়েছে।
দেশে করোনা সংক্রমণের কারণে দিনাজপুরের পার্বতীপুর উপজেলায় মধ্যপাড়া গ্রানাইট মাইনিং কোম্পানি লিমিটেডের (এমজিএমসিএল) উৎপাদন বন্ধ থাকার পর আবার শুরু হয়েছে। ছবি: স্টার

দেশে কোভিড-১৯ সংক্রমণের কারণে ১৪০ দিন বন্ধ থাকার পর মধ্যপাড়া গ্রানাইট মাইনিং কোম্পানি লিমিটেডের (এমজিএমসিএল) উৎপাদন আবার শুরু হয়েছে।

দিনাজপুরের পার্বতীপুর উপজেলায় পেট্রোবাংলার কোম্পানি এমজিএমসিএলের কর্মকর্তারা গতকাল শনিবার রাতে দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘খনি কার্যক্রম পুনরায় শুরু হওয়ায় গত ২৪ ঘণ্টায় প্রায় ২৬১ মেট্রিক টন পাথর উৎপাদন করা হয়েছে।’

গত রাত পর্যন্ত উৎপাদন প্রায় ৬০০ টন ছিল বলেও জানান তিনি।

এমজিএমসিএলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবিএম কামরুজ্জামান ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘বৃহস্পতিবার থেকে আমরা পরীক্ষামূলকভাবে খনির উৎপাদন শুরু করেছে। তিন শিফট চালিয়ে পূর্ণ গতির উৎপাদন শুরু করতে আরও এক মাস বেশি সময় লাগবে।’

খনির ৮০০ শ্রমিকের মধ্যে ১৬০ জন উৎপাদনে যোগ দিয়েছেন উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, ‘খনি শ্রমিকদের কোভিড-১৯ পরীক্ষা চলছে। এটি একটি দীর্ঘ প্রক্রিয়া।’

সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা ডেইলি স্টারকে জানান, শ্রমিকদের কোভিড-১৯ পরীক্ষার রিপোর্ট হাতে আসার পর আরও ১৫০ স্থানীয় খনি শ্রমিক কাজে যোগ দিতে পারবেন।

খনির চুক্তিবদ্ধ কোম্পানি জিটিসি ৮০০ স্থানীয় শ্রমিক নিয়োগ করেছে। তারা গত ৮ আগস্ট কাজে ফিরে আসেন। উৎপাদন স্থগিত থাকার কারণে খনি শ্রমিকদের বেতন দেওয়া হয়নি।

জিটিসি ও এমজিএমসিএলের কর্মকর্তারা জানান, তিনটি শিফটে সাড়ে পাঁচ হাজার টন পাথর উৎপাদন করা সম্ভব।

মার্চ মাসে প্রায় সাড়ে সাত লাখ মেট্রিক টন পাথর উঠানো ছিল। এমজিএমসিএল এখন পর্যন্ত প্রায় সাড়ে ছয় লাখ মেট্রিক টন পাথর বিক্রি করেছে। উঠানো পাথরের মজুদ এখন প্রায় এক লাখ মেট্রিক টন।

Comments

The Daily Star  | English
Illustration showing man stealing data

Government mishandling of personal data: Where does it end?

Are these incidents of data breach and data leaks not contradictory to the very image of the smart, digital, developed Bangladesh that they are desperately trying to portray or advertise?

1h ago