শীর্ষ খবর

চীনা ভ্যাকসিন ট্রায়ালের অনুমোদন দিলো সরকার

চীনা কোম্পানি সিনোভ্যাকের তৈরি করা ভ্যাকসিনের তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল বাংলাদেশে করার অনুমোদন দিয়েছে সরকার। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে সচিবালয়ের সভাকক্ষে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক এ কথা জানিয়েছেন।
স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। ফাইল ছবি

চীনা কোম্পানি সিনোভ্যাকের তৈরি করা ভ্যাকসিনের তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল বাংলাদেশে করার অনুমোদন দিয়েছে সরকার। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে সচিবালয়ের সভাকক্ষে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক এ কথা জানিয়েছেন।

এর আগে তিনি বলেছিলেন, চীনের কাছ থেকে করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন কেনা ও বাংলাদেশে পরীক্ষামূলক প্রয়োগ করতে দেওয়া হবে কি না সে বিষয়ে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

এদিন আইসিডিডিআর,বি ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। গত ২২ জুলাই ঢাকায় চীন দূতাবাসের ডেপুটি হেড ইয়ান হুয়ালং জানিয়েছিলেন, ভ্যাকসিনের তৃতীয় এবং শেষ পর্যায়ের ট্রায়ালে বাংলাদেশে প্রথম স্বেচ্ছাসেবক হবেন বাংলাদেশে নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত লি জিমিং।

স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব মো. আবদুল মান্নান গত ৪ আগস্ট জানিয়েছিলেন, ‘চীনের সিনোভ্যাক কোম্পানির ভ্যাকসিন পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে সন্তোষজনক ফলাফল পাওয়া গেলে বাংলাদেশের স্বাস্থ্যকর্মীদের ওপর প্রয়োগের জন্য অনুমোদন দেওয়া হবে।’

গত ১৯ জুলাই চীনা কোম্পানির তৈরি করা কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনের তৃতীয় পর্যায়ের হিউম্যান ট্রায়াল পরিচালনার জন্য আইসিডিডিআর,বিকে অনুমোদন দেয় বাংলাদেশ মেডিকেল রিসার্চ সেন্টার (বিএমআরসি)।

ওই দিন বিএমআরসি’র পরিচালক ডা. মাহমুদ-উজ-জাহান বলেন, ‘প্রায় এক মাস আগে, আইসিডিডিআর,বি কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনের তৃতীয় পর্যায়ের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল পরিচালনা করার অনুমতি চেয়ে বিএমআরসির কাছে আবেদন করেছিল। সে আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে অনুমোদন পাওয়া গেছে।’

আইসিডিডিআর,বি ও চীনের ভ্যাকসিন উদ্ভাবক কোম্পানি যৌথভাবে ট্রায়াল পরিচালনা করবে। তৃতীয় পর্যায়ের ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের অর্থ হলো ভ্যাকসিনটি চূড়ান্ত স্তরে আছে। এখন মানবদেহে প্রয়োগ করে এর কার্যকারিতা ও সুরক্ষার বিষয়টি দেখা হবে।

মুগদা জেনারেল হাসপাতালের দুটি ইউনিট (ইউনিট ১ ও ২), ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল, হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, কুয়েত বাংলাদেশ মৈত্রী সরকারি হাসপাতাল এবং মহানগর জেনারেল হাসপাতালে ভ্যাকসিনের ট্রায়াল চলবে।

এর আগে ১৭ জুন আইসিডিডিআর,বি অ্যান্টিবায়োটিক ডক্সিসাইক্লিন বা ইভারমেকটিনের সংমিশ্রণে অ্যান্টি-প্যারাসিটিক ওষুধ আইভারমেকটিনের সুরক্ষা ও কার্যকারিতা মূল্যায়নের জন্য র‌্যান্ডমাইজ, ডাবল-ব্লাইন্ড, প্লেসিবো-নিয়ন্ত্রিত ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল শুরু করে।



আরও পড়ুন:

চীনের ভ্যাকসিনের ফল সন্তোষজনক হলে স্বাস্থ্যকর্মীদের ওপর প্রয়োগ: স্বাস্থ্য সচিব

‘প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করে ভ্যাকসিন আনার বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে’

ভ্যাকসিন পাওয়ার ক্ষেত্রে আমরা পিছিয়ে গেলাম: অধ্যাপক ডা. নজরুল ইসলাম

Comments

The Daily Star  | English

MV Abdullah passing through high-risk piracy area

Precautionary safety measures in place, Italian Navy frigate escorting it

44m ago