শীর্ষ খবর

জলবায়ু পরিবর্তন ঠেকাতে মানিকগঞ্জে শিক্ষার্থীদের সমাবেশ

জলবায়ুর পরিবর্তন ঠেকাতে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণের দাবিতে মানিকগঞ্জে সমাবেশ ও গাছের চারা রোপণ করেছে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন দিশারী।
জলবায়ুর পরিবর্তন ঠেকাতে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণের দাবিতে আজ জেলা শহরের বেউথা এলাকায় কালীগঙ্গা নদীতীরেন সমাবেশ অংশ নেয় স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। ছবি: জাহাঙ্গীর শাহ

জলবায়ুর পরিবর্তন ঠেকাতে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণের দাবিতে মানিকগঞ্জে সমাবেশ ও গাছের চারা রোপণ করেছে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন দিশারী।

আজ শুক্রবার দুপুর ১২টায় জেলা শহরের বেউথা এলাকায় কালীগঙ্গা নদীতীরে আয়োজিত এই সমাবেশে অংশ নেয় স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। তাদের হাতে ছিল নানা স্লোগান লেখা প্ল্যাকার্ড।

সংগঠনটির সভাপতি হাসান শিকদার বলেন, ‘আন্তর্জাতিক জলবায়ু পরিবর্তন আন্দোলনের প্লাটফর্ম ‘Fridays For Future’ এর উদ্যোগে আজ বাংলাদেশসহ বিশ্বের ১৭০টি দেশে জলবায়ু ধর্মঘট অনুষ্ঠিত হচ্ছে। বাংলাদেশে ওই সংগঠনটির সহযোগী হিসেবে আমাদের সংগঠনের উদ্যোগে দেশের ৬৪টি জেলায় ‘ক্লাইমেট স্ট্রাইক’ বা ‘জলবায়ু ধর্মঘট’ পালিত হচ্ছে। এই উদ্যোগে আমাদের সঙ্গে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু মন্ত্রণালয়ের সচিব মহোদয় ছাড়াও উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা যুক্ত আছেন।’

তিনি বলেন, ‘জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব এখনই পৃথিবীর মানুষের উপরে পড়ছে, ঝড়-বন্যা-দাবানল-খরা যেভাবে মানুষের জীবনে প্রভাব ফেলছে, সেগুলো ভবিষ্যতে আরও বিপর্যয়কর হয়ে উঠবে।’

মানিকগঞ্জ সরকারি মহিলা কলেজের দ্বাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থী শাম-মীম-জোপা বলেন, ‘জলবায়ুর পরিবর্তনের ফলে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবে আজকের শিশুরাই। এখনই জলবায়ু পরিবর্তন ঠেকাতে কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণ না করলে আমরা সমাজে টিকতে পারব না। আমাদের পরবর্তী প্রজন্মও টিকে থাকতে পারবে না।’

সরকারি দেবেন্দ্র কলেজের অনার্স তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী স্বপন মিয়া বলেন, ‘বড়রা গাছপালা কেটে কলকারখানা আর বাসস্থান বানাচ্ছে, সে কারণে বায়ুমণ্ডলের তাপমাত্রা বৃদ্ধি ও প্রাকৃতিক দুর্যোগ হচ্ছে। বড়রা অনেক ভুল করেছে এবং এখনো ভুল করেই যাচ্ছে। আমরাই পরবর্তী প্রজন্ম। আমরাই ভবিষ্যতে থাকবো। পরিবেশের যা অবস্থা, সেটা আমাদেরকেই সহ্য করতে হবে। তাই নিজেদের ভালোর জন্য আমাদেরকেই উদ্যোগ নিতে হবে।’

 

Comments

The Daily Star  | English

Why still feel hot despite heavy rain?

The country experienced heavy rainfall yesterday due to Cyclone Remal, but people from different parts of the country reported still feeling hot and discomfort

1h ago