করোনাভাইরাস

বিশ্বে আক্রান্তের সংখ্যা ৩ কোটি ছাড়াল, মৃত্যু ৯ লাখ ৪৪ হাজারের বেশি

বিশ্বব্যাপী প্রতিনিয়ত মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বাড়ছে। ইতোমধ্যে নয় লাখ ৪৪ হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন তিন কোটির বেশি। এ ছাড়া, সুস্থও হয়েছেন দুই কোটি চার লাখের বেশি মানুষ।
ফ্রান্সের একটি হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে চিকিৎসাধীন করোনা আক্রান্ত রোগীকে সেবা দিচ্ছেন স্বাস্থ্যকর্মীরা। ছবি: রয়টার্স

বিশ্বব্যাপী প্রতিনিয়ত মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বাড়ছে। ইতোমধ্যে নয় লাখ ৪৪ হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন তিন কোটির বেশি। এ ছাড়া, সুস্থও হয়েছেন দুই কোটি চার লাখের বেশি মানুষ।

আজ শুক্রবার জনস হপকিনস ইউনিভার্সিটির করোনাভাইরাস রিসোর্স সেন্টার এ তথ্য জানিয়েছে।

জনস হপকিনস ইউনিভার্সিটির সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন তিন কোটি ৭১ হাজার ৩১৪ জন এবং মারা গেছেন নয় লাখ ৪৪ হাজার ৮৮৭ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন দুই কোটি চার লাখ ৩২ হাজার ৮৫২ জন।

একবিংশ শতাব্দীতে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বড় মহামারি কোভিড-১৯। গত ডিসেম্বরের শেষ দিকে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে প্রথম করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঘটে।

প্রায় আড়াই মাসের মধ্যে গত ৩ এপ্রিল বিশ্বজুড়ে আক্রান্তের সংখ্যা ১০ লাখ ছাড়ায়। এর দেড় মাসের মধ্যেই আরও ৪০ লাখ মানুষ আক্রান্ত হয়ে গত ২১ মে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৫০ লাখ ছাড়ায়। পরের ৩৭ দিনে আরও ৫০ লাখের বেশি মানুষ আক্রান্ত হলে গত ২৮ জুন মোট আক্রান্তের সংখ্যা এক কোটি ছাড়ায়। এর পরের ৪৪ দিনে আক্রান্ত হয় আরও এক কোটিরও বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দুই কোটি ছাড়ায়। সর্বশেষ বিগত ৩৮ দিনে আক্রান্ত হয় আরও এক কোটি। যা নিয়ে মোট আক্রান্ত তিন কোটি ছাড়াল।

করোনাভাইরাসে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃত্যু যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছেন ৬৬ লাখ ৭৪ হাজার ৪১১ জন এবং মারা গেছেন এক লাখ ৯৭ হাজার ৬৩৩ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন ২৫ লাখ ৪০ হাজার ৩৩৪ জন।

যুক্তরাষ্ট্রের পর সবচেয়ে বেশি মৃত্যু দক্ষিণ আমেরিকার দেশ ব্রাজিলে। দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছেন ৪৪ লাখ ৫৫ হাজার ৩৮৬ জন, মারা গেছেন এক লাখ ৩৪ হাজার ৯৩৫ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৩৮ লাখ ৭৩ হাজার ৯৩৪ জন।

মৃত্যুর সংখ্যার দিক থেকে তৃতীয়তে রয়েছে মেক্সিকো। দেশটিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত ৭২ হাজার ১৭৯ জন মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন ছয় লাখ ৮৪ হাজার ১১৩ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন পাঁচ লাখ ৭৯ হাজার ১৪৫ জন।

মৃত্যুর সংখ্যার দিক থেকে চতুর্থতে থাকা যুক্তরাজ্যে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত ৪১ হাজার ৭৯৪ জন মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন তিন লাখ ৮৪ হাজার ৮৭ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন দুই হাজার ২০১ জন।

সংক্রমণের দিক থেকে দ্বিতীয়তে থাকা ভারতে আক্রান্ত হয়েছেন ৫১ লাখ ১৮ হাজার ২৫৩ জন, মারা গেছেন ৮৩ হাজার ১৯৮ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৪০ লাখ ২৫ হাজার ৭৯ জন।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ছে রাশিয়া, পেরু, কলম্বিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা ও চিলিতেও। রাশিয়ায় এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ১০ লাখ ৮১ হাজার ১৫২ জন, মারা গেছেন ১৮ হাজার ৯৯৬ জন এবং সুস্থ হয়েছেন আট লাখ ৯৩ হাজার ১৪৫ জন। পেরুতে আক্রান্ত হয়েছেন সাত লাখ ৪৪ হাজার ৪০০ জন, মারা গেছেন ৩১ হাজার ৫১ জন এবং সুস্থ হয়েছেন পাঁচ লাখ ৮৭ হাজার ৭১৭ জন।

কলম্বিয়াতে আক্রান্ত হয়েছেন সাত লাখ ৩৬ হাজার ৩৭৭ জন, মারা গেছেন ২৩ হাজার ৬৬৫ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ছয় লাখ ১৫ হাজার ৪৫৭ জন। দক্ষিণ আফ্রিকায় এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ছয় লাখ ৫৫ হাজার ৫৭২ জন, মারা গেছেন ১৫ হাজার ৭৭২ জন এবং সুস্থ হয়েছেন পাঁচ লাখ ৮৫ হাজার ৩০৩ জন। চিলিতে আক্রান্ত হয়েছেন চার লাখ ৪১ হাজার ১৫০ জন, মারা গেছেন ১২ হাজার ১৪২ জন এবং সুস্থ হয়েছেন চার লাখ ১৩ হাজার ৯২৮ জন।

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ইরানে আক্রান্ত হয়েছেন চার লাখ ১৩ হাজার ১৪৯ জন, মারা গেছেন ২৩ হাজার ৮০৮ জন এবং সুস্থ হয়েছেন তিন লাখ ৫৩ হাজার ৮৪৮ জন। তুরস্কে আক্রান্ত হয়েছেন দুই লাখ ৯৮ হাজার ৩৯ জন, মারা গেছেন সাত হাজার ৩১৫ জন এবং সুস্থ হয়েছেন দুই লাখ ৬৩ হাজার ৭৪৫ জন।

ইউরোপের দেশ স্পেনে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ছয় লাখ ২৫ হাজার ৬৫১ জন, মারা গেছেন ৩০ হাজার ৪০৫ জন এবং সুস্থ হয়েছেন এক লাখ ৫০ হাজার ৩৭৬ জন। ফ্রান্সে আক্রান্ত হয়েছেন চার লাখ ৫৪ হাজার ২৬৬ জন, মারা গেছেন ৩১ হাজার ১০৩ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৯১ হাজার ৭৬৫ জন। ইতালিতে আক্রান্ত হয়েছেন দুই লাখ ৯৩ হাজার ২৫ জন, মারা গেছেন ৩৫ হাজার ৬৫৮ জন এবং সুস্থ হয়েছেন দুই লাখ ১৫ হাজার ৯৫৪ জন। জার্মানিতে আক্রান্ত হয়েছেন দুই লাখ ৬৯ হাজার ৪৮ জন, মারা গেছেন নয় হাজার ৩৭৬ জন এবং সুস্থ হয়েছেন দুই লাখ ৩৮ হাজার ৩৪৭ জন।

ভাইরাসটির সংক্রমণস্থল চীনে আক্রান্ত হয়েছেন ৯০ হাজার ২৯৪ জন, মারা গেছেন ৪ হাজার ৭৩৬ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৮৫ হাজার ১৮১ জন।

উল্লেখ্য, গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, দেশে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত তিন লাখ ৪৪ হাজার ২৬৪ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। মারা গেছেন চার হাজার ৮৫৯ জন। এ ছাড়া, সুস্থ হয়েছেন দুই লাখ ৫০ হাজার ৪১২ জন।

Comments

The Daily Star  | English

Dhaka Wasa hikes water prices by 10pc from July

Wasa's respected customers are hereby informed that the prices were adjusted due to inflation according to section 22 of the Wasa Act 1996

51m ago