চোখে চশমা না থাকায় ভুল একাদশ নামালেন ইতালিয়ান কোচ

মাঠে নামার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন জিয়র্জিও কিয়েলিনি। বসনিয়া ও হার্জেগোভিনার বিপক্ষে নেশন্স লিগের অভিষেক ম্যাচে খেলছেন এমনটা আগেই জেনেছিলেন তিনি। এমনটা জানতেন স্থানীয় সাংবাদিকরাও। কিন্তু মাঠে দেখা যায় কিয়েলিনির জায়গায় খেলতে নেমেছেন ফ্রান্সিস্কো আকের্বি। হঠাৎ করে এ পরিবর্তনের কারণ কি?
ছবি: রয়টার্স

মাঠে নামার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন জিয়র্জিও কিয়েলিনি। বসনিয়া ও হার্জেগোভিনার বিপক্ষে নেশন্স লিগের অভিষেক ম্যাচে খেলছেন তা আগেই জেনেছিলেন তিনি। এমনটা জানতেন স্থানীয় সাংবাদিকরাও। কিন্তু মাঠে দেখা যায় কিয়েলিনির জায়গায় খেলতে নেমেছেন ফ্রান্সিস্কো আকের্বি। হঠাৎ করে এ পরিবর্তনের কারণ কি?

বিস্ময়কর হলেও সত্যি, ইতালিয়ান কোচ রবার্তো মানচিনির চোখে চশমা না থাকায় এমনটা হয়েছে। খালি চোখে কোচ ঠিকভাবে একাদশ দেখতে পারেননি বলেই এমন বড় ভুল হয়েছে তাদের।

আগের দিন বসনিয়ার বিপক্ষে মাঠে নামার আগে টানা ১১ ম্যাচ জয়ের অসাধারণ এ রেকর্ড নেশন্স লিগ মিশন শুরু করেছিল ইতালি। প্রতিপক্ষ অপেক্ষাকৃত দুর্বল বসনিয়া ও হার্জেগোভিনা। কিন্তু এ ম্যাচে তাদের জয়রথ থামিয়ে দিয়েছে দক্ষিণ-পূর্ব ইউরোপের দেশটি। ১-১ গোলে ড্র হয় ম্যাচটি।

ম্যাচের ৫৭তম মিনিটে নিজেদের সেরা তারকা এদেন জেকোর গোলে এগিয়ে যায় বসনিয়া। অনেকেই এতে ইতালিয়ান ডিফেন্ডারদের ভুল দেখছেন তারা। অফসাইডের ফাঁদ ঠিকভাবে সাজাতে পারেননি। সেটা ভেঙে সহজেই গোল দিয়েছেন জেকো। তাতেই কিয়েলিনির দলে না থাকার প্রশ্নটা জোরালো হয়।

সংবাদ-সম্মেলনে উঠে আসে এ প্রসঙ্গ। আর সেখানে এ ভুলের দায় নিজের কাঁধে নিয়েছেন ইতালিয়ান কোচ কিয়েলিনি, 'এটা আমার ভুল। তারা আমাকে লাইন-আপ দেখিয়েছে। আমার চোখে তখন চশমা ছিল না এবং শুধু বলে দিয়েছিলাম, ঠিক আছে। কিয়েলিনির জায়গায় যে আকের্বি ছিল এটা আমি খেয়াল করিনি।'

কিয়েলিনি থাকলে সে গোলটি যে হতো না, এমনটা বলা যাচ্ছে না। তবে একজন পেশাদার কোচের এমন ছেলেমানুষি ভুলে কিছুটা হলেও আক্ষেপ নিয়ে মাঠ ছেড়েছে আজ্জুরিরা। ম্যাচটি জিতলে টানা জয়ের রেকর্ডটি আরও সমৃদ্ধ হতো তাদের।

তবে আকের্বিকে এ ম্যাচে না হলেও পরবর্তীতে সুযোগ দিতেন বলেই জানান মানচিনি, 'আমরা আকের্বি ও কিয়েলিনিকে ঘুরিয়ে ফিরিয়ে খেলানোর চিন্তা করেছি। আমি কিয়েলিনিকে জিজ্ঞাসা করেছিলাম তুমি আজকে খেলবে না-কি নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে। সে বলেছিল আজকে। তবে এখন আমরা পরবর্তী ম্যাচে বদলিয়ে নিব।'

তবে এ ভুলটাকে খুব বড় করে দেখতে চাইছেন না মানচিনি। একই প্রশ্ন বারবার উঠে আসায় কিছুটা ক্ষেপে গিয়েই বলেছেন, 'এমন না যে আমরা একজন ডিফেন্ডারের বদলে একজন গোলরক্ষক নামিয়ে দিয়েছি। এটা খুব বড় কোনো পার্থক্য গড়ে দেয়নি। তবে হ্যাঁ, এটা অবশ্যই ভুল ছিল।'

Comments

The Daily Star  | English
biman flyers

Biman does a 180 to buy Airbus planes

In January this year, Biman found that it would be making massive losses if it bought two Airbus A350 planes.

5h ago